নওমুসলিম ওমর ফারুক হত্যাকারীদের গ্রেফতারের দাবীতে উত্তাল মাটিরাঙা

fec-image

বান্দরবানের রোয়াংছড়ির তুলাছড়ি পাড়া জামে মসজিদের ইমাম নওমুসলিম মো. ওমর ফারুককে গুলি করে নির্মমভাবে হত্যার প্রতিবাদে এবং হত্যাকারীদের গ্রেফতার পুর্বক দৃষ্টান্তমুলক শাস্তির দাবীতে উত্তাল হয়ে উঠেছে পাহাড়ি জনপদ। তারই ধারাবাহিকতায় পার্বত্য খাগড়াছড়ির মাটিরাঙ্গায় মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়েছে।

নওমুসলিম মো. ওমর ফারুক হত্যাকারীদের গ্রেফতারসহ বিচারের আওতায় আনা না হলে কঠোর আন্দোলনের হুঁশিয়ারী উচ্চারণ করে বক্তারা বলেন, মো. ওমর ফারুক অন্য ধর্ম থেকে ইসলাম ধর্ম গ্রহণ করার কারনেই তাকে নির্মমভাবে হত্যা করেছে। তারা প্রশ্ন রেখে বলেন, ইসলাম ধর্ম গ্রহণ করে নিজের জমিতে মসজিদ প্রতিষ্ঠা করেছেন, মানুষকে ইসলামরের দাওয়াত দিচ্ছেন এটাই কি তার অপরাধ..?

বুধবার (২৩ জুন) বিকাল সাড়ে ৫টার দিকে মাটিরাঙ্গা কেন্দ্রীয় জামে মসজিদের সম্মুখে প্রধান সড়কে মানববন্ধনের আয়োজন করে ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ ও ইসলামী যুব আন্দোলন।

ঘন্টাব্যাপী মানববন্ধনে ইসলামি আন্দোলনের খাগড়াছড়ি জেলা শাখার সভাপতি হাফেজ মাও. দেলোয়ার হোসেন, মাটিরাঙ্গা কেন্দ্রীয় জামে মসজিদের ইমাম হাফেজ মাও. ক্বারী হারুনুর রশিদ, খাগড়াছড়ি জেলা ক্বওমী ওলামা পরিষদের সভাপতি মাও. আখতারুজ্জামান ফারুকী, মাটিরাঙ্গা খিদমাতুল উম্মাহর সদস্য মুহিবুল্লাহ্, সাংগঠনিক সম্পাদক জুনাইব হাবিব, ইশা ছাত্র আন্দোলনের নেতা শরিফ উদ্দিন প্রমুখ বক্তব্য রাখেন।

তিন পার্বত্য জেলায় মুসলমান হত্যাকারী উপজাতীয় সন্ত্রাসীদের বিচারের দাবি জানিয়ে বক্তারা পাহাড়ে সেনা ক্যাম্প স্থাপন ও চিরুনী অভিযান চালিয়ে অবৈধ অস্ত্র উদ্ধারের দাবি জানান। তারা বলেন, ত্রিপুরা, চাকমা ও মারমা সম্প্রদায়ের কেউ খ্রীস্টান ধর্মে দীক্ষিত হলে অপরাধ না হলে ইসলাম ধর্মের ছায়াতলে আসলে অপরাধ হবে কেন। পাহাড়ের নওমুসলিমসহ মুসলমানদের নিরাপত্তা নিশ্চিত করারও দাবি জানান বক্তারা।

বান্দরবানের রোয়াংছড়ির তুলাছড়ি পাড়া জামে মসজিদের ইমাম নওমুসলিম মো. ওমর ফারুকসহ সকল শহীদদের আত্মার মাগফেরাত কামনা করে বিশেষ মোনাজাত পরিচালনা করেন মাটিরাঙ্গা কেন্দ্রীয় জামে মসজিদের ইমাম হাফেজ মাও. ক্বারী হারুনুর রশিদ।

Print Friendly, PDF & Email
Facebook Comment

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

two × five =

আরও পড়ুন