নকআউটে ফ্রান্স ও পর্তুগাল, রোনালদোর বিশ্বরেকর্ড

fec-image

এফ গ্রুপের তৃতীয় দল হিসেবে ক্রিস্টিয়ানো রোনালদোর জোড়া গোলের সুবাদে ফ্রান্সের সঙ্গে ড্র করে নকআউটে জায়গা করে নিল পর্তুগাল। এ দিন দারুণ এক মাইলফলক স্পর্শ করেছেন রোনালদো। জাতীয় দলের জার্সি গায়ে ইরানের আলী দাইয়ের সর্বোচ্চ গোলের রেকর্ড ছুঁয়েছেন তিনি। ১০৯ গোল করে সমানভাবে এই রেকর্ডে মালিক রোনালদো ও আলী দাই। দুদলই স্মরণীয় কীর্তির রাতে পয়েন্ট ভাগাভাগি করে নকআউটে উঠল।

কোপেনহেগেনের পারকেন স্টেডিয়ামে বুধবার রাতে ম্যাচটি ২-২ গোলে ড্র হয়েছে। পর্তুগালের হয়ে জোড়া গোল করেন রোনালদো। অন্যদিকে ফ্রান্সের হয়ে জোড়া গোল করেন করিম বেনজেমা।

পর্তুগাল শুরু থেকে বল দখলে রেখে ফ্রান্সের রক্ষণে ভীত গড়তে থাকে। তবে বল দখলে নিলেও সুযোগ তৈরি করতে পারেনি তারা। ৩০তম মিনিটে রোনালদোর স্পট কিকে এগিয়ে যায় পর্তুগাল। ডি-বক্সে উড়ে আসা বল পাঞ্চ করতে গিয়ে দানিলো পেরেইরার মুখে ফ্রান্স গোলরক্ষক আঘাত করলে পেনাল্টি পায় বর্তমান চ্যাম্পিয়নরা। বেনজেমা প্রথমার্ধেই সফল স্পট কিকে ফ্রান্সকে সমতায় ফেরান।

বলের দিকে ছুটতে থাকা এমবাপেকে নেলসন সেমেদোর বাঁধা দিলে ডি-বক্সের মুখে পড়ে যান তিনি। এতে পেনাল্টির বাঁশি বাজান রেফারি। প্রতিবাদ জানায় পর্তুগাল, তবে ভিএআরেও সিদ্ধান্ত বহাল থাকে। এতেই ফ্রান্সকে সমতায় আনেন বেনজেমা।

ফ্রান্স দ্বিতীয়ার্ধের দ্বিতীয় মিনিটেই ব্যবধান বাড়ায়। পল পগবার উঁচু করে বাড়ানো থ্রু দারুণভাবে নিয়ন্ত্রণে নিয়ে ডি-বক্সে পেয়ে কোনাকুনি শটে ঠিকানা খুঁজে নেন বেনজেমা। প্রথমে অফসাইডের পতাকা উঠলেও ভিএআরের গোলের সিদ্ধান্ত আসে। খানিক সময়ের ব্যবধানে আবারও স্পট কিকে পর্তুগালকে সমতায় ফেরান রোনালদো। এতে করে তিনি ইরানের ফুটবলার আলী দাইয়ের রেকর্ডে ভাগ বসান। শেষের দিকে আর কোনো গোল না হওয়ায় ড্র করে গ্রুপ চ্যাম্পিয়ন হয় ফ্রান্স।

Print Friendly, PDF & Email
Facebook Comment

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

ten − four =

আরও পড়ুন