নজরদারীর অভাবে আকর্ষণ হারাচ্ছে রাঙামাটির সুভলং পর্যটন কেন্দ্র

ব্রীজ সুভলং

রাঙামাটি প্রতিনিধি:

পর্যটন শিল্পের অপার সম্ভামনাময় জেলা হচ্ছে রাঙামাটি জেলা। এখানের পর্যটন ষ্পটে প্রতি বছর হাজার হাজার পর্যটকের ভিড় জমে। এখানে পর্যটকদের আকর্ষণ করে ঝুলন্ত ব্রীজ, বন বিহার, সুভলং ঝর্না ,টুকটুক, পেদাতিংতিং, বালুছড়ি, আসাম বস্তি ব্রীজ, ঘাগড়া ঝর্না, কাপ্তাই নেভী ক্যাম্প, কাপ্তাই বাঁধ ইত্যাদি উল্লেখ্য যোগ্য।

এদের মাঝে পর্যটকদের বেশি আকর্ষন করে ঝুলন্ত ব্রীজ আর সুভলং ঝর্না। ঝুলন্ত ব্রীজের অবস্থা ভালো হলেও এখন সুভলং ঝর্নার অবস্থা খুব খারাপ। অব্যস্থাপনার কারণে এখানে দিন দিন পর্যটকদের ভিড় কমছে।

সরেজমিনে গিয়ে দেখা যায়, সুভলং ঝর্নায় এখন পর্যটক এসে আগের মত আনন্দ করতে পারেনা। এখানে ঝর্নায় যাওয়ার আগে একটি ছোট ব্রীজ আছে। এখান থেকে ঝর্নার সৌন্দর্য বেশি উপভোগ করা যায়। আর এ ব্রীজটি এখন আর ব্যবহার করা হয় না। কারন ব্রীজটির প্রায় ৫ভাগের ৩ভাগ নষ্ট হয়ে গেছে।

তাছাড়া ঝর্না দেখার জন্য যে কয়টা উঁচু সিড়ি আছে সেগুলোর অবস্থা আরো খারাপ। ঝর্নার আশেপাশে যে ছোট ছোট গোলঘর আছে প্রত্যেকটা এখন ব্যবহারের অযোগ্য। সুভলং পর্যটন ষ্পটের ইজারা নেয়া সুভংকর চাকমা বলেন, এখানে আগের মতো পর্যটক আসেনা। আসলে তাড়াতাড়ি চলে যায়। কারন এখানে বসার কোন ভালো যায়গা নাই। তাছাড়া ঝর্নার পানি যে ছড়া দিয়ে আসে সেখানে কিছু মানুষ বাধ দিয়ে রেখেছে। বাঁধ দেয়ার কারনে পানি আগের মতো বেশী পড়েনা। তাই এখানে আর পর্যটক আসতে চায়না।

ঝর্নার ইজারদার বললেন, কর্তৃপক্ষ যদি এসবের ব্যবস্থা নেয় তাহলে এখানে আগের মতো আবার পর্যটকদের ভিড় দেখা যাবে। ঝর্নায় ঘুড়তে আসা কয়েকজন পর্যটক বলেন, এখানের নিরাপত্তার খুভ অভাব। এখানে আর্মি বা পুলিশের টহলদল থাকা উচিত। কারন এখানে পাহাড়ী সন্ত্রাসীদের উৎপাত অনেক বেশী।

Print Friendly, PDF & Email
Facebook Comment

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

twelve − six =

আরও পড়ুন