নির্ধারিত সময়ের আগে বিদ্যালয় ছুটি: ৭ শিক্ষককে একযোগে বদলি

fec-image

খাগড়াছড়ির গুইমারা উপজেলাস্থ বুদংপাড়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সকল শিক্ষককে একযোগে শাস্তিমূলক অন্যত্র বদলী করা হয়েছে।

জানাযায়, ছুটির সরকারি নির্দেশনা অগ্রাহ্য করে নির্ধারিত সময়ের আগেই বিদ্যালয় ছুটি দিয়ে চলে যাওয়া এবং প্রাথমিক শিক্ষা অধিদপ্তরের উপ-পরিচালক স্টুডেন্স কাউন্সিল পরিদর্শনে এসে বিদ্যালয়ে তালা ঝুলতে দেখায় তাদের বিষয়ে এ ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে ।

আগামী ২৭ ফেব্রুয়ারির মধ্যে তাদেরকে বদলিকৃত বিদ্যালয়ে যোগদানের নির্দেশও দেয়া হয়েছে। শিক্ষা কর্মকর্তারা বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

জানা গেছে, গত ২৩ফেব্রুয়ারি খাগড়াছড়িতে স্টুডেন্স কাউন্সিল পরিদর্শনে আসেন প্রাথমিক শিক্ষা অধিদপ্তরের উপ-পরিচালক (পরিকল্পনা ও উন্নয়ন) ড. নুরুল আমিন চৌধুরী। তিনি ওইদিন বেলা ৩টা ৪৫ মিনিটে বুদংপাড়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে গিয়ে বিদ্যালয়ের প্রতিটি কক্ষে তালা ঝুলতে দেখেন।

তাৎক্ষনিকভাব বিষয়টি হস্তান্তরিত বিভাগসমূহের প্রধান হিসেবে খাগড়াছড়ি পার্বত্য জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান কংজরী চধুরীকে অবহিত করেন জেলা শিক্ষা কর্মকর্তা। সেদিন প্রাথমিক শিক্ষা অধিদপ্তরের উপ-পরিচালক জেলার অন্তত ১৩টি বিদ্যালয় পরিদর্শন করন।

জেলা প্রাথমিক শিক্ষা কর্মকর্তা ফাতেমা মেহের ইয়াসমিন জানিয়েছেন, বিকাল ৪টা পর্যন্ত বিদ্যালয় খোলা রাখার সরকারি বিধান অমান্য করায় বুদংপাড়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষকদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা গ্রহনের জন্য জেলা পরিষদ চেয়ারম্যানের পরামর্শ চাওয়া হয়।

পরবর্তীত জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান কংজরী চৌধুরীর নির্দেশ অনুযায়ী ওই বিদ্যালয়র প্রধান শিক্ষিকা শামীমা আক্তারসহ প্রত্যেক শিক্ষক-শিক্ষিকাকে অন্যত্র বদলির আদেশ গত ২৪ ফেব্রুয়ারি জারি করা হয়েছে।

গুইমারা উপজেলা শিক্ষা কর্মকর্তা হিটলারুজ্জামান জানান, সেদিন স্টুডেন্ট কাউন্সিল থাকায় বেলা ১টা পর্যন্ত বিদ্যালয় খোলা ছিলো। কিন্তু বিদ্যালয় ছুটির নির্ধারিত সময়ের আগেই শিক্ষকরা ছুটি দিয়ে চলে যাওয়ায় উর্ধ্বতন কর্মকর্তাদের সুপারিশে এই শাস্তিমূলক ব্যবস্থা নেয়া হয়েছে। বিদ্যালয় পরিচালনা কমিটির সভাপতি উশ্যেপ্রু মারমা বলেন, ‘স্টুডেন্ট কাউন্সিলের ফলাফল ঘাষণা পর্যন্ত তিনি ছিলেন। অথচ সময়ের আগেই ছুটি দেয়ার বিষয়টি তার জানা ছিলোনা।

জানা গেছে, প্রধান শিক্ষক শামীমা আক্তারকে অপক্ষাকৃত দূর্গম এলাকা বলে পরিচিত পাশের উপজলা মাটিরাঙ্গার যতন কুমার সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে যোগদান করতে নির্দেশ দেয়া হয়। তার স্থলে মাটিরাঙ্গা শ্বশানটিলা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক সজল কুমার ঘরজাকে প্রধান শিক্ষক হিসেব বদলি করা হয়েছে।

এদিক বুদংপাড়ার অন্য ৬ শিক্ষকের মধ্যে সুধন চদ্র দে, রেজাউল করিম, মমতা রানী দত্তকে মাটিরাঙ্গা এবং আফরোজা চৌধুরী, রাবাই মারমা ও মাসুইনু মারমাকে গুইমারার অপক্ষাকৃত দূরবর্তী বিদ্যালয়সমূহ বদলি করা হয়।

প্রত্যেককে আগামী ২৭ ফব্রুয়ারির মধ্যে বদলিকৃত কর্মস্থলে যোগদান করতে আদেশক্রমে নির্দেশ দেয়া হয়। অন্যথায় ১ মার্চ থেকে তারা বর্তমান কর্মস্থল থেকে তাৎক্ষনিক অবমুক্ত বলে গন্য হবেন।

এ বিষয়ে বুদংপাড়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষিকা শামীমা আক্তার জানান, স্টুডেন্ট কাউন্সিল শেষে শ্রেণি কার্যক্রম না থাকায় বেলা ঠিক ৩.৪৫ মিনিটে বিদ্যালয় ছুটি ঘোষণা করা হয়। উল্লখ্য যে, শামীমা আক্তার এ বছরই জেলার শ্রেষ্ঠ প্রধান শিক্ষিকা হিসেবে নির্বাচিত হয়েছিলেন।

Print Friendly, PDF & Email
Facebook Comment

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

sixteen − 2 =

আরও পড়ুন