নির্বাচনে পক্ষে কাজ না করায় দুটি গরুকে কুপিয়ে জখম

fec-image

রামুর কাউয়ারখোপ ইউনিয়নের ৮নং ওয়ার্ডের উখিয়ারঘোনা টিলাপাড়া এলাকায় নির্বাচনী বিরোধের জের ধরে দুটি গরুকে জখম করার অভিযোগ পাওয়া গেছে। ওই এলাকার মৃত ওমর আলীর ছেলে নুরুল কাদের জানান, ১১ নভেম্বর অনুষ্ঠিত নির্বাচনে তিনি বর্তমান মেম্বার হাবিব উল্লাহর পক্ষে কাজ করেন।

এ সময় অপর প্রার্থী নুরুল ইসলামের ভাতিজা সাইমুম সরওয়ার কমল উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক আতিকুর রহমান তাকে তার চাচার পক্ষে কাজ করার জন্য চাপ প্রয়োগ করেন। কিন্তু এতে তিনি সাড়া না দিলে তাকে দেখে নেয়ার হুমকী দেন।

এরই জের ধরে আতিকুর রহমানের লেবু বাগানের পাশে পতিত জমিতে নুরুল কাদেরের দুটি গরু প্রতিদিনের মতো ঘাস খাওয়ার সময় দেখেন ফেলেন আতিকুর রহমান। এসময় আতিকুর রহমান দা নিয়ে ওই দুটি গরুকে কুপ দিয়ে জখম করে।

ওই এলাকায় বেড়াতে আসা গোয়ালিয়া এলাকার শফি আলম এবং স্থানীয় দানু মিয়ার স্ত্রী দিলদার বেগম সহ কয়েকজন এ নির্মম দৃশ্য দেখতে পান।

গরু দুটির মালিক নুরুল কাদের আরো জানান, অভিযুক্ত আতিকুর রহমান স্থানীয় একটি উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক। একজন শিক্ষক কর্তৃক পশুর উপর এমন বর্বরতা অত্যন্ত দুঃখজনক। তিনি আরো বলেন- গরুকে কোপানোর সময় আতিকুর রহমান নুরুল কাদের এবং তার পরিবারের সদস্যদের মারধরের হুমকী দিয়েছেন।

স্থানীয় ইউপি সদস্য হাবিব উল্লাহ জানান, তিনি বিষয়টি শুনেছেন। এরচেয়ে দুঃখজনক আর কি হতে পারে। নির্বাচনে হেরে গিয়েও তিনি কাউকে কটু কথা বলেননি। অথচ নুরুল ইসলাম নির্বাচনে জয়ী হওয়ার পরও প্রতিশোধ পরায়ন হয়ে লোকজনকে হুমকী-ধমকি এবং নিরীহ প্রাণী গরুকেও কুপিয়ে জখম করছে। তিনি এ ঘটনার সুষ্ঠু বিচার দাবি করেছেন।

এদিকে এ ঘটনায় আইনী ব্যবস্থা নেবেন বলে জানান- গরু দুটির মালিক কৃষক নুরুল কাদের।

Print Friendly, PDF & Email
Facebook Comment

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

2 × three =

আরও পড়ুন