পাথরঘাটায় গ্যাস লাইন বিস্ফোরণে নিহত উখিয়ার নুরুল ইসলামের বাড়িতে চলছে শোকের মাতম

fec-image

চট্টগ্রামের পাথরঘাটা এলাকায় গ্যাস লাইন বিস্ফোরণে শিশুসহ ৭ জন নিহত হয়েছে। এ ঘটনায় আহত হয়েছে আরও ১৫ জন। এদের এক জন উখিয়া উপজেলার বাসিন্দাও রয়েছে।

রোববার (১৭ নভেম্বর) সকাল ৯টার দিকে পাথরঘাটা ব্রিকফিল্ড রোডের কুঞ্জমনি ভবনে এ দুর্ঘটনা ঘটে। বিস্ফোরণের পর দুটি ভবনের দেয়ালের একাংশ ধসে পড়ে এ হতাহতের ঘটনা ঘটে।

বিস্ফোরণে নিহত উখিয়া উপজেলা রাজাপালং ইউনিয়ন তুতুরবিল ১ নং ওয়ার্ড বাসিন্দা মরহুম আব্দুল হাকিম মেকানিকের ছোট ছেলে নুরুল ইসলামও (২৭) রয়েছে। ঘটনার খবর জানাজানি হয়ে গেলে নিহতের পরিবারের মাঝে নেমে এসেছে শোকের ছায়া।

জানা গেছে, প্রতি দিনের মতো নুরুল ইসলাম তার কর্মস্থলে যাওয়ার সময় ঐ বিল্ডিং এর সামনের রাস্তায় পৌঁছালে বিস্ফোরণের কবলে পড়ে ঘটনাস্থলে মারা যান। নিহত নুরুল ইসলাম চট্টগ্রামে বিল্ডিং এন্ড প্রিন্টিং এর কাজ করতেন। ঘরে তার ১২ মাসের একটি কন্যা সন্তানও রয়েছে। একমাত্র কনিষ্ট সন্তানকে হারিয়ে আত্মহারা নিহত নুরুল ইসলামের স্বজনরা। অন্যদিকে ১২ মাসের শিশু সন্তান তার অচেনা পিতাকে চিরতরে হারিয়ে এতিম হয়ে যাওয়ায় তার চেহারার দিকে কেউ তাকাতে পারছে না।

চট্টগ্রাম মেডিকেল হাসপাতালে ময়নাতদন্ত শেষ করে তাকে গ্রামের বাড়ি তুতুরবিল কবরস্থানে ১১টার দিকে দাফন করার কথা রয়েছে।

উল্লেখ্য, পাথরঘাটায় বিস্ফোরণের পর আহতাবস্থায় প্রথমে ১২ জনকে চমেক হাসপাতালে নিয়ে আসা হয়। এদের মধ্যে ৭ জনকে চিকিৎসক মৃত ঘোষণা করেন। নিহতদের মধ্যে চারজন পুরুষ, দুইজন নারী ও একজন শিশু।

এদিকে নিহতদের মধ্যে ৬ জনের পরিচয় পাওয়া গেছে। তারা হলেন- কক্সবাজারের উখিয়ার নুরুল ইসলাম (৩১), পটিয়ার মেহেরআটি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষিকা অ্যানি বড়ুয়া (৪০), রাঙ্গুনিয়ার কাজল নাথের মেয়ে কৃষ্ণকুমারী স্কুলের নবম শ্রেণির শিক্ষার্থী অর্পিতা নাথ (১৬), নতুন ব্রিজ এলাকার শ্রমিক নুরুল ইসলাম (৩০), পাথরঘাটার জুলেখা খানম ফরজানা (৩০) ও তার ছেলে আতিকুর রহমান (৮)।

Print Friendly, PDF & Email
Facebook Comment

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

15 + four =

আরও পড়ুন