পানছড়িতে আমনের বাম্পারে কৃষকের মুখে হাসি

RICE PIC

শাহজাহান কবির সাজু, পানছড়ি, খাগড়াছড়ি:

জেলার পানছড়ি উপজেলার পাঁচটি ইউনিয়নের কৃষকের চোখে-মুখে প্রশান্তির ছোঁয়া। কৃষককুল যেন খুশিতে আত্মহারা। কারণ একটাই শুধু ধান আর ধান। যেদিকে চোখ যায় দেখা যাচ্ছে কাস্তে হাতে সোনালী ধানের ছড়া কেটে জমিন সাবাড় করছে কৃষক। আর কৃষানীর সহযোগিতা বাড়ির আঙ্গিনায় জমছে ধানের স্তুুপের পাহাড়। যা দেখলে ক্ষনিকেই মন প্রাণ সব জুড়িয়ে যায়।

পানছড়ির বিভিন্ন এলাকায় ঘুরলে আমনের স্তুুপ দেখে সহজেই অনুমান করা যায় কি পরিমান ধান হয়েছে এই উপজেলায়। পুরুষ-মহিলা, আবাল বৃদ্ধ, বনিতা সবাই ধান নিয়ে ব্যস্ত সময় কাটাচ্ছে। কথা বলার সময় পর্যন্ত নেই। কেউ ধান ঝরাচ্ছে, কেউ রোদে দিচ্ছে কেউ স্তুুপ দিচ্ছে ইত্যাদি ইত্যাদি। অনেক কৃষকের সাথে আলাপকালে জানা যায়, তাদের কঠোর পরিশ্রম ও আবহাওয়া অনুকুলে থাকায় আগেই বুঝতে পেরেছে ফলন বাম্পার হবে।

তারা আরও জানান, পুরো পানছড়িতেই বাম্পার ফলন হয়েছে এখন নায্য মূল্যে পেলেই শতভাগ হাসি ফুটবে। বাম্পার ফলন সম্পর্কে পানছড়ি কৃষি অফিস সূত্রে জানা গেছে, এবার পানছড়িতে ফলনের অর্জিতমাত্রা ৩৬২০ হেক্টর যা গতবারে ছিল ৩৬১০ হেক্টর। যাতে হেক্টর প্রতি সাড়ে পাঁচ মে্িট্টক টন আমনের চাষ হওয়ার সম্ভবনা রয়েছে। অনুুকুল পরিবেশের ফলেই গতবারের রেকর্ড ভেঙ্গে এবার ফলন আরো বেশী হবে ধারণা করা হচ্ছে।

আরো জানা যায়, বিভিন্ন জমি থেকে ধানের নমুনা সংগ্রহ করে ধানের সাইজ বেশ ভালো এবং পুষ্ট পেয়েছেন। তবে কৃষকদের প্রশংসা করে বলেন, কৃষকরা চারা রোপনের সময় আইল ঠিক রেখেছিল যার ফলে আগাছা নিধন ও উইডার ঠিকভাবে দেওয়ার ফলে ফলন বাম্পার এসেছে।

Print Friendly, PDF & Email
Facebook Comment

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

one × 3 =

আরও পড়ুন