পানছড়িতে রাতের আধারে পাঁচ সহস্রাধিক গাছ কর্তন করেছে দুর্বৃত্তরা

fec-image

পানছড়িতে শত্রুতার জের মিটিয়ে রাতের আধারে পাঁচ সহস্রাধিক গাছ কর্তৃন করেছে দুর্বৃত্তরা। ২৮ মে রাতে পানছড়ি উপজেলার শনটিলা ও কালানাল এলাকায় এ অমানবিক ঘটনা ঘটে।

সরেজমিনে শনটিলা গিয়ে দেখা যায়, বাগান মালিক ওবায়দেুল হকের হৃদয় বিদারক কান্না। বিশেষ করে আমসহ কর্তন করা গাছগুলো সবার চোখের জল বের করে ছেড়েছে।

দমদম তেতুল টিলার মৃত আকমত আলী ছেলে ওবায়েদুল হক আবাদ জানান, সাড়ে সাত একর জায়গার মাঝে পাঁচ বছর আগে সেগুন ও আম বাগান সাজিয়েছিলাম। সেই বাগান থেকেই দুর্বৃত্তরা পাঁচ হাজার সেগুন ও তিন শতাধিক আম গাছ কর্তন করে ফেলেছে। এসব বাগান সাজাতে বিভিন্ন এনজিও ও সমিতি থেকে লোন নিয়ে এ পর্যন্ত প্রায় ত্রিশ লক্ষাধিক টাকার মতো ব্যয় করেছি। সহায় সম্বল বিক্রি করে সাজানো বাগান হারিয়ে সে আমি এখন পথহারা। এলাকার নীরু কার্বারী ও বাবন কার্বারী বাগানে পাহারাদারের ঘর নির্মাণে কয়েক বার নিষেধ করে শালিশ দরবার করেছে। তারা এ কাজে জড়িত থাকতে পারে তিনি ধারণা করছেন।

এদিকে কালানাল-শনটিলা সড়কের পাশেই তিন বছর ধরে আম বাগান সাজিয়েছে মোটরসাইকেল চালক ইয়াছিন। সে কালানালের তাজুল ইসলামের ছেলে। একই দিন রাতে তার বাগানেরও দুই শতাধিক গাছ কর্তন করা হয়।

ইয়াছিন জানায়, এনজিও ও সমিতি থেকে লোন নিয়ে সাজানো বাগানটি ছিল একমাত্র ভরসা। এখন সব কিছুই শেষ হয়ে গেছে। জায়গাটি এলাকার যুথিনাথ ও চন্দ্রনাথ ত্রিপুরা থেকে কেনা হয়। কিছুদিন ধরে তারা জায়গার আরও টাকা দাবি করছিল। তারা এ ঘটনা ঘটাতে পারে বলে তাদের ধারণা। দু’জনেই এ ব্যাপারে আইনের আশ্রয় নিবে বলে জানায়। এ নিয়ে পানছড়ির সর্বস্তরের জনগন ও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে বয়ে চলেছে তীব্র নিন্দার ঝড়।

পানছড়ি থানার ওসি মোহাম্মদ দুলাল হোসেন জানান, এ ব্যাপারে কোন অভিযোগ এখনো থানায় আসে নাই। হাতে পেলেই আইনগত ব্যবস্থা নিব।

Print Friendly, PDF & Email
Facebook Comment

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

six − two =

আরও পড়ুন