পানছড়িতে শিক্ষক-শিক্ষার্থীর সাথে পাখির সখ্য

fec-image

পানছড়িতে বিদ্যালয় শিক্ষক-শিক্ষার্থীদের সাথে সখ্য গড়ে তুলেছে কয়েকটি পাখি। করোনার মহামারীর লকডাউনের আঠারো মাসের বন্ধে বিদ্যালয়ের সৌন্দর্য বর্ধণে সাজিয়ে রাখা ফুলের টবগুলো দখলে নেয় পাখিরা। সাতটি টবে বাসা বেঁধে ডিম থেকে কয়েকবার ছানাও ফুটিয়েছে।

কোভিড-১৯ এর পরিস্থিতি স্বাভাবিক হয়ে বিদ্যালয় খোলা হলেও বিদ্যালয় ছাড়েনি পাখির দল। বীরদর্পে শিক্ষার্থীদের মাথার উপর দিয়ে উড়াল মেরে বাসায় ডুকে ডিমে তা দেয় নির্ভয়ে। শিক্ষক-শিক্ষার্থীর সাথে তাদের দারুণ সখ্য।

বর্তমানে তিনটি টব ও টবের পাশে গাছের ডালে একটিসহ মোট চারটি বাসা রয়েছে। পাখিদের নিরাপত্তা নিয়ে শিক্ষার্থীরা সর্বদা সজাগ। পানছড়ির পাখি ও শিক্ষার্থী প্রেমী এই বিদ্যালয়ের নাম নালকাটা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়।

ফুলের টবে সাজানো ও বিশালাকার কৃষ্ণচুড়ার ছায়াতলে এই দৃষ্টিনন্দন বিদ্যালয়টির অবস্থান। পঞ্চম শ্রেণীর শিক্ষার্থী ম্রাচিং মারমা, জীবন চাকমা, হিমেল চাকমা ও শুভাষ চাকমা জানায়, পাখিরা আমাদের বন্ধু। বাসায় বসে ডিম তা দেয়ার দৃশ্য আমরা সবাই উপভোগ করি।

বিদ্যালয় শিক্ষক ঝুমি চাকমা, ভেলেন্তিনা চাকমা, স্বর্ণালী চাকমা জানায়, টবে থাকা পাখির বাসাগুলো বিদ্যালয়ের সৌন্দর্যকে দ্বিগুন বাড়িয়ে দিয়েছে। পাখিদের ফুড়–ৎ ফুড়–ৎ আসা-যাওয়া সবাই দারুণভাবে উপভোগ করি।

বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক অমর সিংহ ত্রিপুরা জানান, দীর্ঘ বন্ধে বিদ্যালয়ে সাজানো ফুলের টবগুলোতে পাখিরা বাসা বাঁধে। বিদ্যালয় খোলার পরও ডিমসহ চারটি বাসা টবে ঝুলছে। পাখিদের বিচরণ দারুণ উপভোগ্য। পাখিরা যাতে নির্ভয়ে বাসায় আসা-যাওয়া করতে পারে সে ব্যাপারে শিক্ষক-শিক্ষার্থী সবাই সচেতন।

Print Friendly, PDF & Email
ঘটনাপ্রবাহ: পাখির সখ্য, পানছড়িতে, শিক্ষক-শিক্ষার্থীর
Facebook Comment

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

eleven − two =

আরও পড়ুন