পানছড়ির প্রিয়রঞ্জনকে সেনাবাহিনীর দৃষ্টিনন্দন বাড়ি উপহার

fec-image

পানছড়ির বয়ো:বৃদ্ধ প্রতিবন্ধী প্রিয়রঞ্জন চাকমা অবশেষে স্ব-পরিবারে উঠলো পাকা ঘরে। তার স্বপ্ন পূরণ করে দৃষ্টিনন্দন একটি বাড়ি নির্মাণ করে দিয়েছে বাংলাদেশ সেনাবাহিনী খাগড়াছড়ি সদর জোন।

শনিবার (৩ এপ্রিল) সকালে খাগড়াছড়ি সদর জোন কমান্ডার লে. কর্নেল মো. জাহিদুল ইসলাম সরেজমিনে উপস্থিত থেকে প্রিয়রঞ্জন চাকমার হাতে ঘরের চাবি তুলে দেন।

এ সময় আবেগে চোখে জল আসে প্রিয়রঞ্জনের। কান্নাজড়িত কণ্ঠে জানায়, ছিলাম আমি ভাঙ্গা ঘরে আজ থেকে থাকবো স্বপ্নের পাকা ঘরে। বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর জন্য সবাই প্রাণ খুলে আর্শিবাদের কথা জানান।

এ বিষয়ে খাগড়াছড়ি সদর জোনের জোন কমান্ডার লে. কর্নেল মো. জাহিদুল ইসলাম, পিএসসি জানান, মানুষের মৌলিক পাঁচটি অধিকার এর মধ্যে বাসস্থান অন্যতম। মানুষ তার মৌলিক অধিকারসমূহ যাতে সঠিকভাবে ভোগ করতে পারে খাগড়াছড়ি সদর জোন এ বিষয়ে সর্বদাই কার্যকরী ব্যবস্থা গ্রহণ করবে।

তিনি আরও বলেন, খাগড়াছড়ি সদর জোন যেকোনো দুর্যোগপূর্ণ পরিস্থিতিতে আর্ত-মানবতার সেবায় বেসামরিক প্রশাসনকে তাৎক্ষণিক সহায়তায় সর্বক্ষণ পাশে ছিল এবং আগামীতেও পাশে থাকবে। শান্তি, সম্প্রীতি এবং উন্নয়ন এই মূলমন্ত্রকে সামনে রেখে বাংলাদেশ সেনাবাহিনী পার্বত্য চট্টগ্রামে দীর্ঘদিন যাবৎ অত্যন্ত দক্ষতার সাথে পেশাগত দায়িত্ব পালন করে আসছে। মনে রাখতে হবে আমরা সকলেই খাগড়াছড়ি জেলার বাসিন্দা। এ জেলার উত্তরোত্তর উন্নতি এবং সামনে এগিয়ে নিয়ে যাওয়া আমাদের সকলের নৈতিক দায়িত্ব।

এছাড়াও তিনি বলেন, ভবিষ্যতেও পাহাড়ি জনসাধারণসহ পাহাড়ে বসবাসরত জনগণের আর্থ-সামাজিক উন্নয়নের পাশাপাশি সকল সম্প্রদায়ের মধ্যে সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতি রক্ষায় সেনাবাহিনীর এরূপ উদ্যোগ অব্যাহত থাকবে।

তিনি জানান, পার্বত্য অঞ্চলের জনগণের জানমাল রক্ষা ও যেকোন দুর্যোগ মোকাবেলায় বাংলাদেশ সেনাবাহিনী নিরলসভাবে কাজ করে যাচ্ছে, সেই ধারাবাহিকতা বজায় রাখতে বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর প্রতিটি সদস্য সদা তৎপর রয়েছে এবং ভবিষ্যতেও থাকবে। সাম্প্রদায়িকতার বন্ধনকে আরো সুদৃঢ় করার লক্ষ্যে আর্থ-সামাজিক উন্নয়নের পাশাপাশি শিক্ষা, চিকিৎসাসহ সকল ধরণের সহযোগিতা চলমান থাকবে।

গত ৯ মার্চ জনপ্রিয় অনলাইন পার্বত্য নিউজে প্রকাশিত ‘পানছড়ির প্রিয়রঞ্জনের আকুতি একখানা ঘর’ সংবাদটি দৃষ্টিগোচর হয় খাগড়াছড়ি সদর জোন অধিনায়ক লে. কর্নেল মো. জাহিদুল ইসলামের। অবশেষে ১৩ মার্চ থেকে খাগড়াছড়ি সদর জোনের তত্বাবধানে ঘর নির্মার্ণের কার্যক্রম শুরু করে খুব দ্রুত সময়ে সম্পন্ন করে ৩ এপ্রিল (শনিবার) সকালে ঘরের চারি হস্তান্তর করা হয়।

চার-পাঁচটি খুটির উপর কোন রকম দাঁড়িয়ে থাকা চারিদিকে ভাঙ্গা বেড়ার ঘরের আদলে এখন শোভা পাচ্ছে দৃষ্টিনন্দন পাকা বাড়ি আর প্রিয় রঞ্জনের চোখে-মুখে স্বস্তির হাসি। ঘরের চাবি হস্তান্তর অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন ক্যাপ্টেন সাফিন আল সাইফ পলক, দীঘিনালা উপজেলা চেয়ারম্যান মো. আবুল কাশেম, পানছড়ি থানা অফিসার ইনচার্জ মো. দুলাল হোসেন, পানছড়ি উপজেলা আওয়ামী লীগ সভাপতি মো. আব্দুল মোমিন, সাধারণ সম্পাদক বিজয় কুমার দেব, উল্টাছড়ি ইউপি চেয়ারম্যান বিজয় চাকমা, সাবেক চেয়ারম্যান সুব্রত চাকমা প্রমুখ।

বাংলাদেশ সেনাবাহিনী খাগড়াছড়ি জোন এবারের হাড়কাঁপানো শীতে শীতবস্ত্র, বিভিন্ন বিদ্যালয়, ক্লাবে ক্রীড়া সামগ্রী, গরীব মেধাবী শিক্ষার্থীদের আর্থিক সহায়তা, করোনার মহামারীতে খাদ্য সামগ্রী প্রদানসহ বয়ো:বৃদ্ধ ও প্রতিবন্ধীদের নানান সহায়তা দিয়ে সকল সম্প্রদায়ের মন জয় করেছে। সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতি বজায় রাখতে সেনাবাহিনীর অপরিসীম ভূমিকার কথা জানালেন অনেকেই।

Print Friendly, PDF & Email
ঘটনাপ্রবাহ: দৃষ্টিনন্দন বাড়ি, পানছড়ি, প্রিয়রঞ্জন
Facebook Comment

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

7 − 4 =

আরও পড়ুন