পানছড়ির শুকনাছড়ি ছড়ার উপর বিকল্প সেতু মঙ্গলবারে চালুর আশ্বাস

fec-image

পানছড়ি-খাগড়াছড়ি সড়কের নালকাটা শুকনাছড়ি ছড়ার উপর স্টিলের বেইলী সেতু মঙ্গলবার থেকে চালু হতে পারে বলে আশ্বাস প্রদান করা হয়েছে। বেইলী সেতু নির্মাণের প্রধান কারিগর মো. শহীদ এই প্রতিবেদককে বিষয়টি জানান।

উপস্থিত সড়ক ও জনপথের কার্য সহকারী তরুণ ত্রিপুরা জানান, কাজের অগ্রগতি বেশ ভালো। মঙ্গলবারের দিকে যান চলাচল করতে পারবে বলে তিনিও জানান।

গত ২৬’জুলাই মঙ্গলবার রাতের প্রবল বর্ষণে ধসে পড়েছিল পানছড়ি-খাগড়াছড়ি সড়কে নালকাটা শুকনাছড়ি ছড়ার উপর নির্মিত কালভার্ট। ফলে ভোগান্তিতে পড়ে এই সড়কে নিত্য চলা বিভিন্ন বাহিনীর যানবাহন, সিএনজি, মোটর সাইকেল, ব্যাটারি চালিত টমটম, চান্দের গাড়ী, জীপ ও শান্তি পরিবহনের হাজারো যাত্রী। বর্তমানে শান্তিপুর হয়ে গ্রাম্য আঁকা-বাঁকা বিকল্প সড়কে কোন রকম যাত্রী পারাপার হলেও পরিবহন ভাড়া গুনতে হচ্ছে বেশি। তাছাড়া পাহাড়ি রাস্তার বাঁকগুলোতে নির্দেশনা চিহ্ন না থাকায় যে কোন মুহুর্তে দুর্ঘটনার আপশঙ্কা রয়েছে।

বাউরাপাড়া এলাকার প্রকল্প চেয়ারম্যান খুলরাম চাকমা জানান, গ্রাম্য রাস্তা দিয়ে পানছড়ি-খাগড়াছড়িমুখী শত শত পরিবহন চলাচল করছে। যার ফলে ছোট ছোট কালাভার্টগুলোও এখন ঝুঁকির মুখে। তাছাড়া বড় গাড়ি পারাপারে ঘন্টার পর ঘন্টা জ্যাম লেগেই থাকে। তিনি দ্রুত ব্যবস্থা নিয়ে বিকল্প একমাত্র গ্রাম্য রাস্তাটি রক্ষার দাবি জানান।

স্থানীয় ইউপি সদস্য বিনয় বিকাশ চাকমাসহ অনেকের দাবি গত দুই মাস আগেও প্রায় লক্ষ লক্ষ টাকা ব্যয় করে কালভার্টটির এক পাশের দুই সাইডে দেয়াল ও নিচে সামান্য ঢালাই দেয়া হয়েছিল। কিন্তু সঠিক তদারকির অভাবে নামে মাত্র কাজ করে হরিলুট করা হয়েছে। এর জন্য সড়ক ও জনপথের দুর্বল ব্যবস্থাপনাকেই দায়ী করেছে স্থানীয়রা।

পানছড়ি-খাগড়াছড়ি সড়কের দায়িত্বে থাকা খাগড়াছড়ি সড়ক ও জনপথের উপ-সহকারী প্রকৌশলী রনেন চাকমা জানান, ২০২১-২২ অর্থ বছরে এই কালভার্টে কাজ করেছে আবিদ মনসুর নামের ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠান। প্রকল্পের বরাদ্দ ছিল নয় লক্ষ টাকা। কাজের গুণগত মান নিয়ে তিনি কিছু বলতে রাজী হননি। তিনি আরো জানান, স্টিলের তৈরি বেইলী ব্রিজের মাধ্যমে সড়কটি আপাতত সচল করা হচ্ছে। নতুনভাবে করার জন্য ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের নিকট প্রস্তাব দেয়া হয়েছে। যা বাস্তবায়ন করতে বছর খানেকের উপর সময় লাগতে পারে।

Print Friendly, PDF & Email
Facebook Comment

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

3 × 2 =

আরও পড়ুন