পানছড়ি আনসার বাহিনীর সাহসী সৈনিক রিয়াজ

fec-image

পানছড়ি উপজেলা আনসার বাহিনীর এক সাহসী সৈনিকের নাম রিয়াজ উদ্দিন। শারিরীক গঠনে সে সুঠাম দেহের অধিকারী। তার আচার-আচরণ যেমন মার্জিত তেমনি ফুটবল, ভলিবলসহ করোনা মহামারীর সময়ে পানছড়িতে দিয়েছে সাহসী সেবা।

করোনা শনাক্ত রোগীর বাড়ি ও আশ-পাশ এলাকায় লকডাউনে লাল পতাকা উত্তোলন, মাসের অধিক সময় ধরে পানছড়ি বাজার মডেল সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় ছাত্রাবাসে গড়ে তোলা কোয়ারেন্টিনে দায়িত্ব পালন, হোম আইসোলেশনে থাকা করোনা রোগীর বাড়ির বাজার ও ঔষধ পত্রাদি সরবরাহ করে ইতোমধ্যে নজির স্থাপন করেছে মানব সেবায়।

সোনালী ব্যাংক, সমাজ সেবা অফিসে ভাতা বিতরণ ও বিভিন্ন এলাকায় ত্রাণ বিতরণে হ্যান্ড মাইক হাতে সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখতে দেখা গেছে রিয়াজের বিশেষ ভুমিকা।

রিয়াজ ফুটবল ও ভলিবলে খেলাতেও দক্ষ। সুযোগ পেলেই বিকেলে নেমে পড়ে ওয়ার্মআপে। বাংলাদেশ জাতীয় ভলিবল দলের অধিনায়ক আল-জাবের, সহ-অধিনায়ক সোহেলসহ দেশসেরা তারকাদের সাথে খেলার অভিজ্ঞতা তার ঝুলিতে আছে।

২০১৭ সালে ভলিবলে খাগড়াছড়ি জেলা চ্যাম্পিয়ন পানছড়ি উপজেলা দলের অপরিহার্য সদস্য ছিল সে। রিয়াজ উপজেলার মোহাম্মদপুর গ্রামের মৃত আবদুল বাতেনের সন্তান।

২০০৮ সালের ৩ জুলাই সে বাংলাদেশ আনসার বাহিনীতে যোগ দিয়ে একজন আদর্শ সৈনিক হিসেবে সে খেলাধুলার পাশাপাশি সমাজসেবামুলক কর্মকাণ্ড ও চলতি করোনা মাহমারীতে বিশেষ ভুমিকা পালন করেছে বলে জানান উপজেলা আনসার ও ভিডিপি কার্যালয়ে কর্মরত হাবিলদার মো. সুবেদ আলী।

Print Friendly, PDF & Email
ঘটনাপ্রবাহ: আইসোলেশন, করোনাভাইরাস, পানছড়ি
Facebook Comment

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

13 + fifteen =

আরও পড়ুন