পার্বত্যনিউজে সংবাদ প্রকাশের পর ক্যাম্পে নেটওয়ার্ক নিয়ন্ত্রণে বিটিআরসির উচ্চ পর্যায়ের টিম

fec-image

উখিয়া-টেকনাফে রোহিঙ্গা ক্যাম্পে থ্রিজি-ফোরজি’র সার্বিক নিয়ন্ত্রণের জন্য বিটিআরসি (বাংলাদেশ টেলিকমিউনিকেশন রেগুলেরটি কমিশন) এর একটি উচ্চ পর্যায়ের টিম এখন উখিয়া-টেকনাফ কাজ শুরু করেছে। এতে বিটিআরসির উর্ধ্বতন কর্মকর্তা ছাড়াও টেকনিক্যাল পার্সন, রবি, গ্রামীণ, বাংলালিংক, টেলিটক অপারেটর কোম্পানির প্রতিনিধি, টেকনিক্যাল ও অভিজ্ঞ লোকজন রয়েছে বলে নিশ্চিত করেছে আমিন সার্ভিস পয়েন্টের মালিক ও গ্রামীনের কোম্পানি এজেন্ট মো. আমিন।

গত বৃহস্পতিবার পার্বত্য নিউজ ডটকমসহ বিভিন্ন গণমাধ্যমে ‘রোহিঙ্গা ক্যাম্পে থ্রিজি-ফোরজি সচল’ স্থানীয়রা থ্রিজি-ফোরজি নেটওয়ার্ক বিড়ম্বনার শিকার’ ধারাবাহিক রিপোর্ট প্রকাশিত হলে টনক নড়ে নেটওয়ার্ক কোম্পানি গুলোর।

এই রিপোর্টের ভিত্তিতে নেটওয়ার্ক কোম্পানি রবি আজিয়াটা লিমিটেডের হেড অফ কর্পোরেট এন্ড রেগুলেটরি অ্যাফেয়াস শাহেদ আলম পার্বত্যনিউজকে জানান, বিটিআরসি থেকে আমাদেরকে বলা হয়েছে উখিয়া-টেকনাফে থ্রিজি-ফোরজি বন্ধ রাখতে। সেখানে রোহিঙ্গা ক্যাম্প নির্দিষ্ট করে দেওয়া হয়নি। তাই পুরো উখিয়া-টেকনাফ থ্রিজি-ফোরজি বন্ধ রাখা হয়েছে। পরবর্তী নির্দেশনা না পাওয়া পর্যন্ত তা বলবৎ থাকবে।

স্থানীয়দের অভিযোগ, তারা দীর্ঘদিন ধরে দাবি করে আসছিল রোহিঙ্গা ক্যাম্পে নেটওয়ার্ক বন্ধ করার জন্য, কারণ রোহিঙ্গা ছোটখাট ঘটনা থ্রিজি-ফোরজি ব্যবহার করে বিশ্বের কাছে পৌঁছে দিচ্ছে। যা বাংলাদেশের ভাবমূর্তি নষ্ট হচ্ছে। কিন্তু নেটওয়ার্ক কোম্পানি গুলো রোহিঙ্গার ক্যাম্প এলাকা সহ পুরো উখিয়া-টেকনাফে থ্রিজি-ফোরজি বন্ধ রেখেছে। এতে নেটওয়ার্ক বিড়ম্বনার শিকার হচ্ছে স্থানীয়রা।

Print Friendly, PDF & Email
Facebook Comment

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

15 − 14 =

আরও পড়ুন