বৈসাবিনকে সামনে রেখে

পাহাড় ফের অস্থিরতা সৃষ্টির অপপ্রয়াস, অজানা শঙ্কায় মানুষ

fec-image

পাহাড় ফের অস্থির হয়ে উঠেছে। সাধারণ মানুষ অজানা শঙ্কায় ভুগছে। অস্ত্র ও গুলিসহ আটক ইউপিডিএফ প্রসীত গ্রুপের সন্ত্রাসী মিলন চাকমা ওরফে সৌরভ হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে মৃত্যুর জেরে খাগড়াছড়ির দীঘিনালায় বাসে আগুনসহ সহিংসতা ঘটানো হয়েছে। সাজেকের মিজোরাম সীমান্তে ৬১ লাখ টাকা ভারতীয় রুপি, বিপুল পরিমাণ ভারী আগ্নেয়াস্ত্র ও গোলাবারুদসহ পাঁচ ইউপিডিএফ প্রসীত সন্ত্রাসী আটক এবং খাগড়াছড়ি জেলার মহালছড়ি উপজেলার জয়সেন পাড়া এলাকায় পাহাড়িদের কয়েকটি ঘুরে আগুন দেওয়ার মিথ্যা অপপ্রচারের পাহাড়ে মানুষ আবারও আতঙ্কে দিন পার করছে।

পর্যবেক্ষক মনে করছে, এটা বৈসাবিন( বৈস্যু, সাংগ্রাই, বিজু, নববর্ষ) উৎসব বানচালের নতুন কৌশল। গতকাল মঙ্গলবার সকাল ৮টার দিকে খাগড়াছড়ি জেলার দীঘিনালার বাবুছড়ায় নিরাপত্তা বাহিনীর অভিযানে অস্ত্র, গুলি ও বিপুল সামরিক সরঞ্জামসহ ইউপিডিএফ প্রসীত গ্রুপের সামরিক কমান্ডার মিলন চাকমাকে আটকের পর অসুস্থ বোধ করলে তাকে দীঘিনালা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়। চিকিৎসাধীন অবস্থায় বেলা ১১টায় সেখানে তার মৃত্যু হয় বলে জানিয়েছেন দীঘিনালা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) পেয়ার আহম্মেদ। তার বিরুদ্ধে একাধিক হত্যা, চাঁদাবাজি ও অস্ত্র মামলার পলাতক ছিলেন। চিকিৎসকের মতে, মিলন চাকমা ওরফে সৌরভ হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে মারা গেছেন।

অথচ ইউপিডিএফ প্রসীত গ্রুপের সদস্যরা এ ঘটনাকে ভিন্ন খাতে প্রবাহিত করার জন্য উস্কানীমূলত তৎপরতা শুরু করে। গতকাল মঙ্গলবার বিকাল ৫টার দিকে দীঘিনালার বাবুছড়া বাজার এলাকায় শান্তি পরিবহনের একটি বাসে পেট্রোল ঢেলে আগুন ধরিয়ে দেয়। এ সময় বাসটি যাত্রী নিয়ে ঢাকার উদ্দেশ্যে রওনা দেওয়ার প্রস্তুতি নিচ্ছিল। একই সময় বাবুছড়া এলাকায় আরো দুটি ট্রলিতে অগ্নিসংয়োগ ও বেশ কয়েকজনকে মারধর করা হয়।

এর পর থেকে দীঘিনালা উপজেলার বিভিন্ন সড়কে আতঙ্কে যানবাহন চলাচল বন্ধ হয়ে যায়। ফলে গতকাল মঙ্গলবার সকাল থেকে দীঘিনালা সাথে রাঙামাটির লংগদু ও বাঘাইছড়ি সড়কে যান চলাচল বন্ধ রয়েছে। তবে সাজেকগামী পর্যটকবাহী পরিবহন গুলো আইনশৃঙ্খলা বাহিনী নিরাপত্তা দিয়ে পারাপার করা হচ্ছে।

খাগড়াছড়ি সড়ক পরিবহন মালিক গ্রুপের সাংগঠনিক সম্পাদক রুকন উদ্দিন জানান, দুর্বৃত্তরা মঙ্গলবার বিকেলে দীঘিনালায় একটি বাস ও দুটি ট্রলিতে আগুন দিয়েছে। শ্রমিক ও পরিবহনের নিরাপত্তা হুমকি থাকায় দূরপাল্লার বাস ছাড়া বন্ধ রাখা হয়েছে। এছাড়া অজ্ঞাত ব্যক্তি ফোন করে যানবাহন না চালানোর জন্য হুমকি দেওয়া হয়েছে। ফলে ভয়ে কেউই দীঘিনালায় গাড়ী চালাতে সাহজ পাচ্ছে না। এতে করে খাগড়াছড়ি জেলার সাথে রাঙামাটির লংগদু, বাঘাইছড়ি, সাজেক ও বাবুছড়া সড়কে গাড়ী চলাচল বন্ধ রেখেছে।

এদিকে গত ১৪ মার্চ রাঙামাটির বাঘাইছড়ি সাজেক ও ভারত সীমান্তের কমলা নগরের ছোট পানছড়ি এলাকায় ৬১ লাখ ভারতীয় রুপি, ৩টি অত্যাধুনিক আগ্নেয়াস্ত্র ও বিপুল পরিমাণ গোলাবারুদসহ বকুল কসুম চাকমা ও তার চার সহযোগি আটক হয়েছে। আটককৃতরা প্রাথমিকভাবে ইউপিডিএফ প্রসীত গ্রুপের সদস্য বলে জানা গেছে।

অপরদিকে গতকাল মঙ্গলবার বিকালে বান্দরবানে সন্ত্রাসীদের গুলিতে ইউপিডিএফ গণতান্ত্রিকের সক্রিয় সদস্য জলন্ত চাকমাকে (৪০)গুলি করে হত্যা। বান্দরবান জেলা সদরের টংকাবর্তীর ৭ নং ওয়ার্ডের চাকমা পুনর্বাসন এলাকায় এ হত্যাকাণ্ড ঘটে। এ দিকে মঙ্গলবার থেকে খাগড়াছড়ি জেলার মহালছড়ি উপজেলায় পাহাড়িদের বাড়ী- ঘরে আগুন দিয়েছে মর্মে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে অপপ্রচার চালাচ্ছে একটি চিহিৃত গোষ্ঠী।

অনুসন্ধানে দেখা গেছে, এমন অপপ্রচার চালিয়ে যে সব ছবি পোষ্ট করা হচ্ছে তা সঠিক নয়। কপি পেষ্ট করা ছবি পোষ্ট করে বলা হচ্ছে মহালছড়ির জয়সেন পাড়া। এদিকে হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে এক শীর্ষ সন্ত্রাসীর মৃত্যুর ঘটনাকে পুজি করে আগামী ২০ মার্চ রবিবার খাগড়াছড়িতে সকাল ৬ টা থেকে দুপুর ১২টা পর্যন্ত আধাবেলা সড়ক অবরোধ ডেকেছে ইউপিডিএফ প্রসীত গ্রুপ।

ইউনাইটেড পিপলস ডেমোক্রেটিক ফ্রন্ট প্রসীত গ্রুপের প্রচার ও প্রকাশনা বিভাগে দায়িত্ব নিরন চাকমা বুধবার বিকালে সাংবাদ মাধ্যমে প্রেরিত এ প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে এ অবরোধ আহ্বান করেন।

পর্যবেক্ষক মহলের মতে, প্রতিবছর বৈসাবিন ( বৈস্যু, সাংগ্রাই, বিজু, নববর্ষ) উৎসব সমাগত হলে একটি চিহিৃত মহল নানা আপতৎপরতায় মেতে উঠে। উদ্দেশ্য দেশি-বিদেশী ষড়যন্ত্রকারী মহলের দৃষ্টি আকর্ষণ। এখন যা শুরু হয়েছে ঐ ষড়যন্ত্রেরই অংশ।

পাহাড়ে নিরাপত্তার দায়িত্বে নিয়োজিত এক কর্মকর্তা নাম প্রকাশ না করার শর্তে বলেন, পাহাড়ের মানুষের নিরাপতায় আমরা কাজ করছি। যে কোন মূল্যে মানুষের শান্তি বিঘ্ন হয় মহল বিশেষের এহেন যেকোন অপতৎপরতা প্রতিরোধ করা হবে।

Print Friendly, PDF & Email
ঘটনাপ্রবাহ: অপপ্রচার, ইউপিডিএফ, জেএসএস
Facebook Comment

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

three × 3 =

আরও পড়ুন