পাহাড় ধ্বস মোকাবিলায় রাঙামাটিতে সতর্কতামূলক প্রচারণা

fec-image

রাঙামাটিতে পাহাড় ধ্বস মোকাবিলায় এবং প্রাণহানীর সংখ্যা এড়াতে ঝুঁকিপূর্ণ এলাকাগুলোতে প্রচারণা চালাচ্ছে জেলা প্রশাসন।

বৃহস্পতিবার (৪ জুন) বিকেল থেকে কর্মসূচির অংশ হিসেবে ওইসব এলাকায় সচেতনতামূলক সাইনবোর্ড স্থাপন এবং প্রচারণামূলক লিফলেট বিতরণ করা হচ্ছে।

রাঙামাটিতে গত ৫দিন ধরে টানা বৃষ্টির কারণে পাহাড়ের পাদদেশে বসবাস করা মানুষেরা চরম ঝুঁকির মধ্যে জীবন পার করছে। আর এসব মানুষদের ঝুঁকিমুক্ত রাখতে জেলা প্রশাসন দ্রুত গতিতে মাঠে নামে এবং ঝুঁকিপূর্ণ স্থান থেকে সরে আসতে তাদের পরাপর্শ প্রদান করেন এবং ভূমি ধ্বস মোকাবিলায় তাদের মাঝে সচেতনতা বৃদ্ধি করেন।

এদিকে জেলা প্রশাসন সূত্রে জানা গেছে, রাঙামাটির পাহাড়ি এলাকার ২৫টি স্থানকে ঝুঁকিপূর্ণ এলাকা হিসেবে শনাক্ত করা হয়েছে। এরমধ্যে- জেলা শহরের রূপনগর, মুনতলা, শিমুলতলী, নতুন পাড়া এবং যুব উন্নয়ন এলাকা উল্লেখযোগ্য।

আর এইসব ঝুর্কিপূর্ণ এলাকায় ভূমি ধ্বস রোধে এবং প্রাণহানীর সংখ্যা এড়াতে অগ্রিম প্রস্তুতি হিসেবে জেলা প্রশাসন ওইসব এলাকায় বসবাসকারী সাধারণ মানুষের মাঝে সতর্কতামূলক লিপলেট বিতরণ করছে এবং এলাকায় সচেতনতামূলক সাইনবোর্ড স্থাপন করে দেওয়া হচ্ছে।

সূত্রটি আরও বলছে, বর্তমানে ঝুঁকিপূর্ণ এলাকাগুলোতে প্রায় পাঁচ হাজার মানুষ বসবাস করছে

সূত্রটি জানায়, বৃহস্পতিবার বিকেলে জেলা প্রশাসক (ডিসি) একেএম মামুনুর রশীদ জেলা শহরের রূপনগর, মুনতলা, শিমুলতলী, নতুন পাড়া এবং যুব উন্নয়ন এলাকায় গিয়ে ঝুঁকি নিয়ে বসবাস করা মানুষদের স্ব- এলাকা থেকে সরে গিয়ে আশ্রয় কেন্দ্রে গিয়ে আশ্রয় নিতে অনুরোধ করেন এবং তাদেরকে সতর্ক করেন।

জেলা প্রশাসক (ডিসি) একেএম মামুনুর রশীদ বলেন, রাঙামাটিতে গত কয়েকদিন ধরে টানা বৃষ্টি হচ্ছে। যে কারণে পাহাড়ের পাদদেশে বসবাস করা মানুষদের জন্য ঝুঁকির পরিমাণটা বেড়ে যাচ্ছে। তাই জেলা প্রশাসন তড়িৎ গতিতে এইসব মানুষদের দ্রুত সময়ের মধ্যে আশ্রয় কেন্দ্রে আশ্রয় নিতে অনুরোধ জানাচ্ছে।

এসময় রাঙামাটি জেলা প্রশাসনের ম্যাজিস্ট্রেট পল্লব হোম দাশ, ৬নং ওয়ার্ড কমিশনার রবি মোহন চাকমাসহ প্রশাসনের অন্যান্য কর্মকতারা সচেতনতামূলক কর্মসূচিতে অংশ গ্রহণ করেন।

২০১৭সালের ১৩জুন প্রবল বর্ষণের কারণে পাহাড় ধ্বসে সরকারি হিসেবে মতে ১২০জন তথা বেসরকারি হিসেবে আরও বেশি মানুষ মারা যায় এবং এ ঘটনায় আহতের সংখ্যা প্রায় তিনশতাধিক।

Print Friendly, PDF & Email
Facebook Comment

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

1 × two =

আরও পড়ুন