পেকুয়ায়‌ ‌মুক্তিযোদ্ধার‌ বাগান‌ ‌থেকে‌ ‌বাঁশ‌ ও‌ ‌গাছ‌ ‌কর্তন

fec-image

পেকুয়ায়‌ ‌টইটং‌ ইউপির‌ ‌সাবেক‌ ‌চেয়ারম্যান‌ ও‌ ‌মুক্তিযোদ্ধা‌ ‌রমিজ‌ উদ্দিন‌ আহমদের‌ ‌বাগান‌ ‌থেকে‌ ‌বাঁশ‌ ‌ ও‌ ‌গাছ‌ ‌লুট‌ ‌করেছে‌ ‌দুবৃর্ত্তরা।‌ ‌ভীতি‌ ও‌ আতঙ্ক‌ ‌ছড়িয়ে‌ ‌ ১০/১২‌ ‌জনের‌ ‌স্বশস্ত্র‌ ‌সন্ত্রাসীরা‌ ওই‌ ‌মুক্তিযোদ্ধার‌ ‌ বাগানে‌ ‌হানা‌ ‌দেয়।‌ এ‌ ‌সময়‌ ‌বাগান‌ ‌থেকে‌ ‌প্রায়‌ ‌২‌‌ লক্ষাধিক‌ ‌টাকার‌ ‌শিব‌ ‌বাঁশ‌ ও‌ ‌গর্জনসহ‌ ‌বিভিন্ন‌ ‌প্রজাতির‌ ‌বনজ‌ ‌গাছ‌ ‌লুট‌ ‌করে।‌ ‌

১‌ ‌মে‌ (‌শুক্রবার)‌ ‌পাচারকৃত‌ ‌ গাছের‌ ‌স্তুপ‌ ‌রাজাখালী‌ ইউনিয়নের‌ আরবশাহ‌ ‌বাজারের‌ ‌ স’মিলে‌ ‌জব্দ‌ ‌করা‌ ‌হয়েছে।‌ উপজেলার‌ ‌টইটং‌ ইউনিয়নের‌‌ পূর্ব‌ ‌সোনাইছড়ি‌ ‌রমিজপাড়া‌ ‌গ্রামে‌ ‌গাছ‌ ‌লুটের‌ ‌ এ‌ ‌ঘটনা‌ ‌ঘটেছে।‌ ‌

প্রাপ্ত‌ ‌সূত্র‌ ‌জানায়,‌ ‌২২‌ এপ্রিল‌ একদল‌ স্বশস্ত্র‌ ‌সন্ত্রাসী‌ ‌সোনাইছড়ি‌ ‌রমিজপাড়ায়‌‌ মুক্তিযোদ্ধা‌ ‌রমিজ‌ উদ্দিন‌ আহমদের‌ ‌নিজস্ব‌ ‌বাগান‌‌ থেকে‌ ‌বিপুল‌ ‌পরিমাণ‌ ‌শিব‌ ‌বাঁশ‌ ও‌ ‌গাছ‌ ‌কেটে‌ ‌সাবাড়‌ ‌ করা‌ ‌হয়েছে।‌ ‌২২‌ এপ্রিল‌ ‌থেকে‌ ‌২৯‌ এপ্রিল‌ ‌পর্যন্ত‌ ওই‌ ‌চক্র‌ চেয়ারম্যানের‌ ‌বসতভিটা‌ ‌থেকে‌ ‌গাছ‌ গুলো‌ ‌লুট‌ ‌করে।‌ ‌

স্থানীয়রা‌ ‌জানান,‌ ওই‌ এলাকার‌ ‌মৃত‌ ‌নুরুল‌ ‌হকের‌ ‌পুত্র‌ আহমদ‌ ‌ছফা‌ ও‌ ‌তার‌ ‌পুত্র‌ ‌মিনার‌ উদ্দিন‌ ‌বুলেট,‌ ‌লাতু‌ ‌মিয়া,‌ ‌ লাতু‌ ‌মিয়ার‌ ‌ছেলে‌ ‌রাসেল,‌ ‌তারেক,‌ আবদুল‌ ‌করিমের‌ ‌ছেলে‌ ‌ তোফাইল,‌ ‌গুরামিয়া,‌ ‌বাচ্চু,‌ ‌নুরুল‌ আলমের‌ ‌ছেলে‌ ‌ শাহজাহান,‌ ‌তার‌ ‌ভাই‌ ‌প্রকাশ‌ ‌পুতু,‌ ‌শাকেরের‌ ‌ছেলে‌ ‌ আতিক,‌ ‌রাজা‌ ‌মিয়ার‌ ‌ছেলে‌ ‌হোছাইনসহ‌ অস্ত্রধারী‌ ‌ দুবৃর্ত্তরা‌ ‌মুক্তিযোদ্ধা‌ ও‌ ‌টইটং‌ ইউপির‌ ‌সাবেক‌ ‌ চেয়ারম্যান‌ ‌রমিজ‌ উদ্দিন‌ আহমদের‌ ‌বাগানে‌ ‌হানা‌ ‌দেয়।‌ ‌

এ‌ ‌সময়‌ ‌প্রায়‌ ‌৪শ‌ ‌পিচ‌ ‌শিব‌ ‌বাঁশ,‌ ‌৪‌ ‌টি‌ ‌গর্জন‌ ‌গাছ,‌ ‌ জাম,‌ অষ্ট্রেলিয়া,‌ ‌বাটনা‌ ‌গাছ,‌ আচার‌ ‌গাছ,‌ ‌ ম্যালেরিয়াসহ‌ ‌বিভিন্ন‌ ‌প্রজাতির‌ ‌বনজ‌ ‌গাছ‌ ‌কেটে‌ ‌সাবাড়‌ ‌করে।‌ ‌রাতে‌ ও‌ ‌দিনে‌ ‌প্রকাশ্যে‌ অস্ত্রের‌ ‌ভয়‌ ‌দেখিয়ে‌ ‌ তারা‌ এ‌ ‌মুক্তিযোদ্ধার‌ ‌বাগান‌ ‌থেকে‌ ‌পেশি‌ ‌শক্তির‌ ‌বলয়‌ ‌ তৈরি ‌করে‌ ‌গাছ‌ ‌গুলি‌ ‌লুট‌ ‌করে‌ ‌নিয়ে‌ ‌যায়।‌ এ‌ ‌সব‌ ‌গাছ‌ ‌ ভ্যানগাড়ি‌ ও‌ ‌পিকআপ,‌ ‌ট্রলি‌ ‌গাড়ি ‌করে‌ ‌পাচার‌ ‌করে।‌ এর‌ ‌ মধ্যে‌ ‌৪‌‌টি‌ ‌গর্জন‌ ‌গাছ‌ ‌রমিজ‌ ‌চেয়ারম্যানের‌ এক‌ ‌ প্রতিবেশী‌ ‌রাজা‌ ‌মিয়ার‌ ‌পুকুর‌ ‌থেকে‌ ‌তুলে‌ আরবশাহ‌ ‌ বাজার‌ আবুল‌ ‌বশরের‌ ‌স’মিলে‌ ‌চিরাই‌ ‌করতে‌ ‌নিয়ে‌ ‌যায়।‌ ‌

১‌ ‌মে‌ ‌(শুক্রবার)‌ ‌খবর‌ ‌পেয়ে‌ ওই‌ ‌স’মিলে‌ ‌স্তুপকৃত‌ অবস্থায়‌‌ গাছ‌ ‌গুলি‌ ‌জব্দ‌ ‌করা‌ ‌হয়েছে।‌ এ‌ ‌ছাড়া‌ ‌৪শ‌ ‌পিচ‌ ‌শিব‌  বাঁশও‌ ওই‌ ‌চক্র‌ ‌চেয়ারম্যানের‌ ‌বাগান‌ ‌থেকে‌ ‌লুট‌ ‌করে।‌ ‌ আহমদ‌ ‌নবীসহ‌ ‌৩‌ ‌ব্যক্তি‌ ‌বাঁশগুলি‌ ‌মিনার‌ উদ্দিন‌‌ বুলেটসহ‌ ‌সন্ত্রাসী‌ ‌চক্রের‌ ‌কাছ‌ ‌থেকে‌ ‌কিনে‌ ‌নেয়।‌ ‌

সাবেক‌ ‌চেয়ারম্যান‌ ‌মুক্তিযোদ্ধা‌ ‌রমিজ‌ উদ্দিন‌ আহমদ‌ ‌ জানান,‌ ‌১৯৯০‌ ‌সালের‌ ‌দিকে‌ আমার‌ ‌বসতবাড়ি‌ ‌সংলগ্ন‌ ‌ ভিটায়‌ ‌বনজ,‌ ‌ফলদসহ‌ ‌বিভিন্ন‌ ‌প্রজাতির‌ ‌বৃক্ষের‌‌ বাগান‌ ‌সৃজন‌ ‌করি।‌ ‌বর্তমানে‌ ‌গাছগুলি‌ ‌পরিপক্ক‌ হয়েছে।‌ আহমদ‌ ‌ছফা,‌ ‌লাতু‌ ‌মিয়া,‌ ‌মিনার‌ উদ্দিন‌‌ বুলেটসহ‌ উল্লেখিত‌ ‌সন্ত্রাসীরা‌ অস্ত্রের‌ ‌ভয়‌ ‌দেখিয়ে‌ আমার‌ ‌বাগান‌ ‌থেকে‌ ‌বিপুল‌ ‌পরিমাণ‌ ‌গাছ‌ ও‌ ‌বাঁশ‌ ‌লুট‌ ‌ করে।‌ আমি‌ ‌প্যানেল‌ ‌চেয়ারম্যান‌ ‌শাহাব‌ উদ্দিনকে‌ ‌বিষয়টি‌ অবহিত‌ ‌করেছি।‌ ‌পেকুয়া‌ ‌থানার‌ ওসি‌‌কেও‌ ‌বিষয়টি‌ ‌জানিয়েছি।‌ ‌তারা‌ ‌ভয়ংকর‌‌ সন্ত্রাসী।‌ আহমদ‌ ‌ছফার‌ ‌বিরুদ্ধে‌ ‌হত্যা,‌ ‌ডাকাতি,‌ ‌ধর্ষণসহ‌ ‌বহু‌ ‌মামলা‌ ‌রয়েছে।‌ ‌লাতু‌ ‌মিয়ার‌ ‌বিরুদ্ধেও‌‌ ফৌজধারী‌ ‌ধারায়‌ ‌বহু‌ ‌মামলা‌ ‌রয়েছে।‌ এরা‌ ‌জেল‌ ‌ফেরত‌ ‌ আসামি।‌ ‌বহু‌ ‌মামলায়‌ ‌গ্রেফতারী‌ ‌পরোয়ানা‌ ‌রয়েছে।‌ ‌ অস্ত্র‌ ও‌ ‌পেশী‌ ‌শক্তির‌ ‌ভয়‌ ‌দেখিয়ে‌ আমি‌ ও‌ আমার‌ ‌পরিবারকে‌ ‌ জিম্মী‌ ‌করে‌ ‌গাছ‌ ‌গুলি‌ ‌পাচার‌ ‌করছে।‌ ‌

বাঁশ‌ ‌ক্রেতা‌ আহমদ‌ ‌নবী‌ ‌জানান,‌ আমি‌ ‌পেঁপে‌ ‌বাগানের‌ ‌জন্য‌ ‌৭০‌‌টি‌ ‌বাঁশ‌‌ বুলেটের‌ ‌কাছ‌ ‌থেকে‌ ‌কিনেছি।‌ ‌তারা‌ ‌বলেছে‌ ‌বাঁশগুলি‌ ‌ ওদের‌ ‌বাগানের।‌ ‌

টইটং ইউপির প্যানেল‌ ‌চেয়ারম্যান‌ ‌হাজী‌ ‌শাহাব‌ উদ্দিন‌ ‌ জানান,‌ ‌সাবেক‌ ‌চেয়ারম্যান‌ ‌রমিজ‌ উদ্দিন‌ আহমদ‌ ‌ একজন‌ ‌সম্মানী‌ ‌মানুষ।‌ ‌বিষয়টি‌ আমাকেও‌ ‌বলেছেন।‌ ‌আমি‌ ‌তাদেরকে‌ আসতে‌ ‌বলেছি।‌ ‌ ‌

Print Friendly, PDF & Email
Facebook Comment

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

nineteen − 18 =

আরও পড়ুন