পেকুয়ায় নৌ-পুলিশের উপর হামলার ঘটনায় মামলা, তদন্তে বিভাগীয় কমিটি

fec-image

কক্সবাজারের পেকুয়ার উজানটিয়ায় নৌ-পুলিশের টহলরত তিন সদস্যর উপর পোনা আহরণকারীদের হামলার ঘটনায় থানায় মামলা রেকর্ড করা হয়েছে। এ মামলা তদন্ত করার জন্য নৌ-পুলিশের চট্টগ্রাম রেঞ্জের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মোহাম্মদ বেলায়েত হোসেনকে প্রধান করে তিন সদস্য বিশিষ্ট বিভাগীয় তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছে।

৩ জুলাই বেলা ১২ টার দিকে ঘটনাস্থলে তদন্তে আসেন তদন্ত কমিটির প্রধান নৌ-পুলিশের চট্টগ্রাম রেঞ্জের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মোহাম্মদ বেলায়েত হোসেন। এ সময় সাথে ছিলেন পেকুয়া থানার ওসি (তদন্ত) কানন সরকার, উজানটিয়া ইউপি চেয়ারম্যান তোফাজ্জল করিম, মহেশখালী নৌ-পুলিশ ফাঁড়ির আইসি বিকাশ চন্দ, পেকুয়া থানার এএসআই শাহ আলম, উজানটিয়া ইউপির সদস্য সাইফুল ইসলাম, শরিয়ত উল্লাহ, জামাল উদ্দিনসহ স্থানীয়রা।

এ সময় তদন্ত কমিটির প্রধান নৌ-পুলিশের চট্টগ্রাম রেঞ্জের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মোহাম্মদ বেলায়েত হোসেন স্থানীয় লোকজনদের সাথে কথা বলে ঘটনার স্বাক্ষ্য গ্রহণ করেন। মামলায় নীরহ ব্যক্তিদেরকে বাদ দেওয়ার জন্য দাবি তুললে দাবিরমুখে তদন্ত কর্মকর্তা নির্দোষ ব্যক্তিদেরকে মামলা থেকে বাদ দিবেন বলে আশস্ত করেন।

উল্লেখ যে, ১ জুলাই (শুক্রবার) বেলা ১২ টার দিকে উপজেলার উজানটিয়া ইউনিয়নের পেরাসিঙ্গা পাড়া এলাকায় এসআই অচিন্ত কুমার দের নেতৃত্বে মহেশখালী উপজেলার মাতারবাড়ী নৌ-পুলিশ ফাঁড়ির একটি টিম মাতামুহুরি নদীর উজানটিয়া নদীতে চলমান মৎস্য সপ্তাহের বিধিনিষেধ ৬৫ দিনের নিষেধাজ্ঞায় টহল দেয়। এ সময় পেরাসিঙ্গা পাড়ার ছৈয়দ আহমেদের ছেলে মাহামদ আলম, মাহামদ আলমের ছেলে আনসারসহ কয়েকজন রেনু পোনা আহরণকারী সাগর থেকে রেণু পোনা আহরণ করে বেড়িবাঁধের উপর রেণু পোনা ছানি করে গণনা করার সময় তাদেরকে আটক করতে চায় মাতারবাড়ী নৌ-পুলিশ ফাঁড়ির এসআই অচিন্ত কুমার দের নেতৃত্বে সঙ্গী ফোর্স। এ সময় রেণু পোনা ধরার জাল ও বাশঁ জব্দ করে নিয়ে যেতে চাইলে পোনা আহরণকারীদের সাথে নৌ-পুলিশের মধ্যে হাতাহাতি হয়। হাতাহাতির এক পর্যায়ে এসআই অচিন্ত কুমার দে (৫৩), পুলিশ সদস্য সাজ্জাদ হোসেন (৩৭), রাসেল (২৯) আহত হয়। পেকুয়া থানা পুলিশ আহতদেরকে উদ্ধার করে পেকুয়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করে।

এদিকে এ ঘটনায় এসআই অচিন্ত কুমার দে বাদী হয়ে উজানটিয়ার পেরাসিঙ্গা পাড়ার ছৈয়দ আহমেদের ছেলে মাহামদ আলমকে প্রধান আসামি করে ৭ জনের নাম উল্লেখ করে আরো ৭/৮ জনকে অজ্ঞাত দেখিয়ে পেকুয়া থানায় মামলা দায়ের করে। এদিকে তদন্ত কর্মকর্তাকে স্থানীয়রা জানিয়েছেন ওই দিন এসআই অচিন্ত কুমার দেসহ সঙ্গী ফোর্স ওই পোনা আহরণকারীদের কাছ থেকে ১৫ হাজার টাকা দাবি করেন। কিন্তু পোনা আহরণকারীরা কোন মতে ৫ হাজার টাকা ম্যানেজ করে দিলেও ওই কর্মকর্তা তা মেনে না নিয়ে তাদের সাথে কথা-কাটাকাটি করে এ পর্যায়ে এ ঘটনা ঘটে। কিছুদিন আগেও নৌপুলিশ এখানে কুতুবদিয়ার আবছারসহ কয়েকজনকে আটক করে ৫৪ হাজার টাকা নিয়ে তাদের কে ছেড়ে দেয়।

এ বিষয়ে মামলার তদন্ত কর্মকর্তা ও নৌ-পুলিশের চট্টগ্রাম রেঞ্জের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মোহাম্মদ বেলায়েত হোসেন বলেন, কোন নিরাপরাধ ব্যক্তিকে কোনভাবেই মামলায় আসামি করে হয়রানি করা হবে না। এ মামলায় যদি কোন নিরাপরাধ ব্যক্তি আসামি হয়ে থাকে তাহলে তদন্ত সাপেক্ষে মামলা থেকে বাদ দেওয়া হবে।

Print Friendly, PDF & Email
Facebook Comment

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

ten + 8 =

আরও পড়ুন