পেকুয়ায় পৃথক সংঘর্ষে মহিলাসহ আহত ৭

Pic----1120131125110201

নিজস্ব প্রতিনিধি, পেকুয়া :

পেকুয়ায় পৃথক সংঘর্ষে মহিলাসহ ৭ জন গুরুতর আহত হয়েছে। আহতদেরকে উদ্ধার করে পেকুয়া সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। শনিবার সকাল সাড়ে ৮ টায় টইটংয়ের নাপিতখালী ও সকাল ১০টায় উপজেলা সদর ইউনিয়নের ভোলাইয়া ঘোনা গ্রামে পৃথক সংঘর্ষের এ হতাহতের ঘটনা ঘটেছে।

প্রত্যক্ষদর্শী সূত্রে জানা গেছে, জমির বিরোধ নিয়ে টইটংয়ে প্রতিপক্ষের লোকজনের এলোপাতাড়ি ধারালো অস্ত্রের আঘাতে মহিলাসহ ৬জন গুরুতর আহত হয়েছে। পশ্চিম নাপিতখালী এলাকায় ২শতক জমির বিরোধ নিয়ে স্থানীয় আব্দুর রশিদ গংদের সাথে ছৈয়দ আহমদ গংদের মধ্যে বিরোধ চলছিল। শনিবার সকালে বিরোধীয় ওই জমিতে আব্দুর রশিদ গং মাটি কাটছিল। এ সময় ছৈয়দ আহমদ গংদের পক্ষে স্থানীয় ইউপি সদস্য শাহদত মেম্বারের নেতৃত্বে ছৈয়দ আহমদ, রশিদ আহমদ, সিরাজ, ছিদ্দীক আহমদ, জাবেদ,জাকের হোছাইন, সোলতানসহ আরো ১০/১৫জন ধারালো অস্ত্রশস্ত্র নিয়ে প্রতিপক্ষের লোকজনের উপর হামলা চালায়।

এতে আব্দুর রশিদ(৭৫), মোক্তার আহমদ(৪৫), কহিনুর(২০), শামসুন্নাহার(৪০), ৪র্থ শ্রেনীর ছাত্র শাহজাহান(১২) ও রফিক আহমদ(২৭) আহত হয়েছে। আহতদের সবার মাথা, হাতসহ শরীরের বিভিন্ন অংশে অসংখ্য জখম রয়েছে বলে হাসপাতাল সুত্রে জানা গেছে।

অপরদিকে, ভোলাইয়া ঘোনা এলাকায় বারবাকিয়ার জনৈক হান্নানের খরিদকৃত ২৭ শতক জায়গায় সীমানা প্রাচীর নির্মাণ কাজ চলছিল। গত কয়েকদিন ধরে জমির মালিক হান্নানের কাছ থেকে চাঁদা দাবী করে আসছিল ভোলাইয়া ঘোনা এলাকার আব্দুর রশিদের পুত্র যুবদল ক্যাডার মোঃ আশরাফ। তিনি একাধিক মামলার সদ্য জেল ফেরত আসামী। কিন্তু তার দাবিকৃত চাঁদা দিতে অপারগতা প্রকাশ করলে নির্মাণ কাজে বাধা প্রদান করে আশরাফসহ আরো কিছু যুবক। এরপর আশরাফের নেতৃত্বে কয়েকজন মিলে নির্মাণ শ্রমিক জয়নাল আবেদীনকে কিরিচ দিয়ে কুপিয়ে আহত করে। পরে স্থানীয়রা উদ্ধার করে তাকে পেকুয়া হাসপাতালে ভর্তি করে।

Print Friendly, PDF & Email
Facebook Comment

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

19 + 4 =

আরও পড়ুন