প্রশাসনিক তৎপরতায় পানছড়ির সর্বত্রই নীরবতা

fec-image

সকল সম্প্রদায়ের মিলনমেলা ছিল পানছড়ি বাজার। পানছড়ি ব্যাটারি চালিত টমটম স্টেশন ছিল রাত ১১টা পর্যন্ত সরগরম। ক্রেতার আনা-গোনায় রাত ১০টা পর্যন্ত মুখরিত থাকতো পানছড়ি বাজারের বিভিন্ন অলি-গলি।

কিন্তু সকল সম্প্রদায়ের জনকোলাহলে ভরা চিরচেনা সেই দৃশ্যপট আর নেই। নোবেল করোনা (কোভিড-১৯) ভাইরাস নিয়ন্ত্রণ ও প্রতিরোধে সবাই এখন সচেতন। প্রশাসনের বেঁধে দেয়া নিয়ম মানা হচ্ছে উপজেলার সর্বত্রই।

বুধবার(২৫ মার্চ) থেকে জারি করা হয়েছে কড়া সতর্কতা। তারই ধারাবাহিকতায় মুদি, ঔষধ, শাকসবজি, মাছ-মাংস ও জ্বালানী তেলের দোকান ছাড়া অন্যসব দোকান বন্ধ রয়েছে। ট্রাক, এ্যাম্বুলেন্স, ঔষধ, খাদ্যপন্য ও সংবাদপত্রবাহী গাড়ী ব্যতীত অন্যসব যানবাহনও চলছে না।

পানছড়ি-খাগড়াছড়ি ও তবলছড়ি সড়কের দিকে তাকালে মনে হয় যেন কোন অঘোষিত হরতাল চলছে। সকাল থেকেই পানছড়ি সাব জোনের সেনাবাহিনীর একটি দল উপজেলার বিভিন্ন এলাকায় চালিয়ে যাচ্ছে জনসচেতনতামুলক প্রচারণা। পানছড়ির সর্বস্তরের জনগনের সচেতনতায় সন্তুষ্টি প্রকাশ করেছেন উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোহাম্মদ তৌহিদুল ইসলাম ও ওসি মো: দুলাল হোসেন।

দু’একজন মাস্ক পরিহিত না থাকলেও তাদের বুঝিয়ে মাস্ক ব্যবহার নিশ্চিত করাচ্ছেন ওসি দুলাল হোসেন। বিভিন্ন দোকানের সামনে পানি, সাবান ও মগ নিশ্চিত করতে পুরো এলাকা ঘুরে বেড়াচ্ছেন ইউএনও আর ওসি।

তারা বলেন, প্রশাসন সদা সতর্ক অবস্থায় রয়েছে। আইন অমান্যকারীদের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা নেয়া হবে।

Print Friendly, PDF & Email
ঘটনাপ্রবাহ: পানছড়ি, মাস্ক
Facebook Comment

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

sixteen + 4 =

আরও পড়ুন