ফাইতংয়ে জেলা প্রশাসনের অভিযান: ৬ ইটভাটায় ১৮ লাখ টাকা জরিমানা

fec-image

বান্দরবানের জেলা প্রশাসকের নির্দেশে লামার ফাইতং এর ইটভাটায় যৌথ অভিযান পরিচালনা করেছেন জেলা প্রশাসন। অতিরিক্ত জেলা প্রশাসকের নেতৃত্বে ৩জন নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট র‌্যাব, পুলিশ ও ফায়ার সার্ভিসের সহযোগিতায় ৬টি ইটভাটায় অভিযান চালিয়ে ১৮ লাখ টাকা জরিমানা করেছেন।

বুধবার (৫ ফেব্রুয়ারি) এ অভিযান পরিচালনা করা হয়।

জানা যায়, ফাইতং ইউনিয়নে পরিবেশ ছাড়পত্র ছাড়াই পাহাড়কেটে, লাকড়ি পুড়িয়ে এবং ছড়াখালের পানি দুষিত করে ইটভাটা চলছে। এমন অভিযোগের ভিত্তিতে অবৈধ ইটভাটা উচ্ছেদে নির্দেশ দেন বান্দরবানের জেলা প্রশাসক দাউদুল ইসলাম।

জেলা প্রশাসকের নির্দেশনার আলোকে বুধবার সকালে অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট বদিউল আলমের নেতৃত্বে র‌্যাব ১৫, পুলিশ ও ফায়ার সার্ভিসের সহযোগিতায় ফাইতং ইউনিয়নের ইটভাটা গুলোতে অভিযান পরিচালনা করা হয়।

অভিযানে উপস্থিত ছিলেন নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট জাকির হোসেন, নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট  মো. কায়েসুর রহমান, নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মো. নাজমুল হাসান, পরিবেশ অধিদপ্তরের সিনিয়র কেমিস্ট একেএম ছামিউল আলম কোরেসি, পরিবেশ অধিদপ্তর বান্দরবানের পরিদর্শক আব্দুস সালাম, কক্সবাজার র‌্যাব ১৫ এর অতিরিক্ত সুপার বিমান চন্দ্র কর্মকার, ফাইতং ফাঁড়ি পুলিশের ইনচার্জ নজরুল ইসলাম ও বান্দরবান ফায়ার সার্ভিস কর্মকর্তা-কর্মচারী।

অভিযানে ফাইভ বিএম ইটভাটাকে ২ লাখ ৫০ হাজার, এমএমবি ইটভাটাকে ২ লাখ ৫০ হাজার টাকা, এমএসবি ইটভাটাকে ৩ লাখ টাকা, এসবিডাব্লিউ ইটভাটাকে ৩ লাখ টাকা, এফএসি ইটভাটাকে ৪ লাখ টাকা ও কেবিি ইটভাটাকে ৩ লাখ টাকাসহ মোট ৬টি ইটভাটাকে ১৮ লক্ষ টাকা জরিমানা করেন প্রশাসন।

অভিযান শেষে ঘটনাস্থলে সাংবাদিকদের প্রেসব্রিফিং করেন বান্দরবানের জেলা নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট জাকির হোসেন।

তিনি বলেন, ফাইতং ইউনিয়নের বনাঞ্চলে পরিবেশ ও বন মন্ত্রণালয়ের অনুমতি না নিয়ে পাহাড়কেটে, লাকড়ি জ্বেলে এবং ছড়াখালের পানি দুষিত করে ইট ভাটা গুলো চলে আসছে। এমন অভিযোগের ভিত্তিতে অবৈধ ইটভাটা উচ্ছেদের জন্য নির্দেশ দেন বান্দরবানের জেলা প্রশাসক ও জেলা ম্যাজিস্ট্রেট।

তাঁর নির্দেশে বুধবার অভিযান চালিয়ে ফাইতংয়ের ৬ইটভাটাকে ১৮ লাখ টাকা জরিমানা করা হয়েছে। পাশাপাশি একাধিক ইটভাটার চুল্লি পানি দিয়ে ধ্বংস করা হয়েছে।

Print Friendly, PDF & Email
ঘটনাপ্রবাহ: ইটভাটা, বান্দরবান, ম্যাজিস্ট্রেট
Facebook Comment

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

17 − 4 =

আরও পড়ুন