ফার্নিচারের গাড়িতে করে খাগড়াছড়িতে ঢোকার চেষ্টা রুখে দিলো গুইমারা সেনা সাব জোন

fec-image

করোনা ভাইরাস সংক্রমণ প্রতিরোধে জেলা প্রশাসনের নিষেধাজ্ঞা অমান্য করে ১৮ জনের খাগড়াছড়ি প্রবেশের একটি অভিনব চেষ্টা রুখে দিয়েছে বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর গুইমারা সেনা সাব জোন।

প্রবেশ চেষ্টাকারীরা প্রশাসনের চোখ ফাঁকি দিতে ফার্নিচারের ট্রাকে আসবাবপত্রের ভেতরে লুকিয়ে খাগড়াছড়ি প্রবেশের চেষ্টা করেছিল। কিন্তু সেনাবাহিনীর তল্লাশির চোখ ফাঁকি দেয়া সম্ভব হয়নি।

স্থানীয় সেনাসূত্রে জানা গেছে, রবিবার দিবাগত রাত ১২টার দিকে আসবাবপত্রের একটি ট্রাক গুইমারা সেনা সাব জোনের তল্লাশি চৌকি পার হওয়ার সময় সেনাবাহিনীর সদস্যরা তাদের থামায়।

এসময় গুইমারা সাব জোনের সাব জোন কমান্ডার মেজর জুনাইদ বিন কবিরের নেতৃত্বে সেনা সদস্যরা ট্রাকের উপরে তল্লাশি করলে আসবাবপত্রের ফাঁকে ফাঁকে লুকিয়ে থাকা ১৮জন নারী পুরুষকে দেখা যায়। এদের মধ্যে ৭ জন মহিলা এবং ১১জন পুরুষ।

সূত্রে জানা যায়, ট্রাকের ভেতরে কিছু ফার্নিচার রেখে উপরে পলিথিন জাতীয় কাগজ দিয়ে মোড়ানো ছিল গাড়িটি। ট্রাকে থাকা লোকজন কুমিল্লা ইপিজেড এলাকা থেকে আসার কথা বললেও চালক বলেছেন তিনি ঢাকা থেকে এসেছেন।

স্থানীয় ভ্রাম্যমাণ আদালতের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট গুইমারা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা তুষার আহমেদ এ ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে জানান, এরা যেখান থেকে এসেছে আবার সেখানে চলে যেতে হবে।

এদের অবশ্যই হোম কোয়ারেন্টাইনে থাকতে হবে। খাগড়াছড়িতে ঢোকা এবং বাহির হওয়ায় নিষেধাজ্ঞা রয়েছে। এদের খাগড়াছড়িতে ঢুকতে দেওয়া হবে না।

এদের মধ্যে জেলা সদর, মহালছড়ি, দীঘিনালা এবং পানছড়ির বাসিন্দা রয়েছে।

উল্লেখ্য, দেশব্যাপী যানবাহন চলাচলে নিষেধাজ্ঞার মধ্যে শনিবার ভোরে চট্টগ্রাম থেকে খাগড়াছড়ি শহরে ১৫৫ জন তরুণ তরুণী প্রবেশ করে। দীর্ঘপথ ও অনেকগুলো চেকপোস্ট পাড়ি দিয়ে মাইক্রোবাস ভাড়া করে বিপুল পরিমাণ শ্রমিক খাগড়াছড়ি প্রবেশ করায় সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ব্যাপক সমালোচনার সৃষ্টি হয়।

Print Friendly, PDF & Email
Facebook Comment

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

3 × 4 =

আরও পড়ুন