গবেষকদলের পরিদর্শন

বঙ্গবন্ধু হেরিটেজ হালদা নদীর উৎসস্থল সুরক্ষার দাবি

fec-image

বঙ্গবন্ধু হেরিটেজ ঘোষিত প্রাকৃতিক মৎস্য প্রজনন ক্ষেত্র ঐতিহ্যবাহি হালদা নদীর রামগড়ের পাহাড়ি এলাকার উৎপত্তিস্থল বা উৎসস্থল সংরক্ষণে জরুরি পদক্ষেপ নেয়ার দাবি জানিয়েছেন হালদা নদী গবেষকগণ।

বৃহস্পতিবার(৩১ ডিসেম্বর) খাগড়াছড়ির রামগড়ের পাতাছড়া ইউনিয়নের ৭নং ওয়ার্ডের দুর্গম পাহাড়ি এলাকা ছোট বেলছড়ির হাসুকপাড়ায় হালদানদীর উৎসস্থল সরেজমিনে পরিদর্শন করেন এ গবেষকদল।

চট্টগ্রাম বিশ্ব বিদ্যালয়ের প্রাণি বিদ্যা বিভাগের অধ্যাপক ও হালদা রিভার রিসার্স ল্যাবরেটরির কো-অর্ডিনেটর ড. মনজুরুল কিবরিয়ার নেতৃত্বে পরিদর্শনদলে ছিলেন আইডিএফ’র প্রতিষ্ঠাতা সদস্য অধ্যাপক শহিদুল আমিন চৌধুরি, চট্টগ্রাম বিশ্ব বিদ্যালয়ের ফরেস্ট্রি এন্ড এনভায়রনমেন্টাল সায়েন্স বিভাগের অধ্যাাপক ড. মোশাররফ হোসাইন ও প্রভাষক তাসনিমা দিলশাদ।

এ সময় অন্যান্যের মধ্যে স্থানীয় ইউপি মেম্বার মানেন্দ্র ত্রিপুরা উপস্থিত ছিলেন। পরিদর্শন শেষে অধ্যাপক ড. মনজুরুল কিবরিয়া জানান, হালদার উৎসস্থল রক্ষার জন্য সেখানকার পাহাড়ি টিলাগুলোর প্রাকৃতিক বন জঙ্গল, লতাগুল্ম ধ্বংস করা যাবে না। উৎসস্থলে বাধ দিয়ে পানি আটকিয়ে রাখায় জল প্রবাহ বাধাগ্রস্ত হচ্ছে। দ্রুত এ বাধ অপসরণের পদক্ষেপ নেয়া দরকার।

তিনি আরও বলেন, দেশের এ ঐতিহ্যবাহি নদীর উৎপত্তিস্থলে মনুমেন্ট স্থাপনসহ যাতায়তের রাস্তাটির উন্নয়ন করা জরুরি। বঙ্গবন্ধু হেরিটেজ ঘোষণার মাধ্যমে রাষ্টীয়ভাবে যেহেতু নদীটির গুরুত্বের স্বীকৃতি দেয়া হয়েছে এখন এর রক্ষা ও সার্বিক উন্নয়নের দায়িত্বও রাষ্টের।

তিনি জানান, দীর্ঘ অনুসন্ধনের পর ২০১৩ সালের ফেব্রুয়ারিতে রামগড়ের এ দুর্গম পাহাড়ি এলাকায় ঐতিহ্যবাহি এ হালদা নদীর উৎসস্থলও তারা আবিষ্কার করেন।

উৎসস্থল পরিদর্শনের আগে বুধবার গবেষকদলটি পল্লী কর্মসহায়ক ফাউন্ডেশন ও আইডিএফ কর্তৃক পরিচালিত হালদার উজান মানিকছড়িতে তামাক চাষের বিকল্প জীবিকায়নে উদ্বুদ্ধকরণ সভা ও হালদা রক্ষায় চলমান বিভিন্ন কার্যক্রম পরিদর্শন করেন।

উল্লেখ্য, মুজিববর্ষ উপলক্ষে গত ২১ ডিসেম্বর মৎস্য ও প্রাণি সম্পদ মন্ত্রণালয় এক প্রজ্ঞাপনে মাধ্যমে হালদা নদীকে বঙ্গবন্ধু হেরিটেজ ঘোষণা করা হয়।

Print Friendly, PDF & Email
Facebook Comment

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

6 + 18 =

আরও পড়ুন