“চাঁদাবাজরা বরকল উপজেলার কাঠ ব্যবসায়ী  মোঃ ইউসুফ (৪৫) এর কাছ থেকে নগদ ২,০০,০০০ (দুই লক্ষ) টাকা চাঁদা দাবি করে।”

বরকলে জেএসএস (সন্তু লারমা গ্রুপ)’র ৪ সশস্ত্র চাঁদাবাজ আটক

fec-image

রাঙ্গামাটির বরকল উপজেলার কাটতলী বাজার নামক স্থানে আঞ্চলিক সংগঠন জেএসএস (সন্তু লারমা গ্রুপ)’র  ৪ চাঁদাবাজকে, চাঁদা আদায়কালে হাতেনাতে আটক করেছে যৌথবাহিনী।

১৫ আগস্ট(বুধবার)  দুপুর ১টার দিকে তাদের আটক করা হয়। আটককৃতরা হলেন, সুনিল চাকমা (৩৫), পিতা: শান্তি কুমার চাকমা, আপন চাকমা (৩০), পিতা: ভাগ্য চন্দ্র চাকমা, সাধন চাকমা (২৭), পিতা. ধর্মচন্দ্র চাকমা ও হিমেল চাকমা (৩৩), পিতা ধর্মচন্দ্র চাকমা। তারা বরকল উপেজেলার কাটতলী বাজার এলাকার রাধামন পাড়ার বাসিন্দা।

জানাযায়, পার্বত্য চট্টগ্রামের আঞ্চলিক সশস্ত্র সন্ত্রাসী গ্রুপের একটি দল জোর পূর্বক স্থানীয়দের কাছ থেকে চাঁদা আদায় করছে এমন সুনির্দিষ্ট তথ্যের ভিত্তিতে নিরাপত্তাবাহিনী এবং বিজিবি’র সমন্বয়ে যৌথবাহিনীর একটি দল অভিযান পরিচালনা করে। এসময় অভিযানিক দলটি ০৪ জন চাঁদাবাজকে চাঁদা আদায়কালে হাতেনাতে আটক করতে সক্ষম হয়।

সূত্র জানায়, চাঁদাবাজরা বরকল উপজেলার কাঠ ব্যবসায়ী  মোঃ ইউসুফ (৪৫) এর কাছ থেকে নগদ ২,০০,০০০ (দুই লক্ষ) টাকা চাঁদা দাবি করে। কিন্তু মো. ইউসুফ চাঁদা দিতে ব্যর্থ হলে তাকে তার কাঠের নৌকাসহ জোরপূর্বক কাটতলী বাজার এলাকায় তুলে নিয়ে যায়।

ঘটনার পরপরই তাৎক্ষণিকভাবে যৌথবাহিনী অভিযান পরিচালনা করে কাটতলী বাজার থেকে বর্ণিত চাঁদাবাজ ও অপহরণকারীদের গ্রেফতার এবং কাঠ ব্যবসায়ীকে উদ্ধার করে। পরবর্তীতে, তাদেরকে শুভলং পুলিশ ফাঁড়িতে হস্তান্তর করা হয়।

প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে আটকৃতরা পার্বত্য চট্টগ্রামের আঞ্চলিক সংগঠন জেএসএস (সন্তু লারমা গ্রুপ)’র সদস্য বলে জানা যায়। অভিযুক্তদের বিরুদ্ধে চাঁদাবাজি ও অপহরণের দায়ে বরকল থানায় মামলা করা হয়েছে।

যৌথবাহিনী জানায়, এই অভিযান পার্বত্য চট্টগ্রামের চাঁদাবাজ ও সশস্ত্র সন্ত্রাসীদের বিরুদ্ধে একটি সফল অভিযান। পার্বত্য চট্টগ্রামের শান্তি ও শৃঙ্খলা বজায় রাখতে নিরাপত্তা বাহিনীর এ ধরনের অভিযান অব্যাহত থাকবে।

Print Friendly, PDF & Email
Facebook Comment

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

11 + seven =

আরও পড়ুন