বাংলাদেশ গেমসে রৌপ্য পদক জয় করলো পানছড়ির বিনোতী

fec-image

এবারের বঙ্গবন্ধু নবম বাংলাদেশ গেমসে তায়কোয়ান্দো প্রতিযোগিতায় রৌপ্য পদক জয় করেছে পানছড়ির বিনোতী চাকমা।

বঙ্গবন্ধু নবম বাংলাদেশ গেমসে তায়কোয়ান্দো প্রতিযোগিতার আসর অনুষ্ঠিত হয় ঢাকাস্থ জাতীয় ক্রীড়া পরিষদ জিমন্যাসিয়ামে। বাংলাদেশ আনসারের হয়ে মহিলা বিভাগে ৪৬ কেজি ওজনের খেলায় রৌপ্য পদক জয় করে বিনোতী।

সে উপজেলার লতিবান ইউপির নবীন চন্দ্র পাড়া গ্রামের পূর্ণ বিকাশ চাকমা ও কুহেলিকা চাকমার মেয়ে। ২০১৬ সালে আনসারের হয়ে জাতীয় তায়কোয়ান্দোতে স্বর্ণজয়ী বিনোতী ২০১৭, ১৮ ও ১৯ সালে জয় করে রৌপ্য। বিনোতী তার প্রশিক্ষক কোরবান আলী ও নির্মল চৌধুরীর কৃতজ্ঞতার কথা বার বার তুলে ধরে।

বাংলাদেশ আনসার দলের তায়কোয়ান্দো প্রশিক্ষক কোরবান আলী মুঠোফোনে জানান, বিনোতী সব সময় নিবিড় প্রশিক্ষণে থাকে। প্রশিক্ষণে তার কোন ঘাটতি নাই। এবার সে শারিরীকভাবে দুর্বল ছিল। না হয় এবারেও স্বর্ণপদক জয় করতো।

পানছড়ি ডিগ্রি কলেজ থেকে গ্রেজুয়েশন অর্জনকারী বিনোতী জানায়, পানছড়ি ফুটবল একাডেমির কোচ ক্যাপ্রুচাই মারমার হাত ধরেই খেলার জগতে আসা। পানছড়ি ফুটবল একাডেমিতে প্রশিক্ষণ গ্রহন করে সে ঢাকা শেখ জামালের হয়ে ফুটবল খেলেছে। কাউখালি ফুটবল একাডেমির পরিচালক সুইলা মং মারমার হাত ধরে বাংলাদেশ আনসারে যোগ দিয়ে অদ্যবধি পর্যন্ত সফিপুর আনসার একাডেমিতে কর্মরত।

বিনোতীর বাবা জানান, আমার মেয়ে লেখাপড়া ও খেলাধুলায় প্রচুর আগ্রহী। মেয়ের সফলতায় সে খুব খুশী। বিনোতীর দাবী তার নবীন চন্দ্র পাড়াস্থ বাড়িতে প্রবেশ পথটি দুটি বাঁশের উপর ভরসা করইে পার হতে হয়। সন্ধার পর জীবনের ঝুকি নিয়েই বাঁশের উপর দিয়েই পথচলা। তাছাড়া অসুস্থ রোগী বহনের মতো কোন পরিবেশ নেই। এ ব্যাপারে সরেজমিনে তদন্ত পূর্বক উচ্চ পদস্থ কর্মকর্তাদের সু-দৃষ্টি আশা করছেন।

Print Friendly, PDF & Email
ঘটনাপ্রবাহ: পানছড়ি, বাংলাদেশ গেমস, বিনোতী
Facebook Comment

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

one + 13 =

আরও পড়ুন