বাংলাদেশ ভারত মৈত্রী সেতু উদ্বোধন করবেন নরেন্দ্র মোদি

fec-image

ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি আজ মঙ্গলবার (৯ মার্চ) ভার্চুয়াল অনুষ্ঠানের মাধ্যমে উদ্বোধন করবেন রামগড়-সাব্রুম সীমান্তে ফেনী নদীর ওপর নির্মিত বাংলাাদেশ ভারত মৈত্রী সেতু-১।

ত্রিপুরা রাজ্যের বিধান সভায় বিজেপি সরকারের তিন বছর পূর্তি উপলক্ষে তিনি সেতুটির উদ্বোধন করবেন বলে জানাগেছে। একইভাবে সাব্রুমে নব স্থাপিত আধুনিক ইন্টিগ্রেটেড চেক পোস্ট বা আইসিপিরও উদ্বোধন করা হবে। মঙ্গলবার বেলা সাড়ে ১২টায় নয়াদিল্লী থেকে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি ভার্চুয়ালি উদ্বোধন করবেন।

সীমান্তের ওপাড়ে ত্রিপুরার সাব্রুমের বিভিন্ন সূত্র জানায়, এ ত্রিপুরার রাজধানী আগরতলার বিবেকানন্দ ময়দানে মূল উদ্বোধনী অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়েছে। বিবেকানন্দ ময়দানে উপস্থিত ত্রিপুরার রাজ্যপাল, মূথ্যমন্ত্রীসহ অন্যান্য নেতৃবৃন্দের সাথে সংযুক্ত হয়ে নয়াদিল্লী হতে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি ভার্চুয়ালি মৈত্রী সেতুসহ অন্যনান্য স্থাপনার উদ্বোধনী ঘোষণা দেবেন। নরেন্দ্র মোদির হঠাৎ মৈত্রী সেতুর উদ্বোধনের খবরে সাব্রুমের মানুষের মাঝে খুশির ঢেউ নেমে আসে সীমান্ত সূত্রে জানা গেছে।

এদিকে, গত শুক্রবার সেতু পরিদর্শনে এসে পররাস্ট্র সচিব মাসুদ বিন মোমেন স্বাধীনতার সুর্বণ জয়ন্তী উপলক্ষে ২৬ মার্চ বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ও ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি আনুষ্ঠানিকভাবে মৈত্রী সেতুটি উদ্বোধনের কথা জানিয়েছিলেন। এ খবরটি গণ মাধ্যমেও প্রচারিত হয়। কিন্তু এর ৩দিনের মাথায় সোমবার হঠাৎ ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি ৯ মার্চ সেতুটির উদ্বোধনের খবর প্রচারিত হলে এখানকার মানুষের মাঝে নানা প্রশ্নের উদ্রেক হয়। এ নিয়ে নানা জল্পনা কল্পনাও শুরু হয়।

প্রসংগত: ২০১০ সালের জানুয়ারিতে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা দিল্লি সফরকালে ভারতের তৎকালীন প্রধানমন্ত্রী মনমোহন সিং এর সাথে বৈঠকে রামগড়-সাব্রুম স্থলবন্দর চালুর যৌথ সিদ্ধান্ত নেয়া হয়। পরবর্তীতে ২০১৫ সালের ৬ জুন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ও ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি ফেনী নদীর ওপর নির্মাণাধীন বাংলাদেশ ভারত মৈত্রী সেতু-১ নামে সেতুটির ভিত্তি প্রস্তরের ফলক উন্মোচন করেন।

রামগড়-সাব্রুম স্থল বন্দর চালুর লক্ষ্যে সীমান্তবর্তী ফেনী নদীর ওপর মৈত্রী সেতু-১ নির্মাণ কাজের জন্য ২০১৭ সালের এপ্রিলে দীনেশ চন্দ্র আগরওয়াল কনস্ট্রাকশন নামে গুজরাটের একটি প্রতিষ্ঠানকে ঠিকাদার নিযুক্ত করে ভারতের ন্যাশনাল হাইওয়েস এন্ড ইনফ্রাস্টাকচার ডেভেলপমেন্ট কর্পোরেশন লিমিটেড (এনএইচআইডিসিএল) সংস্থাটি। নির্মাণকাজের নিযুক্ত ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠানটি ৪১২ মিটার দৈর্ঘ্য ও ১৪ দশমিক ৮ মিটার প্রস্থের দুই লেন বিশিষ্ট এক্সটা ডোজড, ক্যাবল স্টেইড আরসিসি মৈত্রী সেতুর নির্মাণ কাজ গত জানুয়ারি মাসে পুরোপরি শেষ করে। সেতুর নির্মাণ কাজে ব্যয় হয় প্রায় একশ কোটি ভারতীয় রুপী।

Print Friendly, PDF & Email
Facebook Comment

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

nine − two =

আরও পড়ুন