বাইশারীতে ইয়াবার টাকার জন্য অপহরণ! র‌্যাবের অভিযানে আটক-২

fec-image

বান্দরবানের নাইক্ষ্যংছড়ির বাইশারীতে তারেক রহমান (১৫) নামে ৮ম শ্রেণীর এক শিশুকে অপহরণের ঘটনায় দুই রোহিঙ্গা শরণার্থীকে আটক করেছে র‌্যাব। শুক্রবার সকালে রামু-নাইক্ষ্যংছড়ি সড়কের চা বাগান এলাকা থেকে জনতার সহায়তায় তাদের আটক করে র‌্যাব কক্সবাজার ক্যাম্পের একটি টহল দল।

এর আগে বৃহস্পতিবার (২৯ এপ্রিল) রাতে জেলার নাইক্ষ্যংছড়ি উপজেলার বাইশারী ইউনিয়নের ক্যাংগারবিল জিয়লছড়ায় এই অপহরণের ঘটনা ঘটে। আটকৃত রোহিঙ্গা মো. ইয়াছিন (৩০) ও তার ছোট ভাই মিজান (২৬) সহ মোট ৭ জনের বিরুদ্ধে ভিকটিমের পিতা মোহাম্মদ রশিদ বাদী হয়ে নাইক্ষ্যংছড়ি থানায় একটি অপহরণ মামলা করেছেন। রাতে থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা বাদীর আবেদনটি এজাহার হিসেবে গ্রহণ করে তদন্তের ভার দিয়েছেন এসআই মোহাম্মদ আমিনকে।

ঘটনার বিবরণে জানা যায়, ঘটনার দিন ২৯ এপ্রিল (বৃহস্পতিবার) রাতে মোহাম্মদ রশিদের ছেলে তারেক রহমান (১৫) তাদের ধানক্ষেতে বন্যহাতি পাহারা দেওয়ার সময় অজ্ঞাত কয়েকজন লোক এসে তাদের পথ দেখিয়ে দিতে বলে। এসময় তারেক তাদের পথ দেখিয়ে কিছু দূর নিয়ে গেলে ৬-৭ জন লোক অতর্কিত অবস্থায় তাকে অপহরণ করে নিয়ে যায়।

মামলার বাদী মোহাম্মদ রশিদ পার্বত্যনিউজের প্রতিবেদককে জানান, অপহরণকারীরা তার ছেলের হাত, মুখ বেঁধে ক্যাংগারবিল থেকে খুটাখালী নিয়ে যায়। সেখান থেকে শুক্রবার সকালে একটি মাহেদ্রা সিএনজি যোগে শরণার্থী ক্যাম্পের দিকে নিয়ে যাওয়ার সময় ছেলের চিৎকার শুনে চা বাগান এলাকায় স্থানীয় জনতা তার ছেলেকে উদ্ধার ও অপহরণকারীদের আটক করে।

তিনি আরও জানান, “মোবাইলের মাধ্যমে ছেলে তারেক উদ্ধার হওয়ার খবর পেয়ে মামা গোলাম আকব্বরকে বিষয়টি জানান তিনি। পরে তার মাধ্যমে র‌্যাবের একটি টহল দল অপহরণকারী দুইজনকে আটক এবং ছেলে উদ্ধার হয়”।

এই বিষয়ে নাইক্ষ্যংছড়ি থানা ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মো. আলমগীর হোসেন জানান, অপহৃতের ঘটনায় দুজন আটক আছে। ঘটনার বিষয়ে থানায় মামলা হয়েছে। অপহরণের ঘটনার বাইরে অন্য কিছু আছে কিনা এমন প্রশ্নের জবাবে, ‘প্রকৃত ঘটনা খতিয়ে দেখা হচ্ছে এবং তদন্তের পর বিস্তারিত জানা যাবে’ বলে জানান তিনি।

এদিকে বাইশারী ইউনিয়নের ২ নম্বর ওয়ার্ডের ক্যাঙ্গারবিল এলাকায় খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, মোহাম্মদ রশিদ জন্মসূত্রে রোহিঙ্গা নাগরিক। তিনি নিজেকে মহেশখালীর বাসিন্দা পরিচয় দিলেও একসময় খুটাখালী এবং সর্বশেষ বাইশারী ইউনিয়নের ক্যাংঙ্গারবিল এলাকায় এসে বসবাস শুরু করে। সেখানে ভোটারও হয়েছেন। বিভিন্ন জায়গায় বিচরণ করার ফলে সে খুটাখালী এবং শরণার্থী ক্যাম্প এলাকার অপরাধী কিছু রোহিঙ্গাদের মধ্যে সম্পর্ক তৈরি হয়।

কিছুদিন পূর্বে তাদের মধ্যে মাদক ব্যবসা সংক্রান্ত ঘটনার লেনদন হয়। আর লেনদেনের টাকার জন্যই মো. রশিদের ছেলে তারেক রহমানকে অপহরণ করে আটকৃত দুই রোহিঙ্গা

এই বিষয়ে বাইশারী ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মোহাম্মদ আলম পার্বত্যনিউজের প্রতিবেদককে জানান, অপহরণের ঘটনা সত্য। তবে ঘটনাটি আর্থিক লেনদেন সংক্রান্ত কারণে হয়েছে বলে এলাকার লোকজনের ধারনা। মামলার বাদী রশিদ জন্মসূত্রে মায়ানমার নাগরিক হওয়ায় শরণার্থী এলাকার লোকজনের সঙ্গে রশিদের সম্পর্ক ছিল বলে ধারণা এই জনপ্রতিনিধির।

Print Friendly, PDF & Email
ঘটনাপ্রবাহ: আটক, ইয়াবা, বাইশারী
Facebook Comment

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

1 × five =

আরও পড়ুন