বাঘাইছড়িতে বিদ্যুতের ভেলকিবাজিতে অতিষ্ঠ জনজীবন

fec-image

বাঘাইছড়ি উপজেলার বিদ্যুৎতের ভেলকিবাজি ও লোডশেডিং জন জীবন অতিষ্ঠ হয়ে পড়েছে। প্রতি নিয়ত চলছে লোডশেডিং। দশ মিনিট পর পর বিদ্যুৎ যাওয়া আসাতে ফ্রিজ, টিভি, মোটর,ভাল্প ইলেকট্রনিক যন্ত্রপাতি প্রতিনিয়ত নষ্ট হচ্ছে। কল কারখানা বন্ধ থাকায় লাফিয়ে লাফিয়ে বাড়ছে চাউলসহ নিত্যপ্রয়োজনীয় জিনিসের দাম।

সারা দিনে সব মিলিয়ে বিদ্যুৎ থাকে হাতে কলমে গুনে তিন ঘন্টার মত। সন্ধ্যায় বিদ্যুৎ চলে যায় আসে রাত নয়টায় ছেলে মেয়েদের পড়াশুনা ব্যাপক ব্যাঘাত সৃষ্টি হচ্ছে। অপর দিকে বিদ্যুৎ বিভ্রাটের কারনে ফুসে উঠছে জনগনসহ সচেতন মহল। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে বিদ্যুৎ বিভ্রাটের ও লোডশেডিং এর ব্যাপক সমালোচনার ঝড় উঠেলেও কতৃপক্ষ যেন উদাসিনতার বহিঃপ্রকাশ ঘটে।

বাঘাইছড়ি উপজেলার বাসিন্দা আবদুল করিম ক্ষোভ প্রকাশ করে বলেন কাপ্তাই বিদ্যুৎ কেন্দ্রে বিদ্যুৎ উৎপাদন বৃদ্ধি পেয়েছে আমরা নিয়মিত বিদ্যুৎ পাচ্ছি না। সকাল ৮টায় বিদ্যুৎ চলে যায় বিকাল ৪টা বাজে বিদ্যুৎ আসে। তাও আবার ঘন্টায় ১০ থেকে ১৫ বার যাওয়া আসা করে আমার একটি এলইডি টিভি নষ্ট হয়ে গেছে তাই মেরামতের জন্য এনেছি।

সন্ধ্যয় আমাদের ছেলে মেয়েরা লেখাপড়া করতে পারেনা। আমি বিষয়টি প্রশাসনসহ উর্ধতন কর্তৃপক্ষের হস্তক্ষেপ কামনা করছি।

এ ব্যাপারে আবাসিক প্রকৌশলী বিদ্যুৎ সুগত চাকমার সাথে যোগযোগ করা হলে তিনি বলেন, আমরা সকাল ৮টা লাইনের কাজ করি তাই ৪টা পর্য়ন্ত বিদ্যুৎ সরবারাহ বন্ধ থাকে। বিদ্যুৎ সরবারাহ পর কেন ঘনঘন লোডশেডিং হয় জানতে চাইলে তিনি বলেন সেটা মেইন লাইনের সমস্য কারনে ঘন ঘন লোডশেডিং হচ্ছে।

Print Friendly, PDF & Email
ঘটনাপ্রবাহ: বাঘাইছড়ি, বিদ্যুৎ
Facebook Comment

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

5 × 2 =

আরও পড়ুন