বাঘাইছড়িতে ভ্রাম্যমান আদালতে ২২ প্রতিষ্ঠান ও ব্যক্তিকে জরিমানা

fec-image

রাঙামাটির বাঘাইছড়িতে করোনা ভাইরাস প্রতিরোধে সরকারের গৃহিত পদক্ষেপ না মেনে রাস্তায় বের হওয়া এবং দোকান খোলা রাখায় বিভিন্ন যানবাহন ও প্রতিষ্ঠানকে ভ্রাম্যমান আদালত পরিচালনা করে জরিমানা করেছেন উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো. আহসান হাবিব জিতু।

বুধবার (২২ এপ্রিল) সকাল ৯টা থেকে দুপুর ১২টা পর্যন্ত উপজেলা সদর ও চৌমুহনীসহ বিভিন্ন সড়কের মোড়ে এ অভিযান পরিচালিত হয়। এ সময় সরকারি আদেশ অমান্য করে রড, সিমেন্ট বিক্রি করায় নুর ট্রেডাস এর মালিক পৌর কাউন্সিলর মো. নাজিম উদ্দিনকে ৩ হাজার টাকা জরিমানা ও প্রসিকিউশন দেয়া হয়।

এছাড়া অকারণে রাস্তায় বের হওয়া ১৬টি মোটর সাইকেল চালককে ৫ হাজার টাকা জরিমানা ও ৫টি অটোরিক্সাকে ১ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়। এ সময় ২২টি মামলার প্রসিকিউশন দেয়া হয়। এছাড়াও বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানকে সতর্ক করা হয়।

এ বিষয়ে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো. আহসান হাবিব বলেন, আমরা রাতদিন মনিটরিং করে সবাইকে সচেতন করার চেষ্টা করছি। যারা সরকারি নিয়ম মানছেন না, তাদের কিছুটা জবাবদিহিতার আওতায় আনার চেষ্টা করে যাচ্ছি। অভিযান নিয়মিতভাবেই চলমান থাকবে। বাঘাইছড়ি থানা পুলিশে মোবাইল টিম ও আনসার কমান্ডার আবুল বাশার অভিযানে উপস্থিত ছিলেন।

এর আগে ২০ এপ্রিল সরকারি আদেশ অমান্য করে দোকান খোলা রেখে চা বিক্রি করায় বনফুল নামে এক প্রতিষ্ঠানকে ১০ হাজার টাকা জরিমানা ও অনাদায়ে ১৫ দিনের জেল দিয়েছে ভ্রাম্যমাণ আদালত। এছাড়াও ১৯ এপ্রিল রাত ৮টার দিকে সরকারি আদেশ অমান্য করে সন্ধ্যার পর দোকান খোলা রাখায় চৌমুহনী বাজারের বাঘাইছড়ি স্টোরের মালিক জাকির হোসেনকে ১০ হাজার টাকা জরিমানা ও অনাদায়ে ৭ দিনের জেল আদেশ প্রদান করেন ভ্রাম্যমাণ ম্যাজিস্ট্রেট ও উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা আহসান হাবিব জিতু পরিচালিত মোবাইল কোর্ট।

Print Friendly, PDF & Email
ঘটনাপ্রবাহ: জরিমানা, বাঘাইছড়িতে, ভ্রাম্যমান কোর্টে
Facebook Comment

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

eighteen − five =

আরও পড়ুন