মাটিরাঙ্গায় ৪ বাঙালী শ্রমিককে অপহরণ করেছে ইউপিডিএফ

অপহরণ

মুজিবুর রহমান ভুইয়া :

পার্বত্য চট্টগ্রাম বিষয়ক আন্তর্জাতিক কমিশন (সিএইচটি কমিশন) খাগড়ছড়িতে ইউপিডিএফের সাথে গোপন বৈঠক করে যাওয়ার তিন দিনের মাথায় খাগড়াছড়ি-চট্টগ্রাম আঞ্চলিক সড়কে নির্মাণাধীন একটি সেতুর ৪ বাঙ্গালী শ্রমিককে অপহরণ করেছে ইউপিডিএফের স্বশস্ত্র সন্ত্রাসীরা। জেলার মাটিরাঙ্গা উপজেলার ব্যাঙমারা এলাকায় রোববার রাত সাড়ে ১০টার দিকে এ ঘটনা ঘটে।

সড়ক ও জনপথ বিভাগের নির্মানাধীন সেতুটির কেয়ারটেকার সুনতি বিকাশ ত্রিপুরা জানান, ওই ৪ বাঙ্গালী শ্রমিককে সেতুর কাছে রেখে রাত ১০টার দিকে তিনি রাতের খাবার খেতে বাড়ি যান। এর আধা ঘণ্টা পরই তিনি সেতুর কাছে কয়েক রাউন্ড গুলির আওয়াজ শুনতে পান। সঙ্গে সঙ্গেই তিনি ব্রীজের কাছে ফিরে এসে এসে দেখেন তার সহকর্মী বোল ড্রোজারের চালকসহ ৪ বাঙ্গালী শ্রমিক নেই। অনেক খোজাখুজিরও পরেও তাদেরকে এখন পর্যন্ত কোথাও পাওয়া যায়নি।

তার ধারণা আঞ্চলিক পাহাড়ী সংগঠন ইউপিডিএফ তাদেরকে অপহরণ করে থাকতে পারে। কারণ গত কয়েকদিন ধরেই ইউপিডিএফ মোটা অঙ্কেও চাঁদা দাবী করে আসছিল। কিন্তু নির্মাণকারী প্রতিষ্ঠান চাঁদা না দেয়ায় শ্রমিকদের অস্ত্রের মুখে অপহরণ করা হয়েছে। এসময় ইউপিডিএফ সন্ত্রাসীরা কয়েক রাউন্ড ফাঁকা গুলি ছুঁড়ে এলাকায় আতঙ্ক সৃষ্টি করে। অপহৃত চার শ্রমিকের দুজনের নাম রাজু ও ফারুক। বাকি দুই শ্রমিকের নাম বলতে পারেননি কেয়ারটেকার সুনতি।

খাগড়াছড়ি সড়ক ও জনপথ বিভাগের নির্বাহী প্রকৌশলী মোঃ ইসমাইল হোসেন জানান, কাজটি আমরা দেখভাল করলেও শ্রমিকগুলো ঠিকাদারের নিয়ন্ত্রিত শ্রমিক। তবে শুনেছি কয়েকদিন ধরে কিছু চাদাঁবাজ এ ব্রীজের ঠিকাদারের কাছে মোটা অঙ্কের চাদাঁ চেয়ে আসছে। হয়তো তারাই এ ঘটনা ঘটাতে পারে।

মাটিরাঙ্গা থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মো: মাইন উদ্দিন খান ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেছেন, চার শ্রমিককে সন্ত্রাসীরা অপহরণ করে নিয়ে যাওয়ার খবর পেয়ে পুলিশ বিষয়টি গুরুত্বের সাথে খতিয়ে দেখছে। তাদের উদ্ধারের বিষয়ে পুলিশ কাজ করছে বলেও জানান তিনি।

প্রসঙ্গত, ইস্টার্নব্রীজ ইম্প্রুভমেন্ট প্রজেক্ট এর আওতায় সরকারি অর্থায়নে সড়ক ও জনপথ বিভাগ (সওজ) ব্যাঙমারা ব্রিজটি নির্মাণ কাজ করছে। গেল বছর ৬ সেপ্টেম্বর যোগাযোগমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের সড়ক ও জনপথ বিভাগের নির্মানাধীন এ সেতুর ভিত্তি প্রস্তর স্থাপন করেন।

অপহৃতদের উদ্ধারে সেনাবাহিনীর একাধিক টিম ও পুলিশ অভিযান শুরু হয়েছে বলে নিশ্চিত করেছেন মাটিরাঙ্গা জোনের জোনাল স্টাফ অফিসার ক্যাপ্টেন কাওছার।

Print Friendly, PDF & Email
Facebook Comment

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

1 + five =

আরও পড়ুন