বান্দরবানের উপবন পর্যটনে যুক্ত হলো ওয়াচ টাওয়ার: উদ্বোধন করলেন ডিসি

fec-image

বান্দরবানের নাইক্ষ্যংছড়ি উপজেলা সদরে পর্যটন কেন্দ্রে এবার যুক্ত হয়েছে সুউচ্চ ওয়াচ টাওয়ার। উপজেলা সদরে কৃত্রিম হ্রদ নিয়ে গড়ে উঠা উপবন পর্যটন কেন্দ্রের পাহাড়ের চূড়ায় নব নির্মিত এই টাওয়ার থেকে মায়ানমার সীমান্তের কালো পাহাড়সহ পার্শ্ববর্তী রামু-কক্সবাজার ও আলীকদম সীমানা এলাকার পরিবেশ ও প্রাকৃতিক দৃশ্য দেখা যাবে অনায়াসে।

রবিবার (৬ জুন) সকালে আনুষ্ঠানিকভাবে এই টাওয়ারের উদ্বোধন করেছেন বান্দরবান জেলা প্রশাসক ইয়াছমিন পারভীন তিবরিজী। প্রায় ১৭ লক্ষ টাকা ব্যয়ে এই দৃষ্টিনন্দন টাওয়ারটি পর্যটকদের দারুণভাবে আকর্ষণ করবে বলে আশা করা হচ্ছে।

উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে বান্দরবান জেলা প্রশাসক ইয়াছমিন পারভীন তিবরীজি বলেছেন, উপবন পর্যটন কেন্দ্রে ওয়াচ টাওয়ারটি পর্যটন শিল্পে এক নতুন দিগন্তের সূচনা করেছে।

তিনি বলেন, এই এলাকার পর্যটন সম্ভাবনা খুব উজ্জ্বল। দেশের পর্যটন শিল্পকে এগিয়ে নিতে সরকারের পাশাপাশি উদ্যোক্তাদেরও এগিয়ে আসতে হবে। এসময় উপজেলা চেয়ারম্যান অধ্যাপক মো. শফিউল্লাহ, উপজেলা নির্বাহী অফিসার সাদিয়া আফরিন কচি, জেলা পরিষদ সদস্য ক্যানে ওয়ান চাক উপস্থিত ছিলেন।

দুই দিনের সফরের প্রথম দিন ওয়াচ টাওয়ার উদ্বোধনসহ জেলা প্রশাসক বৃক্ষরোপন কর্মসূচির উদ্বোধন, দুটি স্কুল, একটি মাদরাসা পরিদর্শণ ও নাইক্ষ্যংছড়ি থানা পরিদর্শন করেছেন।

সোমবার (৭ জুন) সকালে জেলা প্রশাসক নাইক্ষ্যংছড়ি উপজেলা পরিষদ মিলনায়তনে ডিজিটাল বাংলাদেশ গড়ার লক্ষ্যে সরকারের দুর্নীতি বিরোধী বিভিন্ন কর্মসূচি বাস্তবায়ন, জনগণের দুঃখ-দুর্দশার খোঁজ খবর নেওয়া, উপজেলা উন্নয়ন ভাবনা ও মাদক এবং চোরাচালান প্রতিরোধসহ উপজেলার সার্বিক আইন-শৃঙ্খলা সংক্রান্ত মতবিনিময় সভা ও সেমিনারে যোগদান করাসহ বেশ কয়েকটি সরকারী প্রতিষ্ঠান পরিদর্শন করার কথা রয়েছে।

উল্লেখ্য, পর্যটন মন্ত্রণালয় ও জেলা প্রশাসনের অর্থায়নে নাইক্ষ্যংছড়ি উপবন পর্যটন কেন্দ্রে সম্প্রতি সময়ে আধুনিকতার ছোয়া এনেছে নাইক্ষ্যংছড়ি উপজেলা প্রশাসন। বর্তমান উপজেলা নির্বাহী অফিসার সাদিয়া আফরিন কচি যোগদানের পর থেকে উপবন পর্যটন কেন্দ্রে আধুনিকতার ছোঁয়া লেগেছে। বিশেষ করে পর্যটন কেন্দ্রে ওয়াচ টাওয়ার, পানির ফোয়ারা (ঝর্ণা), রেলিং, সড়ক ও ঝুলন্ত ব্রিজে নানা উন্নয়নে আমূল পরিবর্তন এনেছেন তিনি।

Print Friendly, PDF & Email
Facebook Comment

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

16 − three =

আরও পড়ুন