বান্দরবানের ঘুমধুমে পৃথক অভিযান: ৬১হাজার ইয়াবাসহ আটক ৩

fec-image

বান্দরবানে নাইক্ষ্যংছড়ি থানা পুলিশের অভিযানে আবারও বিপুল পরিমাণ ইয়াবাসহ ৩ মাদক কারবারিকে আটক করা হয়েছে। রবিবার (১৪ ডিসেম্বর) জেলার নাইক্ষ্যংছড়ি উপজেলার ঘুমধুম ইউনিয়নে পৃথক তিন অভিযানে এসব ইয়াবা উদ্ধার করা হয়।

ঘটনার সাথে জড়িত ৩ মাদক কারবারি হলো ঘুমধুম ইউনিয়নের ঘোনার পাড়া এলাকার বাদশা মিয়ার ছেলে জিয়াউল হক (২৭), বালুখালী রোহিঙ্গা ক্যাম্পে আশ্রিত হাসিমুল্লার ছেলে সৈয়দ কাশেম (১৯) এবং বালুখালী রোহিঙ্গা ক্যাম্পের তবারব আলীর ছেলে নূর মোহাম্মদ (২০)।

নাইক্ষ্যংছড়ি পুলিশ সূত্রে জানা গেছে, গোপন সংবাদের ভিত্তিতে ঘুমধুম ইউনিয়নের মগপাহাড় পাড়া, বেতবুনিয়া রাস্তার মাথা এবং হেডম্যানপাড়া জাহাঙ্গীরের বাড়ি এলাকায় পৃথক অভিযান পরিচালনা করা হয়।

এসময় জিয়াউর হকের কাছ থেকে ৪৮হাজার ৭৫০পিচ, সৈয়দ কাশেমের কাছ থেকে ১হাজার ৯শ পিচ এবং নূর মোহাম্মদ এর কাছ থেকে ৯হাজার ৫শ পিচ মোট ৬১হাজার ১৫০ পিচ ইয়াবা উদ্ধার করা হয়।

বান্দরবান পুলিশ সুপার জেরিন আখতারের নির্দেশনায় ও নাইক্ষ্যংছড়ি থানার ওসি মুহাম্মদ আলমগীর হোসেনের তত্বাবধানে তিন অভিযান পরিচালনা করেন ঘুমধুম তদন্ত কেন্দ্রের ইনচার্জ দেলোয়ার হোসেন, এস আই মোখলেসুর রহমান ও এসআই ইউনুছ।

নাইক্ষ্যংছড়ি থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মুহাম্মদ আলমগীর হোসেন জানান, পৃথক তিন অভিযানে আটককৃত তিন মাদক কারবারীর বিরুদ্ধে তিনটি মামলা করা হবে। এছাড়া প্রধানমন্ত্রীর মাদকের বিরুদ্ধে জিরো টলারেন্স নীতি অনুযায়ী মাদকের বিরুদ্ধে এই ধরনের অভিযান অব্যাহত আছে।

উল্লেখ্য, নাইক্ষ্যংছড়ি থানার বর্তমান ওসি মুহাম্মদ আলমগীর হোসেন যোগদানের পর থেকে একাধিক দুসাহসিক অভিযানে বিপুল পরিমাণ ইয়াবাসহ চিহ্নিত মাদককারবারীকে আটক করতে সক্ষম হন। তাঁর প্রশংসনীয় এমন কাজে সম্প্রতি জেলার শ্রেষ্ট অফিসারও নির্বাচিত হন আলমগীর হোসেন। সচেতন নাগরিক সমাজের কাছে মাদক বিরোধী এমন অভিযান প্রশংসিত হচ্ছে।

Print Friendly, PDF & Email
ঘটনাপ্রবাহ: আটক, ইয়াবা, বান্দরবান
Facebook Comment

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

13 + 2 =

আরও পড়ুন