বান্দরবানের লামায় পাহাড়ি গ্রামে হামলার প্রতিবাদে ঢাকায় পিসিপি ও ডিওয়াইএফের বিক্ষোভ মিছিল

পার্বত্যনিউজ ডেস্ক :

বান্দরবান জেলার লামা উপজেলার রূপসী ইউনিয়নে টিয়ারঝিড়ি এলাকায় বাঙালি কর্তৃক পাহাড়ি গ্রামে হামলা ও ৮ গ্রামবাসীকে মারধরের প্রতিবাদে এবং মুজিবুল হক সহ হামলাকারীদের গ্রেফতার ও দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবিতে বৃহত্তর পার্বত্য চট্টগ্রাম পাহাড়ি ছাত্র পরিষদ(পিসিপি) ও গণতান্ত্রিক যুব ফোরাম আজ মঙ্গলবার ঢাকায় বিক্ষোভ মিছিল ও সমাবেশ করেছে।

ঢাকায় জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে থেকে বিকাল সাড়ে ৪টায় বিক্ষোভ মিছিলটি শুরু হয়ে গুরুত্বপূর্ণ সড়ক প্রদক্ষিণ করে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের রাজু ভাস্কর্যের সামনে গিয়ে এক প্রতিবাদ সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়। সমাবেশে বক্তব্য রাখেন গণতান্ত্রিক যুব ফোরামের কেন্দ্রীয় সাধারণ সম্পাদক মাইকেল চাকমা ও পাহাড়ি  ছাত্র পরিষদের কেন্দ্রীয় সভাপতি থুইক্যচিং মারমা

পাহাড়ি  ছাত্র পরিষদের কেন্দ্রীয় দপ্তর সম্পাদক বিনয়ন চাকমা স্বাক্ষরিত এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ কথা জানানো হয়।

মিছিল শেষে সমাবেশে বক্তারা বলেন, খাগড়াছড়ির মাটিরাঙ্গার তাইন্দং হামলার রেশ কাটতে না কাটতে বান্দরবানের লামায় রূপসী ইউনিয়নে পাহাড়ি গ্রামে হামলা ও গ্রামবাসীদের মারধর করা হয়েছে। ভূমি বেদখল করে পার্বত্য চট্টগ্রাম থেকে পাহাড়িদের নিজ ভূমি থেকে উচ্ছেদের পরিকল্পনার  অংশ হিসেবে এ হামলা চালানো হয়েছে।

তারা বলেন, সরকারী-বেসরকারী বিভিন্ন সংস্থা ও ব্যক্তির নামে বান্দরবানে ইতিমধ্যে হাজার হাজার একর জমি বেদখল করা হয়েছে। কয়েক মাস আগে ভূমি দস্যু কর্তৃক চাক জাতিসত্তার উপর হামলা চালিয়ে তাদের উচ্ছেদ করা হয়েছে।

বক্তারা অবিলম্বে হামলাকারী সেটলারদের গ্রেফতারপূর্বক দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি, ভূমি বেদখল বন্ধে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ গ্রহণ ও সেটলারদের পার্বত্য চট্টগ্রামের বাইরে সমতলে সম্মানজনক পুনর্বাসনের দাবি জানান।

Print Friendly, PDF & Email
Facebook Comment

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

1 × 2 =

আরও পড়ুন