বান্দরবানে অবিরাম বৃষ্টিতে পাহাড় ধ্বস ও বন্যার সম্ভাবনা! বৃদ্ধি পাচ্ছে করোনা সংক্রমণ

fec-image

করোনা সংক্রমণ বেড়ে যাওয়ায় বান্দরবানে দিন দিন রোগীর সংখ্যা দ্রুত হাড়ে বাড়ছে। মানুষের ভিতরে সংক্রমণের ভয়। সংক্রামণ ঠেকাতে প্রশাসন বান্দরবান সদর ও রুমা উপজেলাকে রেডজোনের আওতায় আনা হয়।

সেই সাথে জনসমাগম ও শারিরীক দূরত্ব বজায় রাখতে প্রশাসনের নির্দেশ জারি রয়েছে।

এখন আষাঢ় মাস অর্থাৎ বৃষ্টি ভরা দিন। সূত্রে দেশের বিভিন্ন স্থানে আগামী পাঁচদিন বজ্রসহ বৃষ্টি হতে পারে বলে আবহাওয়া অধিদফতরের এক বিজ্ঞপ্তিতে এ পূর্বাভাস দেয়া হয়েয়ে।

পূর্বাভাসে আরো বলা হয়, চট্টগ্রাম বিভাগের অধিকাংশ জায়গায় অস্থায়ী দমকা হাওয়াসহ হালকা থেকে মাঝারী ধরনের ভারী থেকে অতি ভারী বর্ষণ হতে পারে।

বান্দরবান শঙ্খ নদীর নাব্যতা হ্রাস পাওয়ায় বিগত বছরেও টানা বৃষ্টির ফলে বন্যা সৃষ্টি হয়। বন্যাগ্রস্ত মানুষেরা বিভিন্ন আশ্রয় কেন্দ্রে আশ্রয় নিয়ে থাকে।

বুধবার(১৭ জুন) সকাল থেকে অবিরাম বৃষ্টি শুরু হয়েছে। উজানের ঢলে শঙ্খ নদীর পানি বাড়তে শুরু করেছে। টানা পাঁচ দিন বৃষ্টি হলে নদীর চর ও নির্মাঞ্চল এলাকাগুলোতে পানি বন্দি হয়ে পড়বে। ফলে বন্যাগ্রস্ত মানুষেরা বিভিন্ন আশ্রয় কেন্দ্রে আশ্রয় নিলে জণসমাগম বাড়বে এবং শারিরীক দূরত্ব বজায় থাকবে না।

এক্ষেত্রে বান্দরবান শহরে চলমান করোনার পরিস্থিতির চেয়ে আরো দ্বিগুণ হাড়ে বাড়ার ঝুঁকি বেশি।

এমতা অবস্থায় স্থানীয় প্রশাসনের আগাম প্রস্তুতির ফলে করোনা সংক্রমণ ঠেকানো সম্ভব।

Print Friendly, PDF & Email
ঘটনাপ্রবাহ: করোনাভাইরাস, বন্যাগ্রস্ত মানুষ, বান্দরবান
Facebook Comment

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

twenty − fourteen =

আরও পড়ুন