বান্দরবানে আরও নিষিদ্ধ আফিম বাগানের সন্ধান, আটক ১

fec-image

র‍্যাবের অভিযানের মাত্র চার দিনের মাথায় আরো নিষিদ্ধ পপি ক্ষেতের (আফিম) সন্ধান পেল সেনাবাহিনীর সদস্যরা। মঙ্গলবার (২৮ জানুয়ারী) বান্দরবানের রুমা দুর্গম এলাকায় সেনাবাহিনীর সদস্যরা অভিযান চালিয়ে প্রায় ৪ একর আফিম ক্ষেত ধ্বংস করেছে। আফিম চাষে জড়িত থাকার অভিযোগে একজনকে আটক করা হয়েছে।

গোপন সংবাদের ভিত্তিতে রুমা সেনা জোনের সদস্যরা মঙ্গলবার সকাল থেকে বিকেল পর্যন্ত উপজেলা সদর থেকে প্রায় ৮ কিলোমিটার দূরে ক্যতোই খুমি পাড়ার কাছে একটি পাহাড়ি ঝিড়িতে অভিযান চালিয়ে প্রায় চার একর আফিম বাগান ধ্বংস করেছে।

রমা সেনা জোনের অধিনায়ক লেফটেন্যান্ট কর্নেল গোলাম আকবর সাংবাদিকদের জানিয়েছেন, ক্যতোই খুমি পাড়ার কাছে ম্রক্ষ্যং ঝিড়িতে লোকচক্ষুর আড়ালে স্থানীয় পাহাড়িরা নিষিদ্ধ আফিম বাগান গড়ে তুলেছে এমন খবর পেয়ে সেখানে অভিযান চালানো হয়। মঙ্গলবার সকাল থেকে সেখানে সেনাবাহিনীর একটি টহল দল অভিযান চালিয়ে প্রায় চার একর আফিম বাগান ধ্বংস করেছে।

অভিযানের খবর পেয়ে সেখানে থেকে বাগানের সাথে জড়িতরা অনেকে পালিয়ে গেলেও একজনকে আটক করেছে সেনা সদস্যরা। তার নাম পেনন খুমি (৩৫)। বাড়ি ঐ পাড়াতেই। আটককৃতের বিরুদ্ধে মাদক আইনে মামলা করা হবে বলে সংশ্লিষ্টরা জানিয়েছেন।

স্থানীয়রা জানিয়েছেন, পাহাড়ের দুর্গম এলাকায় এমন জায়গায় যেখানে কারো নজর পড়ে না এসব জায়গায় বিশেষ করে পাহাড়ি ঝিরির কাছে স্থানীয় পাহাড়িরা লাভজনক পপি চাষ দীর্ঘদিন থেকে করে আসছে। প্রতিবছরই নিরাপত্তা বাহিনীর সদস্যরা অভিযান চালিয়ে এসব আফিম বাগানগুলো ধ্বংস করছে।

গত ২৪ শে জানুয়ারি চট্টগ্রাম র‍্যাব ৭ এর সদস্যরা বান্দরবানের রুমা উপজেলার দুর্গম কেউক্রাডং পাহাড়ি এলাকায় অভিযান চালিয়ে বিপুল পরিমাণ আফিম বাগান ধ্বংস করে। সেখান থেকে প্রায় ৬০ কেজি আফিমের রস উদ্ধার করা হয়। বান্দরবানের দুর্গম থানচি উপজেলার মিয়ানমার সীমান্তবর্তী এলাকায় স্থানীয় পাহাড়ের সম্প্রদায় ও বিদেশি বেশ কয়েকটি সন্ত্রাসী গ্রুপ দীর্ঘদিন থেকে চলো আফিমের চাষ করে আসছে। তবে নিরাপত্তা বাহিনীর অভিযানের কারনে এখন এসব আফিম চাষ অনেকাংশেই কমে এসেছে বলে স্থানীয় জনপ্রতিনিধিরা জানিয়েছে।

Print Friendly, PDF & Email
Facebook Comment

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

18 + 6 =

আরও পড়ুন