বান্দরবানে প্রধানমন্ত্রীর দেয়া ঘর নির্মাণে উপজাতি সন্ত্রাসীদের বাঁধা: প্রতিবাদে মানববন্ধন

fec-image

বান্দরবানের রোয়াংছড়ি উপজেলায় গৃহহীনদের জন্য প্রধানমন্ত্রীর উপহার স্বরূপ সরকারি খাস জায়গায় ঘর নির্মাণ কাজে স্থানীয় উপজাতি সন্ত্রাসী কর্তৃক বাঁধা প্রদানের প্রতিবাদে মানববন্ধন কর্মসূচি পালিত হয়েছে। রবিবার (১১ সেপ্টেম্বর) সকাল ১০টায় পার্বত্য চট্টগ্রাম নাগরিক পরিষদ বান্দরবান জেলা শাখার উদ্যোগে প্রেসক্লাবের সামনে এই মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়।

মানববন্ধনে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন পার্বত্য চট্টগ্রাম নাগরিক পরিষদ কেন্দ্রীয় কমিটির চেয়ারম্যান কাজী মো. মুজিবুর রহমান। এসময় অন্যান্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন পার্বত্য নাগরিক পরিষদের সহসভাপতি হাজী আব্দুস শুক্কুর, নুরুল আলম, বান্দরবান জেলা সাধারণ সম্পাদক নাসির উদ্দীন, কেন্দ্রীয় দপ্তর সম্পাদক শাহজালাল, জেলা সাংগঠনিক সম্পাদক নুরুল আবছার, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ইকবাল মাহমুদ, মিজানুর রহমান আখন্দ, বান্দরবান সদর উপজেলা সাধারণ সম্পাদক আব্দুল হক, পৌরসভা সভাপতি শামসুল হক সামু, সাধারণ সম্পাদক এরশাদ চোধুরীসহ জেলা ও পৌরসভার নেতৃবৃন্দ।

এসময় বক্তারা বলেন, গত ১০ সেপ্টেম্বর ২০২২ রোয়াংছড়ি বাজারের পিছনে ভরা খাল নামক ৫ একর খাস জায়গার উপর দুই জন নও-মুসলিমসহ মোট ১৭ পরিবারের জন্য সরকারিভাবে প্রধানমন্ত্রীর উপহার স্বরূপ ঘর নির্মাণ করার জন্য রোয়াংছড়ি সদর ইউপির হেডম্যানের দেখানো মতে উপজেলা প্রশাসন উক্ত খাস জায়গায় সরকারিভাবে ঘর করে দেওয়ার উদ্যোগ নেন ।

প্রথমে ৩৭ শতক জায়গার উপর নও-মুসলিম মশিচন্দ্র ত্রিপুরা , সাং-সাধু হেডম্যান পাড়া, প্রাইপ্রু ত্রিপুরা, সাং-তুলাছড়ি পাড়া,থানা-রোয়াংছড়ি, জেলা-বান্দরবানদের জন্য ঘর নির্মাণের কাজ শুরু করার উদ্যোগ নিলে চিহ্নত উপজাতীয় সন্ত্রাসীদের উস্কানিতে কতিপয় পাড়াবাসী এসে বাঁধা দেয় ও তাদের শশ্মান করবে বলে দাবি করে। বক্তারা বলেন, বান্দরবানসহ তিন পার্বত্য জেলায় হাজার হাজার উপজাতি খ্রিস্টান ধর্মে ধর্মান্তরিত হয়েছে। কিন্তু সেই দিকে উপজাতীয় নেতৃবৃন্দের কোন নজর নেই। একটি বিশেষ মহলের ইন্ধনে শুধু তারা উপজাতি ও বাঙালি মুসলমানদের পেছনে উঠে পড়ে লেগেছে। এসব ঘটনার জের ধরে রোয়াংছড়িতে নও মুসলিমদের গৃহ নির্মাণে বাঁধা দিচ্ছে তারা।

এসময় বক্তারা হুশিয়ারি উচ্চারণ করে বলেন, নও মুসলিমদের ঘর নির্মাণসহ পার্বত্য চট্টগ্রাম বাঙালিদের বিরুদ্ধে সকল ষড়যন্ত্র পার্বত্য চট্টগ্রাম নাগরিক পরিষদ আন্দোলনের মাধ্যমে উচিত জবাব দিবে। যে কােন পরিস্থিতির জন্য প্রশাসন দায়ি থাকবে। এসময় বক্তারা রোয়াংছড়িতে প্রধানমন্ত্রীর উপহারের ঘর নির্মাণ কাজে বাঁধার ঘটনায় প্রধানমন্ত্রীর হস্তক্ষেপ কামনা করেন।

Print Friendly, PDF & Email
Facebook Comment

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

four × 4 =

আরও পড়ুন