বান্দরবানে ব্যবসায়ীকে অপহরণের পর হত্যা মামলায় পাঁচজনের মৃত্যুদণ্ড

fec-image

বান্দরবানে ছোট্ট মিয়া (৪৫) নামে এক গরু ব্যবসায়ীকে অপহরণের পর হত্যার ঘটনায় দায়ের করা মামলায় পাঁচ আসামিকে মৃত্যুদণ্ড ও দশ হাজার টাকা অর্থদণ্ড দিয়েছে জেলা ও দায়রা জজ আদালত। এছাড়াও অপরাধের সাক্ষ্য-প্রমাণ অপসারণ করায় সাত বছরের সশ্রম কারাদণ্ড ও দশ হাজার টাকা জরিমানা অনাদায়ে আরো ছয় মাস কারাদণ্ডের আদেশ দেওয়া হয়।

মঙ্গলবার (২০ সেপ্টেম্বর) দুপুর ১টার দিকে বান্দরবানের জেলা ও দায়রা জজ মো. ফজলে এলাহী ভূইয়া এ রায় ঘোষণা দেন।

দণ্ডপ্রাপ্ত আসামিরা হলেন, রে অং মারমার ছেলে উচিংনু মারমা (২২), মংনুমং এর ছেলে উবা চিং মার্মা (৩০), থোয়াই চিং মং এর ছেলে চিং নু মং প্রকাশ হদা (২৩), মৃত ক্যহ্লা প্রু এর ছেলে মং নু মং প্রকাশ মং নু (৫০)। আসামিরা বান্দরবান সদর উপজেলার লুলাইন হেডম্যান পাড়ার বাসিন্দা। অপর আসামি কুনাক মারমার ছেলে মং থু প্রকাশ মং ক্যাসিং, একই উপজেলার লুলাইন পুর্নবাসন পাড়ার বাসিন্দা।

মামলায় আসামি রে অং মার্মার বিরুদ্ধে অভিযোগ প্রমাণিত না হওয়ায় তাকে বেকসুর খালাস প্রদান করা হয়।

এ ঘটনায় ভিকটিমের ভাই মো. আমজু মিয়া বাদী হয়ে বান্দরবান সদর থানায় এজাহার দায়ের করলে পুলিশ ২০০৭ সালের ৩১ ডিসেম্বর উসিংনু মার্মা, উবা চিং মার্মা, রে অং মার্মা, চিং নু মং প্রকাশ হদা, মং নু মং প্রকাশ মং নু এবং মং থু প্রকাশ মং ক্যাসিংকে অভিযুক্ত করে চার্জশিট দাখিল করেন।

আদালত রাষ্ট্রপক্ষের ১০ জন সাক্ষীর সাক্ষ্য গ্রহণের পর এ রায় দেন। মামলার বাদী মো. আমজু মিয়া রায়ে সন্তুষ্টি প্রকাশ করেন।

অপরদিকে জেলা ও দায়রা জজ আদালতের পিপি অ্যাডভোকেট মো. ইকবাল করিম এ তথ্য নিশ্চিত করে বলেন, আসামি উসিংনু মার্মা, উবা চিং মার্মা, চিং নু মং প্রকাশ হদা, মং নু মং প্রকাশ মং নু ও মং থু প্রকাশ মং ক্যাসিং গরু বিক্রয়ের কথা বলে ভিকটিমকে ঘটনাস্থলে নিয়ে বিক্রয়কৃত গরু না দিয়ে ভিকটিমের নিকট হতে ১২ হাজার টাকা আত্মসাতের জন্য ভিকটিমকে অপহরণ করে গলা কেটে খুন করে। এ ঘটনায় দায়রেকৃত মামলায় সাক্ষ্য-প্রমাণে বিষয়টি প্রমাণিত হয়েছে।

আদালতে উপস্থিত আসামি চিং নু মং প্রকাশ হদাকে জেল হাজতে প্রেরণ করা হয়।

Print Friendly, PDF & Email
ঘটনাপ্রবাহ: আদালত, বান্দরবান, মৃত্যুদণ্ড
Facebook Comment

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

20 + four =

আরও পড়ুন