বান্দরবানে ভিটামিন “এ” প্লাস ক্যাম্পেইন শনিবার উদ্বোধন

জমির উদ্দিন:

বান্দরাবানে ভিটামিন “এ” প্লাস ক্যাম্পেইনের কার্যক্রম শনিবার উদ্বোধন করা হচ্ছে। জেলার দুর্গম এলাকাগুলোতে হেলিকপ্টার ব্যবহার করা হচ্ছে না। সিভিল সার্জন ড. মংতেঝ জনিয়েছেন, জেলার ৭ উপজেলা ও ২টি পৌরসভায় (৩০ টি ইউনিয়ন) ৩ লক্ষ ৭৮ হাজার ৪০ জন জনসংখ্যার মধ্যে ৬-১১ মাসের সকল শিশুকে নীল রঙের এবং ১-৫ বছরের শিশুদের লাল রঙের ভিটামিন এ প্লাস ক্যাপসুল খাওয়ানো হবে। জেলার ৯০ টি ওয়াডে ৮৫১টি কেন্দ্রে ৩৩০৮ জন স্বাস্থ্য কর্মী ও সেচ্ছা সেবক অংশ নিবে।

শনিবার পৌর এলাকার বালাঘাটার সূর্যের হাসি ক্লিনিকের মাঠে সকাল ৯টায় পার্বত্য জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান ক্য শৈ হ্লা প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থেকে ভিটামিন “এ” প্লাস ক্যাম্পেইনের উদ্বোধন করার কথা রয়েছে। ঐদিন থেকে জেলার ৯০টি ওয়াডে ভিটামিন এ প্লাস ক্যাপসুল খাওয়ানোর কার্যক্রম শুরু হবে। শনিবার যে সব শিশুরা ভিটামিন এ প্লাস ক্যাপসুল খাওয়ানো থেকে বাদ পরবে তাদের কে বুধবার পর্যন্ত খুঁজে খঁজে ভিটামিন এ প্লাস ক্যাপসুল খাওয়নো হবে। অথাৎ টানা ৫দিন শিশুদের ভিটামিন এ প্লাস ক্যাপসুল খাওয়ানো হবে।

ড. মংতেঝ জানান, অন্যান্য বছর সেনা বাহিনীর সহায়তায় জেলার দুর্গম এলাকাগুলোতে হেলিকপ্টার ব্যবহারের মাধ্যমে ১৪টি কেন্দ্রে শিশুদের এ প্লাস ক্যাপসুল খাওয়ানো হত । এবারে সেনা বাহিনীর সহায়তা না চাওয়ায় ক্যাম্পেইনে হেলিকপ্টার ব্যবহার হচ্ছেনা।

সূত্র জানায়, সেনা বাহিনীর সহায়তায় দুর্গম এলাকার ছড়িয়ে ছিটিয়ে থাকা বিভিন্ন পাড়ার জন সাধারনকে এক এক জায়গায় জড়ো করে শিশুদের ভিটামিন এ প্লাস ক্যাপসুল খায়ানো হত। এবার জেলা স্বাস্থ্য বিভাগ সেনা বাহিনীর সহায়তা না চাওয়ায় দুর্গম এলাকা হেলিকপ্টার ব্যবহার না হলে কয়েক হাজার শিশু ভিটামিন এ প্লাস ক্যাপসুল খাওয়ানো থেকে বঞ্চিত হওয়ার আশঙ্খা দেখা দিয়েছে। ভিটামিন এ প্লাস ক্যাপসুলের অভাবে কয়েক হাজার শিশুর বিভিন্ন রোগে আক্রান্ত হবার সম্ভাবনা রয়েছে।

Print Friendly, PDF & Email
Facebook Comment

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

2 × 3 =

আরও পড়ুন