বান্দরবানে রাতের আঁধারে ভেঙ্গে গেল রাজ পূন্যাহ মেলার স্টল

বান্দরবান প্রতিনিধি:

মেলা শুরু হওয়ার আগে শেষ রাতের আধারে ভেঙ্গে গেল মেলার সব স্টল। বান্দরবানের ঐতিহ্যবাহী রাজপূণ্যা উৎসবে মেলার অনুমতি দেয়নি প্রশাসন। নির্বাচন চলাকালীন সময়ে তিন দিনব্যাপী মেলা অনুষ্ঠিত হলে তা নির্বাচনের সুষ্ঠ পরিবেশের বিঘ্ন ঘটবে এমন আশঙ্কায় মেলার আয়োজন না করার পরামর্শ দিয়েছেন প্রশাসন।

আগামীকাল অনুষ্ঠিত হচ্ছে বোমাং সার্কেলের ১৪২তম ঐতিহ্যবাহী খাজনা আদায়ের উৎসব। এই উৎসবকে ঘিরে প্রতিবছর বান্দরবান রাজার মাঠে বসে তিন দিনব্যাপী রাজ পূণ্যাহ মেলা। এই মেলায় যোগ দিতে দেশের বিভিন্ন অঞ্চল থেকে হাজারো দর্শনার্থী ও পর্যটকের আগমন ঘটে। খাজনা দিতে আসা প্রজাদের মনোরঞ্জনে মেলাকে ঘিরে সার্কাস, পুতুল নাচ, যাত্রাপালা, নাগরদোলা, হাউজি, স্থানীয় বিভিন্ন পন্যের প্রদর্শনী ও বিভিন্ন পণ্যের বিক্রয়ের স্টল বসে। এবারও দেশের বিভিন্ন অঞ্চল থেকে ব্যবসায়ীরা পণ্য নিয়ে মেলায় পসরা সাজালেও শেষ মুহুর্তে মেলার অনুমতি না পাওয়ায় হতাশ তারা। মেলা বসার অনুমতি না দিলেও বান্দরবানের পুরাতন রাজবাড়ি মাঠে চলবে খাজনা আদায় অনুষ্ঠান।

চট্টগ্রাম থেকে আসা ব্যবসায়ী আব্দুল সালাম বলেন, আমরা চট্টগ্রাম থেকে গাড়ি ভাড়া করে অনেক টাকা খরচ করে মেলায় এসেছি। কিন্তু এখন বলতেছে মেলা হবে না। মেলা না হলে আমাদের অনেক টাকা লোকসান হবে। এই রকম অবস্থা হলে আমর পরবর্তীতে আর আসবোনা।

বান্দরবান পুলিশ সুপার মো. জাকির হোসেন মজুমদার জানান, আসন্ন উপজেলা পরিষদের সুষ্ঠু নির্বাচনের স্বার্থে ঐহিত্যবাহী খাজনা আদায়ের উৎসবে এ বার মেলার বসার অনুমতি দেয়া হয়নি। তবে তাদেরকে নির্বাচনের পরে মেলা বসার পরামর্শ দেয়া হয়েছে।

এ বিষয়ে জেলা প্রশাসক দাউদুল ইসলামের সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি জানান, সামনে নির্বাচন, গোয়েন্দা তথ্যমতে নির্বাচনের আগে তিন দিনব্যাপী মেলা হলে নির্বাচনের সুষ্ঠু পরিবেশে বিঘ্ন ঘটতে পারে। তাই এ বার রাজপূণ্যাহ উৎসবে প্রশাসনের পক্ষ থেকে মেলা বসার অনুমতি দেয়া হয়নি। কিন্তু খাজনা আদায়ের মূল অনুষ্ঠান যথাযথভাবে পালন করা হবে। আর তাতে আমন্ত্রিত অতিথিরা উপস্থিত থাকবেন।

Print Friendly, PDF & Email
Facebook Comment

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

four × 2 =

আরও পড়ুন