বান্দরবানে সন্ত্রাসীদের সাথে গোলাগুলিতে জনসংহতি সমিতির ১ কর্মী নিহত অপহৃত ১

তিন সপ্তাহের ব‌্যবধানে বান্দরবানের তাইংখালী এলাকায় আবারো সন্ত্রাসী তাণ্ডব চালিয়েছে উপজাতীয় সন্ত্রাসীরা। তবে এবার প্রাণ হারিয়েছে একজন। মঙ্গলবার রাতে সন্ত্রাসীদের গুলিতে আঞ্চলিক দল জনসংহতি সমিতি (জেএসএস)র সদস্য বিনয় তঞ্চঙ্গ্যা (৩৫) নামে একজন নিহত হয়। একই ঘটনায় পুরাধন তঞ্চঙ্গ্যা নামে আরেক সদস্যকে অপহরণ করেছে সন্ত্রাসীরা।

মঙ্গলবার রাত সাড়ে ১০টার দিকে বান্দরবানের রাজবিলা ইউনিয়নের তাইংখালী এলাকায় এই ঘটনা ঘটে।

নিহত ব্যক্তির নাম বিনয় তঞ্চঙ্গ্যা (৩৫)। তার বাড়ি রাঙ্গামাটি জেলায়। তাইং খালী বাজারে মুদির ব্যবসা করতেন তিনি।

অপহৃত ব্যক্তির নাম পুরাধন তঞ্চঙ্গ্যা (৩২)। ওই এলাকার ৯নং রাবার বাগানের শৈলতন পাড়া থেকে তাকে ধরে নিয়ে যাওয়া হয়।

এই ঘটনায় তাইংখালী এলাকায় জনসাধারণের মাঝে আতংক দেখা দিয়েছে। সেনাবাহিনী ও পুলিশ টহল দিচ্ছে এলাকায়।

স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, ঘটনার পর এলাকাবাসীর মাঝে আতংক বিরাজ করছে। নিহত বিনয় তঞ্চঙ্গ্যাকে দাদা শ্বশুড়ের বাড়ি থেকে সন্ত্রাসীরা ডেকে নিয়ে গুলি করে হত্যা করে। পরে শৈলতন পাড়ার পুরাধন তঞ্চঙ্গ্যাকে অপহরণ করে নিয়ে যায় উপজাতীয় সন্ত্রাসীরা।

বান্দরবান পুলিশ সুপার জাকির হোসেন মজুমদার ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে জানান, ঘটনার খবর পাওয়ার পর সেখানে পুলিশ পাঠানো হয়েছে। তবে সেনাবাহিনীর সদস্যরাও সেখানে অভিযানে গিয়েছে।

এদিকে জেএসএস এর বান্দরবান জেলা সভাপতি উছোমং মারমা জানিয়েছেন, নিহত ও অপহৃত দুজনই তাদের কর্মী। এই ঘটনার সাথে আরাকান লিবারেশন পার্টি(এএলপি) স্থানীয়ভাবে পরিচিত মগ লিবারেশন পার্টির সম্পৃক্ততা থাকতে পারে বলে তিনি দাবী করেছেন।

উল্লেখ্য গত ১৪ এপ্রিল সন্ত্রাসীরা তাইংখালী বাজারে অংক্যচিং নামের জনসংহতি সমিতির এক নেতাকে গুলি করলে সে মারাত্মক আহত হয়। হঠাৎ করে বান্দরবানের রাঙ্গামাটি সীমান্ত সংলগ্ন রাজবিলা এলাকাটি উত্তপ্ত হয়ে উঠায় সেখানকার জনসাধারণ এখন আতংকের মাঝে দিন কাটাচ্ছে।

Print Friendly, PDF & Email
ঘটনাপ্রবাহ: জেএসএস, নিহত
Facebook Comment

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

5 × four =

আরও পড়ুন