বান্দরবানে সেনা রিজিয়নের ত্রাণ সামগ্রী বিতরণ 

fec-image

বান্দরবান জেলার অন্তর্গত ছাইংগ্যা পাড়া, দনেশপাড়া, রোয়াংছড়ি, বান্দরবান সদরে করোনা ভাইরাস (কোভিড-১৯) এর প্রাদূর্ভাবে লকডাউনে থাকা ১০০টি অসহায় ও দুস্থ পরিবারের মাঝে প্যাকেট ত্রাণ সামগ্রী (চাল-০৫ কেজি, ডাল-০.৬ কেজি, আটা-০২ কেজি, তেল-০.৫ কেজি, লবণ-০.৫ কেজি, সুজি-০.২৫ কেজি এবং বিস্কুট-০১ প্যাকেট) বিতরণ করা হয়েছে।

এ সময় বান্দরবান সেনা রিজিয়ন এর কর্মকর্তা লে. রেজওয়ানসহ অন্যান্য সেনাসদস্য উপস্থিত ছিলেন। এই ত্রাণ বিতরণে বান্দরবান সদরের ফ্রেন্ডস ক্লাব অব বান্দরবান নামক একটি সংগঠন দরিদ্র পরিবারসমূহ চিহ্নিত করার ক্ষেত্রে সেনা সদস্যদের সহায়তা করেন।

সেনা রিজিয়ন এর কর্মকর্তা জানান, ইতিপূর্বে বান্দরবানের পার্বত্য অঞ্চলে বেসামরিক প্রশাসন এর সাথে সমন্বয় পূর্বক বিভিন্ন দূর্গম এলাকাসমূহে বাংলাদেশ সেনাবাহিনী হেলিকপ্টার যোগে ত্রাণ বিতরণ কার্যক্রম পরিচালনা করেছে। দূর্গম এলাকার অসহায় ও দুস্থ পরিবারের সদস্যদের মাঝে স্বস্তি ফিরে আনতে বাংলাদেশ সেনাবাহিনী কর্তৃক ভবিষ্যতেও এ ধরনের কার্যক্রম পরিচালনা করার পরিকল্পনা রয়েছে।

ত্রাণ বিতরণ কার্যক্রমের পাশাপাশি বাংলাদেশ সেনাবাহিনী পার্বত্য অঞ্চলে বিভিন্ন সচেতনতামূলক কার্যক্রম অব্যাহত রেখেছে। পাহাড়ের জনগণের জানমাল রক্ষা ও যে কোন দূর্যোগ মোকাবেলায় বাংলাদেশ সেনাবাহিনী নিরলসভাবে কাজ করে যাচ্ছে এবং সেই ধারাবাহিকতা বজায় রাখতে বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর প্রতিটি সদস্য সদা তৎপর রয়েছে এবং ভবিষ্যতেও থাকবে বলেও জানান।

এদিকে বান্দরবন রিজিয়নের আওতাধীন রুমা জোন (২৭ ইবি) এর তত্বাবধানে রুমা উপজেলায় সেনাবাহিনীর রেশনের অংশ থেকে দুর্গম পাহাড়ি অঞ্চলে গরীব অসহায় দুঃস্থদের মাঝে বাড়ি বাড়ি গিয়ে সামাজিক দূরত্ব বজায় রেখে দরিদ্র জনগোষ্ঠীর হাতে চাল, ডাল, তেল, আটা, আলু, পেঁয়াজসহ খাদ্য সামগ্রী তুলে দেন অত্র জোনের সেনা সদস্যরা। এ সময় সাধারণ মানুষকে সামাজিক দূরত্ব বজায় রেখে চলাফেরার পাশাপাশি বার বার হাত ধোয়া, মাস্ক ব্যবহার করা ও ঘরে থাকার আহ্বান জাননো হয়।
 
উল্লেখ্য, গত ২৪ মার্চ থেকে সিভিল প্রশাসনকে সাথে নিয়ে ওই জোনের সেনা সদস্যগণ মাস্ক, লিফলেট বিতরণ ও রাস্তায়-রাস্তায় জীবাণু নাশক স্প্রে ছিটানো, হোম কোয়ারিন্টাইন নিশ্চিত করণ, সার্বক্ষণিক টহলের মাধ্যমে জনসচেতনতা মূলক প্রচারণা, নিরাপদ দুরত্বে থাকা নিশ্চিতকরণ, বহিরাগমনকৃত গাড়ি প্রবেশ আটকাতে চেকপোস্ট স্থাপনসহ বিভিন্ন ধরণের জনসচেতনতা কমর্কাণ্ডে নিয়োজিত রয়েছে। করোনা পরিস্থিতি মোকাবেলায় রুমা সেনা জোন এর উদ্যোগে এ ধরণের কর্মককাণ্ড ভবিষতেও অব্যাহত থাকবে বলেও জানান।
Print Friendly, PDF & Email
Facebook Comment

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

fifteen − eight =

আরও পড়ুন