বান্দরবান জেলা স্টেডিয়ামে সেনা রিজিয়ন কাপ ফুটবল টুর্নামেন্ট-২০২২ অনুষ্ঠিত

fec-image

বান্দরবান সেনা রিজিয়নের আয়োজনে বান্দরবান জোনের সার্বিক তত্ত্বাবধায়নে বান্দরবান রিজিয়ন কাপ ফুটবল টুর্নামেন্ট -২০২২ অনুষ্ঠিত হয়েছে।

শুক্রবার( ২৪ জুন) বিকাল ৩টার দিকে বান্দরবান জেলা স্টেডিয়ামে এই টুর্নামেন্টের শুভ উদ্বোধন হয়। একই সময়ে আলীকদম জন সদর প্রশিক্ষণ মাঠ ও রুমা সদর প্রশিক্ষণ মাঠে আরও ২ টি খেলা অনুষ্ঠিত হয়েছে।

বান্দরবান রিজিয়ন কাপ ফুটবল টুর্নামেন্টে সর্বমোট আটটি দল অংশগ্রহণ করে। বান্দরবান জেলার ৭টি উপজেলা বান্দরবান সদর, রোয়াংছড়ি, নাইক্ষ্যংছড়ি, থানচি, রুমা, আলীকদম ও লামা হতে একটি করে দল এবং বান্দরবান জেলায় অবস্থিত সামরিক ও বেসামরিক প্রশাসন এর সম্মিলিত নিরাপত্তা বাহিনী দল (বিজিবি ও সেনাবাহিনী) মিলে সর্ব মোট আটটি দল ফুটবল টুর্নামেন্টে অংশগ্রহণ করছে।

বান্দরবান সদর উপজেলা বনাম বান্দরবান রোয়াংছড়ি উপজেলা ফুটবল দলের খেলার মধ্যে দিয়ে বান্দরবান রিজিয়ন কাপ ফুটবল টুর্নামেন্টের শুভ সূচনা হয়েছে।

উদ্বোধনী খেলায় বান্দরবান সদর উপজেলা, রোয়াংছড়ি উপজেলাকে ট্রাইবেকার এর মাধ্যমে পরাজিত করে।

একই সময়ে আলীকদম জোন প্রশিক্ষণ মাঠে বিএ- ৬৮৭৩ লে. কর্নেল মো. মনজুরুল হাসান, পিবিজিএম, পিএসসি প্রধান অতিথি উপস্থিত থেকে আলীকদম উপজেলা ফুটবল দল বনাম লামা উপজেলা ফুটবল দলের খেলা অনুষ্ঠিত হয়। খেলার নির্ধারিত সময়ে ১-১ গোলে সমতা হলে ট্রাইবেকার এর মাধ্যমে আলীকদম ফুটবল দল জয় লাভ করে।

অন্য একটি ম্যাচে রুমা সদর প্রশিক্ষণ মাঠে বিএ- ৭০৮৬ লে. কর্নেল হাছান শাহরিয়ার ইকবাল পিএসসি প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থেকে রুমা উপজেলা দল বনাম থানচি উপজেলা দলের খেলা অনুষ্ঠিত হয়েছে। রুমা উপজেলা দল ৩-০ গোলে থানচি উপজেলা কে পরাজিত করে।

রিজিয়ন ফুটবল টুর্নামেন্ট শুভ উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন মেজর এস. এম. মাহমুদুল হাসান সোহাগ, পিএসসি জোন উপ-অধিনায়ক বান্দরবান জোন। বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বান্দরবান পৌরসভা সম্মানিত মেয়র জনাব মোহাম্মদ ইসলাম বেবি এছাড়াও অত্র রিজিয়নের অফিসারবৃন্দ ও বান্দরবান জেলার ক্রিড়া প্রেমী মানুষ।

উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি তার বক্তব্যে বলেন, খেলার মাঠে আমাদের মধ্যে কোন প্রকার বৈষম্য নাই বরং আমরা সবাই খেলোয়াড়। ফুটবলের মাধ্যমে বিভেদ নয় বরং ঐক্য গড়ে তুলতে হবে। সকলকে একযোগে কাজ করে ফুটবলকে আরও সামনে এগিয়ে নিয়ে যেতে হবে। ফুটবলের মাধ্যমে পাহাড়ের সাম্প্রদায়িক-সম্প্রীতি সুদৃঢ় করতে হবে।

তিনি বলেন, বর্তমান সময়ে গ্রাম গঞ্জে মাঠে-ঘাটে খেলাধুলা বিষয়টি বিলুপ্তির পথে। যে বয়সে তরুণ প্রজন্মদের মাঠে থাকার কথা সে বয়সে তারা অন্যথায় অপ্রয়োজনে সময় নষ্ট করে বিপথগামী হচ্ছে। খেলার মাঠ যেমন শারীরিক কাঠামো বজায় রাখার জন্য বিশেষ ভূমিকা পালন করে পাশাপাশি মনকে প্রফুল্ল রাখতেও সাহায্য করে।

খেলাধুলা চর্চার সঙ্গে জড়িত থাকলে কোন যুবক-যুবতী অসামাজিক কর্মকাণ্ডে লিপ্ত হতে পারে না তাই যুব সমাজকে লেখাপড়ার পাশাপাশি সাহিত্য সংস্কৃতি ও খেলাধুলার মাঠে ফিরিয়ে নিতে হবে। তবেই জাতিকে কিছু দেয়া সম্ভব হবে। আজকের এই খেলার মধ্য দিয়ে আমরা সাম্যের গীত গিয়ে সামনের দিকে এগিয়ে যেতে চাই ।পাশাপাশি ভবিষ্যতে এধরনের খেলা চলমান রাখার আশ্বাস দেন।

বিশেষ অতিথি হিসেবে বান্দরবান পৌরসভার মেয়র জনাব মো. ইসলাম বেবি বলেন, সেনাবাহিনীর বরাবরই দেশ ও দশের জন্য সর্বদা নিবেদিত প্রাণ। আজকের খেলার আয়োজন করায় বান্দরবান রিজিয়নকে বিশেষভাবে ধন্যবাদ জ্ঞাপন করেন। পাশাপাশি বর্তমানের ন্যায় ভবিষ্যতেও এ ধরনের কার্যক্রমকে চলমান রাখার আহ্বান জানান।

Print Friendly, PDF & Email
Facebook Comment

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

18 − five =

আরও পড়ুন