বিজিবির অভিযান: বছরে ৫১ লাখ ৯০ হাজার ইয়াবা উদ্ধার

fec-image

কক্সবাজারের উখিয়া ও নাইক্ষ্যংছড়ির সীমান্ত এলাকা থেকে গত ১ বছরে ৫১লাখ ৯০ হাজার ২৭ পিস ইয়াবা উদ্ধার করেছে বর্ডার গার্ড বাংলাদেশ- বিজিবির কক্সবাজারস্থ ৩৪ ব্যাটালিয়নের সদস্যরা।

২০২১ সালের জানুয়ারি থেকে চলতি ২০২২ সালের ১৩ জানুয়ারি পর্যন্ত এসব ইয়াবা উদ্ধার করা হয়। এসব অভিযানে ২১৬ জন পাচারকারিকে আটক করা হয়েছে।

বৃহস্পতিবার দুপুরে কক্সবাজার ৩৪ বিজিবি কার্যালেয় অনুষ্ঠিত সংবাদ সম্মেলনে এই তথ্য জানিয়েছেন অধিনায়ক লে. কর্ণেল মো. মেহেদি হােসাইন কবির।

তার দেয়া হিসাব মতে, ৫১লাখ ৯০ হাজার ২৭ পিস ইয়াবার মূল্য এক’শ পঞ্চান্ন কোটি টাকা।

উখিয়া ও নাইক্ষ্যংছড়ি মায়ানমার সীমান্ত এলাকাসহ নিজেদের আওতাধীন বিভিন্ন এলাকায় অভিযান চালিয়ে এসব ইয়াবা উদ্ধার করা হয় বলে জানান অধিনায়ক লে. কর্ণেল মো. মেহেদি হােসাইন কবির।

সংবাদ সম্মেলনে জানানো হয়, সর্বশেষ বৃহস্পিবার (১৩ জানুয়ারি) ভোরে এক অভিযানে কক্সবাজার ব্যাটালিয়ন (৩৪ বিজিবি) এর অধীনস্থ পালংখালী বিওপির সীমান্ত এলাকায় বিজিবির সাথে চোরাকারবারী সন্ত্রাসীদের মধ্যে গোলাগুলি হয়েছে। সীমান্তে টহলদলের উপস্থিতি টের পেয়ে চোরাকারবারিররা বিজিবির সদস্যদের লক্ষ্য করে গুলি ছুঁড়ে। বিজিবি সদস্যরাও পাল্টা গুলি ছুঁড়ে। এসময় বিজিবি ২০ রাউন্ড গুলি ছুঁড়ে। এক পর্যায়ে পাচারকারীরা পালিয়ে গেলে ঘটনাস্থল থেকে ১৮ হাজার ইয়াবা উদ্ধার করে বিজিবি সদস্যরা।

সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে অধিনায়ক লে. কর্ণেল মো. মেহেদি হােসাইন কবির বলেন, সীমান্তে মাদক চোরাচালান ও মানবপাচার ঠেকাতে নিচ্ছিদ্র নিরাপত্তা জোরদার রেখেছে বিজিবি। তারপরও নানা কৌশলে দেশে ইয়াবা ঢুকাচ্ছে পাচারকারীরা। তবে তার চেয়ে বহু গুণ চালান পাচার প্রতিরোধ করছে বিজিবি।

Print Friendly, PDF & Email
Facebook Comment

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

2 × 2 =

আরও পড়ুন