বয়োবৃদ্ধকে বিবস্ত্র করে নির্যাতনের ঘটনায় ৮জনের বিরুদ্ধে মামলা: গ্রেফতার ৩

fec-image

কক্সবাজারের চকরিয়ায় উপজেলার ঢেমুশিয়া ইউনিয়নে প্রবীণ আওয়ামী লীগ নেতা নুরুল আলমকে (৭২) পরণের লুঙ্গি-গেঞ্জি ছিঁড়ে প্রকাশ্যে বিবস্ত্র নির্যাতনের ঘটনায় ইউনিয়ন পরিষদের এক নারী সদস্যসহ আটজনের বিরুদ্ধে চকরিয়া থানায় মামলা রুজু করা হয়েছে। নির্যাতনের শিকার আহত নুরুল আলমের ছেলে আশরাফ হোছাইন বাদী হয়ে এজাহার থানায় জমা দেওয়ার পর মঙ্গলবার রাতে চকরিয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) হাবিবুর রহমান এজাহারটি মামলায় রেকর্ড করেন।

মামলার এজাহারনামীয় আসমীরা হলেন উপজেলার ঢেমুশিয়া ইউনিয়ন পরিষদের নারী সদস্য আরেজ খাতুন (৪৮) ও তার স্বামী মো. শাহ আলম (৫২), ঘটনার মূলহোতা আনছুর আলম (৩৭), বদিউল আলম (৫৫), বদিউল আলমের ছেলে মিজানুর রহমান (২৮), আবদুল জাব্বারের ছেলে রিয়াজ উদ্দিন (৩২), জয়নাল আবেদিন (৩০) ও মনজুর আলমের ছেলে মো. রুবেল (২৮)।

মামলা রুজু হবার বিষয়টি নিশ্চিত করে চকরিয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো.হাবিবুর রহমান বলেন, ‘বৃদ্ধকে মারধর ও লাঞ্ছিতের ঘটনাটি সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে প্রকাশ হওয়ার সঙ্গে সঙ্গে এসপি মহোদয়ের নজরে আসে। তিনি বিষয়টি দ্রুত আইনি প্রক্রিয়ায় নিয়ে যাওয়ার জন্য নির্দেশ প্রদান করেন। ভুক্তভোগীদের সঙ্গে কথা বলে মামলাটি রেকর্ড করা হয়েছে।’

তিনি বলেন, নির্যাতনের ভিডিও ফুটেজ দেখে থানা পুলিশের আলাদা টিম জড়িতদের গ্রেফতারে রাতভর অভিযান পরিচালনা করেন। অভিযানে ঘটনার মুলহোতা আনছুর আলমের ভাতিজা ঢেমুশিয়া ইউনিয়নের ছয়কুড়িটিক্কা পাড়া গ্রামের বদিউল আলমের ছেলে মোহাম্মদ ফারুক (১৯), নিজাম উদ্দিনের ছেলে বেলাল হোসেন (২৩) এবং বদরখালী ইউনিয়নের মীর আফজলের ছেলে কাইছার উদ্দিন (১৯) নামের তিনজনকে গ্রেফতার করা হয়েছে। তাদেরকে বুধবার জেলহাজতে পাঠিয়েছে আদালত।

ওসি আরও বলেন, ঘটনার মুলহোতা আনছুর আলমসহ জাহারনামীয় আসামিদের ধরতে পুলিশের বেশ কয়েকটি টিম ইতোমধ্যে কাজ করছেন। অপরাধী যে দলেরই হোক তাদের ছাড় দেওয়া হবে না।

Print Friendly, PDF & Email
ঘটনাপ্রবাহ: গ্রেফতার, নির্যাতনের, বয়োবৃদ্ধকে
Facebook Comment

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

four × one =

আরও পড়ুন