ভারতে বহুতল ভবন ধসে আহত ১৫

fec-image

ভারতের পশ্চিম উপকূলীয় রাজ্য গুজরাটে ছয়তলা বিশিষ্ট বহুতল একটি ভবন ধসে পড়েছে। কয়েক দিনের ভারী বর্ষণের কারণে গুজরাটের সচিন পালি গ্রামে ভবন ধসের এই ঘটনায় অনেকেই ধ্বংসস্তূপের নিচে আটকা পড়েছেন আশঙ্কা করা হচ্ছে। এছাড়া ধ্বংসস্তূপের নিচ থেকে অন্তত ১৫ জনকে আহত অবস্থায় উদ্ধার করা হয়েছে বলে দেশটির সরকারি কর্মকর্তারা জানিয়েছেন।

ভারতীয় সংবাদমাধ্যম এনডিটিভি বলেছে, গুজরাটে ধসে যাওয়া ভবনের নিচে থেকে এক নারীকে জীবন্ত উদ্ধার করা হয়েছে। একই সঙ্গে ভবনের ধ্বংসস্তূপে আটকা পড়া আরও ১৫ জনকে উদ্ধার করেছে কর্তৃপক্ষ।

ধসে যাওয়া ভবনের ভিডিওতে দেখা যায়, মাত্র ৮ বছর আগে নির্মিত ভবনটির স্থানে বিশাল ধ্বংসস্তূপ তৈরি হয়েছে। সেখানে কংক্রিটের বড় বড় স্ল্যাব ধ্বংসস্তূপের পাহাড়ে ধ্বংসাবশেষের ওপর পড়ে আছে।

এনডিটিভি বলেছে, শনিবার দুপুরের দিকে ভবনটি ধসে পড়ার সময় এর ভেতরে অন্তত পাঁচটি পরিবার ছিল। কংক্রিটের ধ্বংসস্তূপে কয়েকজন আটকা পড়েছেন বলে আশঙ্কা করা হচ্ছে।

গুজরাটের পুলিশ ও ফায়ার সার্ভিসের কর্মীরা ঘটনাস্থলে গিয়ে আটকা পড়াদের সন্ধানে উদ্ধার অভিযান শুরু করেছে। ভিডিওতে দেখা যায়, উদ্ধারকারী কর্মকর্তারা ধ্বংসস্তূপ সরিয়ে ভবনটির ভেতরে প্রবেশের চেষ্টা করেছেন। তারা জীবিতদের সন্ধানে ব্যাপক তল্লাশি শুরু করেছেন।

ভবন ধসের এই ঘটনায় উদ্ধার অভিযানে সহায়তা করতে দেশটির জাতীয় দুর্যোগ মোকাবিলা বাহিনীর (এনডিআরএফ) একটি দলবে ডাকা হয়েছে। ভবনটি চোখের সামনে কীভাবে ভেঙে পড়েছে ভয়াবহ সেই অভিজ্ঞতার কথা জানিয়েছেন স্থানীয়রা। তারা বলছেন, চোখের সামনেই মুহূর্তের মধ্যে ভবনটি হুড়মুড়িয়ে ভেঙে পড়ে। এ সময় সেখানে ব্যাপক বিশৃঙ্খল পরিস্থিতি তৈরি হয়। লোকজন ধ্বংসস্তূপের নিচে আটকা পড়াদের জীবন বাঁচাতে সেখানে ছুটে যান।

গুজরাটের স্থানীয় কর্মকর্তারা বলেছেন, ধসে যাওয়া ভবনটি বেশি পুরোনো না হলেও জরাজীর্ণ অবস্থায় ছিল। যে কারণে সেখানকার বেশিরভাগ ফ্ল্যাটই খালি ছিল।

সুরাটের জেলা প্রশাসক ডা. সৌরভ পারঘি বলেছেন, ‌‌‘‘ছয়তলা একটি ভবন ধসে পড়েছে। আমরা কিছুক্ষণ আগে একজন নারীকে উদ্ধার করেছি। তার মতে, আরও চার থেকে পাঁচজন ভেতরে আটকা থাকতে পারেন। কয়েক ঘণ্টার মধ্যে বাকিদের উদ্ধার করতে পারবো বলে আমরা আশা করছি।’’

সুরাট পুলিশের কমিশনার অনুপম সিং গেহলতও ধ্বংসাবশেষের নিচে আটকা পড়াদের আজ রাতের মধ্যে উদ্ধারের বিষয়ে আশাপ্রকাশ করেছেন। তিনি বলেন, ‘‘আমরা ধ্বংসস্তূপের নিচ থেকে জীবিতদের আওয়াজ শুনতে পাচ্ছি। এক বা দুই ঘণ্টার মধ্যে তাদের উদ্ধার করা হবে।’’ প্রশাসন ভবন ধসের এই ঘটনায় তদন্ত শুরু করেছে বলে জানিয়েছেন তিনি।

সূত্র: এনডিটিভি, টাইমস অব ইন্ডিয়া।

Print Friendly, PDF & Email
ঘটনাপ্রবাহ: আহত, ভবন ধস, ভারত
Facebook Comment

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আরও পড়ুন