ভূমিদস্যু ও হয়রানির বিরুদ্ধে পানছড়ি বাজার ব্যবসায়ীদের মানববন্ধন

fec-image

বিভিন্ন ধরনের হুমকি-ধামকি, ভূমি জবর দখল ও হয়রানি থেকে পরিত্রাণ পেতে আব্দুল করিমের বিরুদ্ধে মানববন্ধন করেছে খাগড়াছড়ির পানছড়ি এলাকাবাসী ও ব্যবসায়ীরা। অভিযুক্ত আব্দুল করিম পানছড়ি বাজারের প্রয়াত আবদুল হাকিমের সন্তান।

শনিবার (২০ আগস্ট) সকাল সাড়ে ৯টা থেকে পানছড়ি বাজারের প্রধান সড়কে এই মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়।

বিক্ষুদ্ধ জনগণ ও ব্যবসায়ীরা সকাল থেকে ব্যবসা প্রতিষ্ঠান বন্ধ রেখে মানববন্ধনে অংশ নেয়। মানববন্ধন থেকে আব্দুল করিমের হয়রানি বন্ধে প্রশাসনের দৃষ্টি আকর্ষণ করে বিচার দাবি করেন ব্যবসায়ী নেতারা। একই সাথে বাজারে প্রকাশ্যে আগুন দেওয়ার হুমকি দেয় বলেও অভিযোগ তোলেন আব্দুল করিমের বিরুদ্ধে।

পানছড়ি সদর ইউনিয়ন পরিষদের সাবেক চেয়ারম্যান নাজির হোসেনের সঞ্চালনায় এ সময় বক্তব্য রাখেন পানছড়ি বাজারের প্রবীণ ব্যবসায়ী জয় প্রসাদ দেব, মোহাম্মদ হোসেন, সমীর সাহা, উত্তম কুমার দেব ও অভিযুক্ত আব্দুল করিমের ভাই মো. দুলাল মিয়া।

মানববন্ধনে বক্তারা বলেন, বাজারে দোকানের প্লট, সাধারণ মানুষ ও আত্মীয়দের ভূমি জবর-দখল করার অভিযোগ আব্দুল করিমের নতুন কোন ঘটনা নয়। একেক সময় একেক জনের বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্রমূলক অপতৎপরতা চালিয়ে যাচ্ছে বলে বক্তারা জানান।

একই সাথে পানছড়ি বাজারের বন্দোবস্তী মামলা নং-০১ (ডি) ৮৭-৮৮ (পানছড়ি) এর ভূমি অধিগ্রহণ ও প্রজাস্বত্ব আইন ১৯৫০ এর ১৪৩ ধারা মতে জমির বিক্রেতা হিসেবে জেলা প্রশাসক খাগড়াছড়ি কর্তৃক ক্রেতা বাজার ফান্ড প্রশাসক (পানছড়ি বাজার সম্প্রসারণ প্রকল্প) এর নামে ১.১৩ একর ভূমি রেকর্ড সংশোধন আদেশ পাওয়ার প্রেক্ষিতে রেকর্ড সংশোধন করা হয়। ১৯৯৫৩৮ নং খতিয়ান সৃজন করা হয়। উক্ত প্লট দীর্ঘ দিন যাবত ব্যবসায়ীরা ভোগ-দখল করে ব্যবসা পরিচালনা করে আসছে। যা নিয়মিত রাজস্ব কর পরিশোধ করে আসছে বলেও জানান ব্যবসায়ী নেতৃবৃন্দরা।

আব্দুল করিম আগুন লাগিয়ে দোকান পুড়িয়ে দিবে বলেও হুমকি দিয়েছে বলে বক্তারা অভিযোগ করেন। ফলে বাজার ব্যবসায়ীরা আতঙ্কে রয়েছে। আব্দুল করিম বিভিন্ন সময় জাল দলিল তৈরী করে অন্যের জায়গা দখল, মামলা ও তার অত্যাচারে অতিষ্ঠ হয়ে উঠেছে বলেও দাবি করেন ব্যবসায়ী নেতারা। তাই অচিরেই তার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা গ্রহণসহ আইনের আওতায় আনার দাবি করা হয় মানববন্ধন থেকে।

মানববন্ধন শেষে উপজেলা প্রশাসনের মাধ্যমে জেলা প্রশাসক বরাবর স্মারকলিপি প্রদান করা হবে বলে জানান ভুক্তভোগী ব্যবসায়ীরা।

এ ব্যাপারে আব্দুল করিম জানান, এই মানববন্ধন আসলে ভিত্তিহীন। আমাকে হয়রানি করার জন্যই একটি মহল মূলত এসব করছে।

Print Friendly, PDF & Email
ঘটনাপ্রবাহ: মানববন্ধন
Facebook Comment

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

5 × 4 =

আরও পড়ুন