মহেশখালীতে প্রশাসনের অভিযানে স্কেভেটর জব্দ

fec-image

পাহাড়ি দ্বীপ মহেশখালীতে দীর্ঘদিন ধরে দেদারসে অবৈধভাবে পাহাড় কাটলেও প্রশাসনের অভিযান তেমন চোঁখে পড়তে না। ফলে বিভিন্ন স্পটে পাহাড় কাটার বিষয়ে বিভিন্ন গণমাধ্যমে সংবাদ প্রকাশ হলে অভিযানে নামে উপজেলা প্রশাসন।

শনিবার (২০ আগস্ট) বিকালে ছোট মহেশখালীর লম্বায় ঘোনা এলাকার আশরাফ আলীর ঘোনায় মহেশখালী উপজেলা সহকারী কমিশনার ভূমি সাইফুল ইসলামের নেতৃত্বে অভিযান পরিচালনা করা হয়। এসময় পাহাড় কাটায় ব্যবহৃত একটি স্কেভেটর জব্দ করা হয়।

বিষয়টি নিশ্চিত করেন অভিযান পরিচালনাকারী সহকারী কমিশনার ভূমি মো. সাইফুল ইসলাম। তিনি জানান, গোপন সংবাদের ভিত্তিতে অভিযান চালিয়ে পাহাড়কাটা অবস্থায় একটি স্কেভেটর আটক করা হয়। এসময় যারা পাহাড় কাটছে তারা পালিয়ে যায়। এ পাহাড় খেকোদের বিরুদ্ধে অভিযান অব্যাহত থাকবে বলে নিশ্চিত করেন তিনি।

স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, মহেশখালী উপজেলার বিভিন্ন ইউনিয়নে চিহ্নিত পাহাড় খেকোরা পাহাড় কেটে মাঠি বিক্রি করে মহেশখালীকে ধ্বংস করে আসছিল। এনিয়ে গণমাধ্যমে একাধিক সংবাদ প্রকাশ হয়। এলাকার লোকজন পাহাড় রক্ষার দাবিতে প্রশাসনের দৃষ্টি আকর্ষণ করে বিভিন্ন ভাবে প্রতিবাদ জানিয়ে আসছিল দীর্ঘদিন ধরে।

ছোট মহেশখালী থেকে স্থানীয়রা জানান, রাতে ও দিনে ছোট মহেশখালী ইউনিয়ের চিহ্নিত পাহাড় খেকোরা কতিপয় প্রশাসন ও বন বিভাগের লোকজনকে মাসোহারা দিয়ে দিনরাত ছোট মহেশখালী বিভিন্ন পাহাড় কেটে মাটি বিক্রি করে আসছে। সম্প্রীতি ইউনিয়নের লম্বা ঘোনার আশরাফ আলী ঘোনায় একটি পাহাড়ের অর্ধেক অংশ কেটে ফেলা হয়েছে। ওই পাহাড়ের গাছপালা কেটে বাইরে বিক্রি করা হয়। কয়েকটি কাটা ও অর্ধ কাটা গাছ পাহাড়ের পাদদেশে পড়ে রয়েছে বলে জানান স্থানীয়রা।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক এলাকার লোকজন জানান, পাহাড়ের জমি জনৈক আয়ুব আলীর দখলে রয়েছে। তার সাথে আতাত করে স্থানীয় ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান রিয়ান সিকদারের ভাই জাহেদ সিকদার নামের এক প্রভাবশালী ব্যক্তি স্কেভেটার দিয়ে মাটি কেটে তা অন্যত্র বিক্রি করছে।

এবিষয়ে ছোট মহেশখালী ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান রিয়ান সিকদারের বক্তব্য নিতে তার মুঠোফোনে একাধিকবার কল দিলেও সংযোগ না দেওয়ায় বক্তব্য নেওয়া সম্ভব হয়নি।

উল্লেখ্য বিগত কয়েক মাসে আগে পাহাড় কাটার দায়ে ছোট মহেশখালীর চেয়ারম্যান রিয়ান সিকদারকে ৫০ হাজার টাকা জরিমানা করেছিল মহেশখালী উপজেলা প্রশাসন। এছাড়াও বেশ কয়েকবার তার পরিবারের মাটি কাটার ডাম্পার জব্দকরে বিভিন্ন জরিমানা করেছে বলে জানা যায়।

Print Friendly, PDF & Email
Facebook Comment

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

1 × three =

আরও পড়ুন