মহেশখালীতে মৎস্য অবতরণ কেন্দ্র স্থাপনে জাপানী টিম

fec-image

মৎস্য উঠানো-নামানো এবং ক্রয়-বিক্রয়ের সুবিধার্থে মহেশখালীর মৎস্যজীবীদের ভাগ্য ফিরাতে সরকার মহেশখালীতে একটি মৎস্য আহরণ কেন্দ্র স্থাপনের উদ্যোগ নিয়েছেন। এ কেন্দ্র স্থাপনের জন্য প্রাথমিকভাবে স্থান যাচাই-বাছাই প্রক্রিয়া শুরু হয়েছে। স্থান পরিদর্শনের জন্য জাপানী দুই সদস্যসহ মৎস্য অধিদপ্তরের একটি টিম আজ (৬ অক্টোবর) সকাল থেকে মহেশখালীর কয়েকটি স্থান পরিদর্শন করেন।

এ পরিদর্শন টিমে ছিলেন, জায়কার সহযোগিতায় জাপানী নাতা হাসি ও ইবেতা, মৎস্য অধিদপ্তরের সাবেক ডিজি এ এম গুলজার, জেলা মৎস্য কর্মকর্তা এসএম খালেকুজ্জামান, মহেশখালী উপজেলা সিনিয়র মৎস্য কর্মকর্তা মো. আবদুর রহমান খান, মেরিন ফিশারিজ অফিসার মো. আলাউদ্দীন আহসান ও উপজেলা মৎস্য অফিসের সহকারী রবি চাকমা।

এ পরিদর্শন টিমটি দুপুরে মহেশখালী ডিজিটাল আইল্যান্ড সেন্টার সংলগ্ন স্থানে মহেশখালী পৌরসভার মেয়র আলহাজ্ব মকছুদ মিয়া’র সাথে সৌজন্য সাক্ষাৎ করেন। মেয়র আলহাজ্ব মকছুদ মিয়া উক্ত পরিদর্শন টিমকে স্বাগত জানান।

এসময় উপস্থিত ছিলেন, মহেশখালী উপজেলা মৎস্যজীবী লীগের সাধারণ সম্পাদক মিজানুর রহমান, মহেশখালী পৌরসভার কাউন্সিলর খায়ের হোসেন, সাবেক কাউন্সিলর এবাদুল করিম বাদল ও জয়নাল আবেদীন।

উক্ত পরিদর্শক টিমের পরিদর্শনকৃত স্থান গুলো হলো-মহেশখালী জেটি সংলগ্ন পুরাতন বি আই ডব্লিউ ঘাট, কুতুবুজমের তাজিয়া কাটাঘাট ও ঘটিভাঙ্গা ঘাট।

জেলা মৎস্য কর্মকর্তা এসএম খালেকুজ্জামান বলেন, মহেশখালীতে প্রায় ১৭ হাজার জেলে রয়েছে। কয়েকশত বিভিন্ন ধরনের মৎস্য আহরণের বোট রয়েছে। মৎস্য উঠানো-নামানে এবং ক্রয়-বিক্রয়ের সুবিধার্থে মহেশখালীতে স্থাপন করা হবে মৎস্য অবতরণ কেন্দ্র, এটি স্থাপন করা হলে এই এলাকার মৎস্যজীবীদের ভাগ্য পরির্বতন হবে।

Print Friendly, PDF & Email
Facebook Comment

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

20 − seven =

আরও পড়ুন