মহেশখালীর হোয়ানকে লবণ ব্যবসায়ীকে চাঁদার দাবিতে কুপিয়ে জখম!

fec-image

মহেশখালী উপজেলার হোয়ানকে সন্ত্রাসীরা এক লবণ ব্যবসয়ীকে চাঁদার দাবিতে মারাত্মকভাবে কুপিয়ে জখম করেছে। ওই ব্যবসায়ির মাথায় দায়ের কোপের জখম গুরুতর হওয়ায় তাকে কক্সবাজার মেড়িকেল কলেজ হাসপাতালে প্রেরণ করা হয়েছে।

বৃহস্পতিবার (২৯ আগস্ট) সন্ধ্যা সাড়ে ৬ টায় উপজেলার হোয়ানক ইউনিয়নের ধলঘাটপাড়া নজরুলের দোকানের সামনে এ ঘটনা ঘটে।

স্থানীয়দের ভাষ্য মতে, হোয়ানকের ধলঘাট পাড়া এলাকার জিন্নাত আলীর পুত্র নজির আহমদ ও আবু তালেবের পুত্র আবু বক্কর দীর্ঘদিন থেকে লবণ ব্যবসায়ী আলী আহমদের নিকট বিভিন্ন অযুহাতে চাঁদা দাবি করে আসছে। স্থানীয় এ ব্যবসায়ী তাদের দাবিকৃত টাকা দিতে অপারগতা প্রকাশ করায় বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় নজির আহমদ ও আবু বক্করের নেতৃত্বে আলী আহমদ (৪৮) কে গতিরোধ করে। তার নিকট ৫ হাজার টাকা চাঁদা দাবি করলে কেন চাঁদা দিতে হবে এ কথা বলার মুহুর্তে তারা পূর্ব পরিকল্পিত ভাবে আলী আহমদকে মাথায় কুপিয়ে মারাত্মক জখম করে এবং শরীরের বিভিন্ন জায়গায় মারধর ও রক্তাক্ত করে পালিয়ে যায়।

স্থানীয় লোকজন তাকে দ্রুত মহেশখালী হাসপাতালে নিয়ে আসলে কর্তব্যরত চিকিৎসক আলী আহমদকে কক্সবাজার মেড়িকেল কলেজ হাসপাতালে রেফার করে। এ ঘটনায় ধলঘাট পাড়া এলাকায় চরম উত্তেজনা ও আতঙ্ক বিরাজ করছে।

এদিকে স্থানীয় এলাকাবাসি আরো জানায় নজির ও বক্করের নেতৃত্বে একটি সন্ত্রাসী গ্রুপ ধলঘাট পাড়া এলাকার পার্শ্ববর্তী লবণ মাঠ, চিংড়ী ঘের ও পাহাড়ের বিভিন্ন বাগান বাড়িতে অবস্থান করে। তাদের দাবিকৃত চাঁদা দিতে অস্বীকৃতি জানালে যে কোন ধরনের লোকজনকে মারধর, নাজেহাল ও হুমকি, ধমকি দিয়ে থাকে।

সরকারের উন্নয়ন প্রকল্পের লোকদেরকেও বিভিন্ন অযুহাতে তারা চাঁদা দিতে দাবি জানায়। এ সকল সন্ত্রাসীদের বিরুদ্ধে পুলিশী এ্যাকশন জরুরি হয়ে পড়েছে। এ ব্যাপারে মহেশখালী থানার ওসি প্রভাষ চন্দ্র ধর জানায় হোয়ানকের ধলঘাট পাড়ায় একটি মারামারির সংবাদ পেয়েছি। আহত ব্যক্তিকে দ্রুত চিকিৎসা করতে পরামর্শ দেওয়া হয়েছে, অপরাধীদের ধৃত করতে পুলিশের অভিযান অব্যাহত রয়েছে।

Print Friendly, PDF & Email
ঘটনাপ্রবাহ: কক্সবাজার মেড়িকেল কলেজ হাসপাতাল, কুপিয়ে জখম, হোয়ানকে
Facebook Comment

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

four × three =

আরও পড়ুন