মাটিরাঙায় ৪ সন্তানের মাকে ধর্ষণের পর হত্যা, আসামির স্বীকারোক্তি

fec-image

খাগড়াছড়ির মাটিরাঙা উপজেলার পশ্চিম মুসলিমপাড়া (নজরুলের টিলা) এলাকায় চার সন্তানের জননীকে (৪৫) ধর্ষণের পর হত্যার অভিযোগ উঠেছে। ঘটনার ১০ দিন পর শুক্রবার (২৪ ডিসেম্বর) দুপুরে পুলিশ ঘটনার সঙ্গে জড়িত থাকার অভিযোগে একই উপজেলার রমিজ কেরানীপাড়া এলাকার আবুল কালাম ওরফে রদ্দা কালামকে (৪৮) গ্রেফতার করেছে।

মাটিরাঙা থানার ওসি জানান, আবুল কালাম আজ বিকালে আদালতে স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দিয়েছে। খাগড়াছড়ি চিফ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতের জ্যেষ্ঠ বিচারক সেঁজুতি জান্নাত ফৌজদারি কার্যবিধির ১৬৪ ধারায় এই জবানবন্দি রেকর্ড করেন।

ওসি বলেন, ‘‘আদালতে দেওয়া স্বীকারোক্তিতে আবুল কালাম বলেছে, ‘ভুক্তভোগীর তিন ছেলে ও এক মেয়ে বিভিন্ন স্থানে কাজ করার সুবাদে বাইরে থাকতেন। ওই নারী একাই বাড়িতে থাকতেন। সেই সুযোগে গত ১৫ ডিসেম্বর রাত ৯টার দিকে সে ওই নারীকে একা পেয়ে বিয়ের প্রস্তাব দেয়। এতে রাজি না হওয়ায় প্রথমে তাকে ধর্ষণ করে এবং পরে বালিশ চাপা দিয়ে হত্যা করে পালিয়ে যায়।’ ওই নারীর স্বামী মারা গেছে।’’

খাগড়াছড়ির পুলিশ সুপার মোহাম্মদ আবদুল আজিজ জানান, পুলিশ ২২ ডিসেম্বর ওই নারীর অর্ধগলিত লাশ উদ্ধার করে। একই দিন ভুক্তভোগীর বড় ছেলে বান্দরবান থেকে মাটিরাঙায় এসে অজ্ঞাতদের আসামি করে মামলা করেন। পুলিশ তথ্যপ্রযুক্তির মাধ্যমে কালামকে গ্রেফতার করে জিজ্ঞাসাবাদ করলে হত্যার সঙ্গে জড়িত মর্মে স্বীকারোক্তি দেয়।’

Print Friendly, PDF & Email
Facebook Comment

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

3 × 4 =

আরও পড়ুন