মাটিরাঙা পৌরসভাকে শতভাগ উন্নয়নের আওতায় আনার ঘোষণা মো. শামছুল হকের

fec-image

মাটিরাঙা পৌরসভাকে শতভাগ উন্নয়নের আওতায় নিয়ে আসাসহ অগ্রাধিকার ভিত্তিতে মাটিরাঙা পৌর এলাকায় একটি উচ্চ বিদ্যালয় প্রতিষ্ঠা, পৌর টার্মিনাল নির্মাণ, পৌর এলাকায় শতভাগ আলোকরণ এবং সুপেয় পানীয় জলের ব্যাবস্থা গ্রহণ করা হবে জানিয়ে ১৪ ফেব্রুয়ারি অনুষ্ঠিত মাটিরাঙ্গা পৌরসভা নির্বাচনে মেয়র পদে পৌরবাসীর ভোট চাইলেন আওয়ামী লীগ মনোনীত নৌকা প্রতীকের প্রার্থী মো. শামছুল হক।

সোমবার (১ ফেব্রুয়ারি) সকালের দিকে মাষ্টার পাড়ায় নিজ বাসভবনে সাংবাদিকদের সাথে মতবিনিময়কালে মাটিরাঙা পৌরসভা নির্বাচনে মেয়র পদে আওয়ামী লীগ মনোনীত নৌকা প্রতীকের প্রার্থী মাটিরাঙা উপজেলা আওয়ামী লীগের সাবেক সভাপতি মো. শামছুল হক এসব কথা বলেন।

চতুর্থ ধাপে আগামী ১৪ ই ফেব্রুয়ারি অনুষ্ঠিতব্য মাটিরাঙ্গা পৌরসভা নির্বাচনে অবাধ, সুষ্ঠু ও প্রভাবমুক্ত নির্বাচনের মাধ্যমে নৌকা প্রতীক জয়ী হবে, এমন আশাবাদ ব্যাক্ত করে মো. শামছুল হক, মাটিরাঙ্গা পৌরসসভায় শতভাগ উন্নয়নের লক্ষ্যে এলজিইডি-তে ১৭৭টি প্রকল্প দাখিল করা হয়েছে, নির্বাচনের পর পরই এসব উন্নয়ন কাজ বাস্তবায়ন করা হবে।

মাটিরাঙ্গায় বিনোদনের ব্যাবস্থা উন্নত করার লক্ষ্যে শতবর্ষী বটমুল ও জলপাহাড়কে আধুনিকায়ন করা হবে। মাটিরাঙ্গার ধলিয়া লেককে আধুনিকায়ন করে একটি আকর্ষনীয় পর্যটন কেন্দ্র করা হবে। মাটিরাঙ্গার জনগণের দীর্ঘদিনের দাবীকে গ্রাহ্য করে পৌর পরিবহন টার্মিনাল করার লক্ষ্যে ইতিমধ্যে জমি অধিগ্রহণের জন্য সংলিষ্ট মন্ত্রনালয়ে আবেদন করা হয়েছে বলেও সাংবাদিকদের জানান তিনি।

নির্বাচনে বহিরাগতরা প্রভাব বিস্তার করছে প্রতিপক্ষ প্রার্থীদের এমন অভিযোগের ভিত্তিতে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, বহিরাগতদের প্রভাব বিস্তার নিতান্তই গুজব, ভোটাররাই আমার জন্য যথেষ্ট। পৌরবাসির প্রতি আমার আস্থা রয়েছে।

বিগত নির্বাচনে দেয়া প্রতিশ্রুতি শতভাগ বাস্তাবায়ন করা হয়েছে কি না এমন প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, বিভিন্ন সীমাবদ্ধতার কারণে সকল প্রতিশ্রুতি শতভাগ বাস্তবায়িত হয়নি। এবার নির্বাচিত হলে শতভাগ উন্নয়ন করা হবে এবং পাশাপাশি অসমাপ্ত প্রকল্পগুলো বাস্তবায়ন করা হবে।

বিএনপির প্রার্থীদের প্রচার প্রচারণায় ক্ষমতাসীনদের প্রভাব বিস্তার করছে এমন অভিযোগের ভিত্তিতে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, অহেতুক অভিযোগ করা বিএনপির স্বভাবে পরিণত হয়েছে। তাদেরকে কোন ধরণের প্রচারনায় বাধা প্রদান করা হয় নি। নির্বাচনে বিজয়ী হলে নির্বাচন সুষ্ঠু হয়েছে আর পরাজিত হলে কারচুপি হয়েছে এমন বক্তব্য থেকে বিএনপিকে বেরিয়ে আসারও আহবান জানান তিনি।

প্রসঙ্গত, চতুর্থ ধাপে আগামী ১৪ ফেব্রুয়ারি অনুষ্ঠিতব্য মাটিরাঙ্গা পৌরসভা নির্বাচনে মোট ভোটার সংখ্যা ১৮ হাজার ৯শ৬৫ জন। পুরুষ ভোটার ৯ হাজার ৮শ ৬ জন এবং নারী ভোটার ৯ হাজার ১শ ৬৯ জন বলে জানা যায়। মাটিরাঙ্গা পৌরসভা নির্বাচনে ৯টি ভোট কেন্দ্রে ৫৫টি বুথে ভোট গ্রহণ করার কথা রয়েছে।

 

Print Friendly, PDF & Email
ঘটনাপ্রবাহ: আওয়ামী লীগ, নির্বাচন, মাটিরাঙা
Facebook Comment

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

3 − two =

আরও পড়ুন